শুক্রবার রাত থেকে রবিবার ভোর পর্যন্ত ভোটকেন্দ্রে নিরবচ্ছিন্ন বিদ্যুৎ

Send
সঞ্চিতা সীতু
প্রকাশিত : ২০:৫৬, জানুয়ারি ৩১, ২০২০ | সর্বশেষ আপডেট : ২০:৫৭, জানুয়ারি ৩১, ২০২০

ঢাকার দুই সিটি করপোরেশন নির্বাচনঢাকার দুই সিটি নির্বাচনে সব ভোটকেন্দ্রে  শুক্রবার (৩১ জানুয়ারি) রাত থেকে রবিবার (২ ফেব্রুয়ারি) ভোর ৬টা পর্যন্ত নিরবচ্ছিন্ন বিদ্যুৎ সরবরাহ থাকবে। ইলেকট্রনিক ভোটিং মেশিনে (ইভিএম) আয়োজিত ভোটকে ঘিরে ঢাকা পাওয়ার ডিস্ট্রিবিউশন কোম্পানি (ডিপিডিসি) ও ঢাকা ইলেকট্রিসিটি সাপ্লাই কোম্পানি (ডেসকো) এই উদ্যোগ নিয়েছে।

ডেসকো-ডিপিডিসি সূত্র বলছে, যেসব কেন্দ্রে দ্বৈত বিদ্যুৎ সংযোগ দেওয়া সম্ভব, তার সবগুলোতে দেওয়া হয়েছে। আর যেসব কেন্দ্রে দ্বৈত সংযোগ দেওয়া সম্ভব নয়, সেখানে বিশেষ টিম গঠন করা হয়েছে। সার্বক্ষণিক মোবাইল ট্রান্সফরমার রাখা হয়েছে।

জানতে চাইলে ডিপিডিসির নির্বাহী পরিচালক (অপারেশন) এ টি এম হারুন অর রশীদ বলেন, ‘যেখানে দ্বৈত লাইন দেওয়া সম্ভব, সেখানে সব কেন্দ্রেই দেওয়া হয়েছে। তবে, কিছু এলাকায় চাইলেও দ্বৈত লাইন দেওয়া সম্ভব নয়। সেখানে ট্রান্সফরমার রাখা হয়েছে। আমাদের সব এলাকায়ই বিশেষ দল গঠন করা হয়েছে। নির্বাচনের দিন আমি কাঁটাবন স্কাডা সেন্টারে সকাল থেকেই উপস্থিত থেকে বিতরণ ব্যবস্থা পর্যবেক্ষণ করবো।’

নির্বাচন কমিশন সূত্রে জানা গেছে, ইভিএম ব্যাটারিতে পরিচালিত হয়। একবার ব্যাটারি পূর্ণ চার্জ হলে অন্তত ৩৬ ঘণ্টা ব্যাকআপ পাওয়া যাবে। তবে, ব্যাটারির চার্জ শেষ হয়ে গেলে বিদ্যুৎ দিয়ে তা চার্জ দিতে হবে। এজন্য প্রতিটি ভোটকেন্দ্রে ইভিএমের সঙ্গে মাল্টি প্লাগ দিয়েছে ইসি।

ডেসকোর ব্যবস্থাপনা পরিচালক ব্রিগেডিয়ার জেনারেল (অব.) শাহিদ সারোয়ার বলেন, ‘আমরা নিরবচ্ছিন্ন বিদ্যুৎ সরবরাহের সব প্রস্তুতি নিয়েছি।আশা করি, কোথাও কোনও সমস্যা হবে না। আমাদের কন্ট্রোল রুমসহ সব বিভাগে বিশেষ ব্যবস্থা থাকবে। যেন বিদ্যুতের কোনও বিঘ্ন না ঘটে। আমরা প্রস্তুতি হিসেবে আগেই ভোটকেন্দ্রের তালিকা নিয়েছি। সব কেন্দ্র ডেসকো পরিদর্শন করেছে।যেখানে-যেখানে দ্বৈত লাইন দেওয়া সম্ভব, সবখানে দেওয়া হয়েছে।তবে, কোথাও কোথাও দ্বৈত লাইন দেওয়া সম্ভব নয়।’

প্রসঙ্গত, ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনে মোট ভোটার ২৪ লাখ ৫৩ হাজার ১৯৪ জন। ভোটকেন্দ্র এক হাজার ১৫০টি আর ভোটার কক্ষ থাকবে ছয় হাজার ৫৮৮টি। অন্য দিকে ঢাকা উত্তরে এবার মোট ভোটার ৩০ লাখ ১০ হাজার ২৭৩ জন। ভোটকেন্দ্র রয়েছে উত্তরে এক হাজার ৩১৮টি আর কক্ষ থাকছে সাত হাজার ৮৪৬টি কক্ষ।

উল্লেখ্য, ঢাকা উত্তরে বেশির ভাগ এলাকায় ডেসকো এবং আংশিক এলাকায় ডিপিডিসি বিদ্যুৎ বিতরণ করে। আর দক্ষিণের সব এলাকায়ই বিদ্যুৎ বিতরণ করে ডিপিডিসি। এবার ইভিএমে ভোট অনুষ্ঠানের পরিপ্রেক্ষিতে ইসি বিদ্যুৎ বিভাগকে ভোটের দিন নিরবচ্ছিন্ন বিদ্যুৎ সরবরাহের নির্দেশ দেয়। বিদ্যুৎ বিভাগ সেই নির্দেশনার পরিপ্রেক্ষিতে দুই কোম্পানিকে আগে থেকেই প্রস্তুতি নেওয়ার নির্দেশ দেয়।

 

 

/এমএনএইচ/

লাইভ

টপ