সেকশনস

ঐতিহ্যবাহী কালাই রুটি ফুটপাত থেকে রেস্তোরাঁয়

আপডেট : ০৮ জানুয়ারি ২০২০, ২০:০৩
image

এক সময় ফুটপাতের খাবার হিসাবে প্রচলন ছিল রাজশাহী ও চাঁপাইনবাবগঞ্জ অঞ্চলের ঐতিহ্যবাহী খাবার কালাই রুটির। কিন্তু ভোজনরসিকদের পছন্দের কারণে কালাই রুটি এখন রাজশাহীর রেস্তোরাঁর নিয়মিত খাবারে পরিণত হয়েছে। এতে করে কালাই রুটির কারিগরদের চাহিদা তৈরি হয়েছে। ক্রেতাদের রুচির পরিবর্তনে সুযোগ তৈরি হয়েছে কর্মসংস্থানও।


গত দশ বছর ধরে রাজশাহী নগরীতে কালাই রুটির জনপ্রিয়তার কারণে বেশ কিছু দোকান গড়ে উঠেছে। এরমধ্যে নগরীর উপশহর এলাকায় রয়েছে পাশাপাশি তিনটি দোকান। এই দোকানগুলোতে সন্ধ্যার পরপরই অসাধারণ স্বাদের কালাইয়ের রুটি খেতে অনেকে ছুটে আসেন দূরদূরান্ত থেকে। সোহরাওয়ার্দী মেডিক্যাল কলেজের ১৯ ব্যাচের ছাত্র শফিউল ইসলাম ওরফে মামুন তেমনই একজন। তিনি জানালেন, ২৭ ডিসেম্বর রাজশাহীতে এসেছেন। আসার পর থেকেই প্রায় গরম গরম কালাইয়ের রুটির স্বাদ নিতে উপশহরে আসেন। শুধু নিজেই নয়, স্থানীয় বন্ধুদের সঙ্গে করে আসেন। তবে কালাই রুটির সাথে বেগুন ভর্তা ভালো লাগে না বলে জানালেন শফিউল। তার মতে, হাঁসের মাংস ও ধনিয়া চাটনি দিয়েই এই রুটি বেশি সুস্বাদু।


রাজশাহী কোর্ট মহাবিদ্যালয়ের ছাত্রী তোরসা ও নগরীর বহরামপুর এলাকার গৃহিণী নুসরাত অবশ্য জানালেন, বেগুন ভর্তা, চাটনি, বট দিয়ে কালাইয়ের রুটি খেতে অসাধারণ।
শুধু উপশহর নয়, নগরীর ব্যস্ততম এলাকা সাহেববাজার বড় মসজিদের কাছে দামি রেস্তোরাঁ বিদ্যুৎ হোটেলের বাইরে টাঙানো হয়েছে ‘নতুন সংযোজন’ নামের একটি ব্যানার। যেখানে বড় হরফে লেখা আছে কালাই রুটি পাওয়া যায়। এই রেস্তোরাঁর সামনে গ্যাসের চুলায় কালাই রুটি তৈরি করছিলেন তারেক নামের এক কারিগর। তিনি জানালেন, এখানে এক মাস আগে অন্য খাবারের সাথে কালাই রুটি বিক্রি করা হচ্ছে।  তারেক বলেন, ‘গ্যাসের চুলার চেয়ে মাটির চুলায় তৈরি কালাই রুটির স্বাদের ভিন্নতা অন্যরকম লাগে। কিন্তু জায়গা ও পরিবেশের কথা চিন্তা করে গ্যাসের চুলায় আমরা কালাই রুটি তৈরি করছি।’ তার পাশের একটি রেস্টেুরেন্টে বিকালের নাস্তা খাচ্ছিলেন নগরীর খুলিপাড়া এলাকার গোলাম মোস্তাফা মামুন। তিনি বলেন, ‘তেলে ভাজা-পোড়া খাবারের চেয়ে কালাই রুটি খাওয়া অনেক ভালো। তাই অল্প খরচে ভর্তা দিয়ে কালাই রুটি দিয়ে নাস্তাটা করছি।’


নগরীর কালাই হাউসের মালিক ফুয়াদ হাসান রিপন বলেন, ‘এক সময় বাবা ফুটপাতে কালাই রুটি তৈরি করে বিক্রি করতো। এখন ফুটপাত থেকে কালাই রুটি উঠে এসেছে রেস্তোরাঁয়। আগে যেমন নিম্ন আয়ের মানুষরা কালাই রুটি ফুটপাতে বসে খেয়েছেন। এখন সব শ্রেণির মানুষ এসে আমাদের মতো কালাই রুটির দোকানে ঢুঁ মারছেন। স্বাদের কারণে তাদের আগ্রহ যেমন বাড়ছে, ঠিক একইভাবে কালাই রুটি কী দিয়ে খাওয়ানো যায়। সেটাও ভাবা হচ্ছে নতুন করে। কালাই রুটির সাথে গরুর মাংস, টার্কি মাংস, হাঁসের মাংস, বেগুন ভর্তা, ধনিয়া চাটনি দেওয়া হয় এখন।’


নগরীর রানী বাজারে ফুটপাতে কালাই রুটি তৈরি করছেন গোদাগাড়ী উপজেলার কাঁকনহাট এলাকার আব্দুল মমিন। তিনি বলেন, ‘আগে গ্রামে কালাই রুটি তৈরি করতাম। কিন্তু গ্রামের চেয়ে শহরে এই রুটির চাহিদা বেশি। তাই গ্রাম থেকে এসে ফুটপাতেই দীর্ঘদিন ধরে কালাই রুটির ব্যবসা করছি।’


কালাই হাউসের কারিগর রাসেল জানালেন, তার মা-বাবার কাছ থেকে এই রুটি তৈরি করা শিখেছেন। এই রুটি তৈরি করতে প্রথমে এক ভাগ চালের আটা, তিন ভাগ কালাইয়ের আটা মিশিয়ে পানি দিয়ে আটার গোল ডো তৈরি করা হয়। বল দুই হাতের তালুর চাপে চাপে তৈরি হতে থাকে কালাই রুটি। মাটির খোলায় (তাওয়া) এপিট ওপিঠ সেঁকতে হয়। তারপর চুলা থেকে নামিয়ে ক্রেতাদের পছন্দ অনুযায়ী কালাই রুটি পরিবেশন করা হয়।


রাজশাহী নগরীর উপশহর, সাহেবাজার, বিনোদপুর, কোর্ট এলাকা, রেলগেট, শালবাগান, রানীবাজার, লক্ষীপুর, পিএন স্কুলের বিপরীত দিকে, পদ্মার বাঁধসহ বিভিন্ন এলাকার রেস্তোরাঁয় ও ফুটপাতে একটি কালাই রুটি ২০ টাকা দামে বিক্রি হচ্ছে। তবে স্পেশাল বললে আরও ১০ টাকা যোগ করতে হবে। আর কালাই রুটির সাথে অন্য খাবার যোগ করতে হলে আলাদা বাড়তি টাকা দিতে হবে। শুধু ধনিয়া চাটনি কিংবা লবণ ঝাল কালাই রুটির সাথে ফ্রি দেওয়া হয়। মূলত শীতের খাবার হলেও ক্রেতাদের চাহিদার কারণে সারাবছরেই রাজশাহীতে এই খাবার পাওয়া যায়।

/এনএ/

সম্পর্কিত

বিশ্বজুড়ে পিৎজার যত আজব টপিংস!

বিশ্বজুড়ে পিৎজার যত আজব টপিংস!

বিশ্বের সবচেয়ে জনপ্রিয় এনার্জি ড্রিংকের ইতিকথা

বিশ্বের সবচেয়ে জনপ্রিয় এনার্জি ড্রিংকের ইতিকথা

যে গাছের ফুল থেকে তৈরি জুস জনপ্রিয় ইউরোপজুড়ে

যে গাছের ফুল থেকে তৈরি জুস জনপ্রিয় ইউরোপজুড়ে

বলকান অঞ্চলের জনপ্রিয় স্ট্রিট ফুড ‘ইয়ুকফা কাবাব’

বলকান অঞ্চলের জনপ্রিয় স্ট্রিট ফুড ‘ইয়ুকফা কাবাব’

মজার খাবার ‘ফ্রেঞ্চ তাকো’

মজার খাবার ‘ফ্রেঞ্চ তাকো’

সর্বশেষ

আটক বাঙালি সৈন্যদের সীমান্ত থেকে পাঞ্জাবে আনা হচ্ছে

আটক বাঙালি সৈন্যদের সীমান্ত থেকে পাঞ্জাবে আনা হচ্ছে

প্রাথমিক বিদ্যালয়ের জন্য অভিন্ন বৃক্ষরোপণ নীতিমালা

প্রাথমিক বিদ্যালয়ের জন্য অভিন্ন বৃক্ষরোপণ নীতিমালা

ভ্রাম্যমাণ আদালতের অভিযানে ৩ প্রতিষ্ঠানকে জরিমানা

ভ্রাম্যমাণ আদালতের অভিযানে ৩ প্রতিষ্ঠানকে জরিমানা

কুমিল্লায় চুরি-ছিনতাইসহ বেড়েছে ৮ অপরাধ

কুমিল্লায় চুরি-ছিনতাইসহ বেড়েছে ৮ অপরাধ

সিটি নির্বাচনের আগে সিএমপির ৫ থানায় রদবদল

সিটি নির্বাচনের আগে সিএমপির ৫ থানায় রদবদল

সিআরইউ-এর সভাপতি হাসিব, সম্পাদক জাহাঙ্গীর

সিআরইউ-এর সভাপতি হাসিব, সম্পাদক জাহাঙ্গীর

‘সৌদি আরবে বাংলাদেশিদের অপরাধের পরিমাণ অনেক কম’

‘সৌদি আরবে বাংলাদেশিদের অপরাধের পরিমাণ অনেক কম’

‘বড় নগরগুলোতে ভ্যাকসিন দেওয়া চ্যালেঞ্জিং’

‘বড় নগরগুলোতে ভ্যাকসিন দেওয়া চ্যালেঞ্জিং’

২৩ জানুয়ারি প্রধানমন্ত্রী ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় দেবেন মুজিববর্ষের উপহার

২৩ জানুয়ারি প্রধানমন্ত্রী ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় দেবেন মুজিববর্ষের উপহার

বকশীগঞ্জে ট্রাক্টরের চাপায় স্কুলছাত্র নিহত

বকশীগঞ্জে ট্রাক্টরের চাপায় স্কুলছাত্র নিহত

ছোট ভাইয়ের স্ত্রীকে খুনের অভিযোগ, ৭ বছর পর গ্রেফতার

ছোট ভাইয়ের স্ত্রীকে খুনের অভিযোগ, ৭ বছর পর গ্রেফতার

বিনামূল্যে করোনা টেস্টের সুপারিশ

বিনামূল্যে করোনা টেস্টের সুপারিশ

সর্বশেষসর্বাধিক

লাইভ

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

বিশ্বজুড়ে পিৎজার যত আজব টপিংস!

বিশ্বজুড়ে পিৎজার যত আজব টপিংস!

বিশ্বের সবচেয়ে জনপ্রিয় এনার্জি ড্রিংকের ইতিকথা

বিশ্বের সবচেয়ে জনপ্রিয় এনার্জি ড্রিংকের ইতিকথা

যে গাছের ফুল থেকে তৈরি জুস জনপ্রিয় ইউরোপজুড়ে

যে গাছের ফুল থেকে তৈরি জুস জনপ্রিয় ইউরোপজুড়ে

বলকান অঞ্চলের জনপ্রিয় স্ট্রিট ফুড ‘ইয়ুকফা কাবাব’

বলকান অঞ্চলের জনপ্রিয় স্ট্রিট ফুড ‘ইয়ুকফা কাবাব’

মজার খাবার ‘ফ্রেঞ্চ তাকো’

মজার খাবার ‘ফ্রেঞ্চ তাকো’


[email protected]
© 2021 Bangla Tribune
Bangla Tribune is one of the most revered online newspapers in Bangladesh, due to its reputation of neutral coverage and incisive analysis.