X

সেকশনস

কেউ যেন তোমাদের বদনাম না করে, স্বেচ্ছাসেবক লীগকে বঙ্গবন্ধু

আপডেট : ১৪ মার্চ ২০২০, ১১:৪৭

১৯৭২ সালের ১৫ মার্চের পত্রিকা

স্বেচ্ছাসেবকদের কর্তব্য সম্পর্কে সতর্ক করে দিয়ে প্রধানমন্ত্রী বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান বলেন, ‘কেউ যেন তোমাদের বদনাম না করে। কারও ওপরে তোমরা অত্যাচার করেছ এমন কথা যেন আমি না শুনি। তোমাদের সম্পর্কে এমন কোনও অভিযোগ এলে আমার মুখে চুনকালি পড়বে।’

১৯৭২ সালের ১৪ মার্চ সোহরাওয়ার্দী ময়দানে আওয়ামী লীগের স্বেচ্ছাসেবক দলের সমাবেশে তিনি এসব কথা বলেন। তিনি বলেন, ‘যারা অস্ত্রের জোরে দেশ চালায় শুধু সেইসব সরকার দুর্বল হয়। আমাদেরকে দুর্বল ভাবলে ভুল করা হবে। আমাদের পেছনে সাত কোটি মানুষের সমর্থন রয়েছে।’ দেশের জনগণ বিশেষ করে যুব সমাজকে গ্রামে গ্রামে গিয়ে দেশ গঠনমূলক কাজে অংশ নেওয়ার আহ্বান জানান বঙ্গবন্ধু। প্রয়োজনে তিনি তাদের মাটি কাটার পরামর্শ দেন।

সংগ্রাম এখনও শেষ হয়নি

প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘আমাদের সংগ্রাম এখনও শেষ হয়নি। আমাদের ধরে নিতে হবে যে মুক্তিসংগ্রাম এখনও চলছে এবং আরও তিন বছর চলবে এই মনোভাব ও উদ্যম নিয়ে এখন দেশ গড়ার সংগ্রাম চালিয়ে যেতে হবে।’

১৯৭২ সালের ১৫ মার্চের পত্রিকা যুদ্ধবিধ্বস্ত বাংলাদেশের বর্তমান দুর্দশার ছবি তুলে ধরে ভারাক্রান্ত কণ্ঠে বঙ্গবন্ধু বলেন, ‘বাংলাদেশের ৩০ লাখ লোক প্রাণ দিয়েছে। অসংখ্য মা-বোনকে নিগৃহীত হতে হয়েছে। বুদ্ধিজীবীদের হত্যা করা হয়েছে। রাস্তাঘাট বিধ্বস্ত হয়েছে যাবতীয় সম্পদ লুণ্ঠিত হয়েছে। বাংলাদেশের এখন কিছু নেই। সম্পূর্ণ শূন্য হাতে সরকারকে কাজ শুরু করতে হয়েছে। জানি না কী করবো, কী করতে পারবো।’

চাকরি দিতে পারবোনা

এক শ্রেণির লোকের কথা উল্লেখ করে বঙ্গবন্ধু বলেন, ‘এরা আমাদের অফিসের ভিড় করছে আর চাকরির দাবি জানাচ্ছে। সবাই বলছে, তারা ত্যাগ করেছে।’ এদের প্রতি দেশ গঠনের কাজে অংশ নেওয়ার আহ্বান জানিয়ে তিনি বলেন, ‘চাকরি দিতে পারবো না। কিছুই দিতে পারবো না। সবাই ত্যাগ করেছে। চাকরি দেবার আগে চাকরি সৃষ্টি করতে হবে।’

১৯৭২ সালের ১৫ মার্চের পত্রিকা ১৯৭১ এর মার্চে অসহযোগ আন্দোলনকালে স্বেচ্ছাসেবক বাহিনী যেভাবে শান্তি-শৃঙ্খলা বজায় রেখেছিল তার প্রশংসা করে বঙ্গবন্ধু বলেন, ‘আপনারা আমার নির্দেশে অস্ত্র হাতে নিয়েছিলেন। আবার আমাদের দেশে অস্ত্র ত্যাগ করেছেন। যারা আমার নির্দেশ মানেনি অস্ত্র জমা দেয়নি তারা দুষ্কৃতকারী।’

প্রধানমন্ত্রী বলেন, পুলিশ বা সরকারি ক্ষমতা দিয়ে আমি দমন করতে চাই না। স্বেচ্ছাসেবকদের উদ্দেশ্যে তিনি বলেন, ‘এ দায়িত্ব তোমাদের পালন করতে হবে। তোমাদের সঙ্গে থাকবে জনগণ। যারা অস্ত্র জমা দেয়নি তারা দুষ্কৃতকারী।’

যারা অস্ত্র জমা দেয়নি তারা দুস্কৃতিকারী

প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘আমার নির্দেশ অমান্য করে যারা আজ অস্ত্র জমা দেয়নি তারা আমাকে ভালোবাসে না। বাংলাদেশেও ভালোবাসে না। তারা দুষ্কৃতকারী।’

১৯৭২ সালের ১৫ মার্চের পত্রিকা তিনি বলেন, এই দুষ্কৃতকারীরা দেশে তাদের নিজেদের একটি পাল্টা সরকার বসাতে চায়। এরা এখন গ্রামে গ্রামে এবং বিভিন্ন এলাকায় বিশৃঙ্খলা সৃষ্টি করছে। এদের প্রতি কঠোর হুঁশিয়ারি উচ্চারণ করে বলেন, ‘একদল লোক আমাদের আদর্শের বিরুদ্ধে কথা বলে বেড়ান। আমাদের ঘোষিত চারটি আদর্শের বিরুদ্ধে যারা কথা বলবে জনগণ তাদের ক্ষমা করবে না।’

তিনি বলেন, ‘একটি আদর্শের ভিত্তিতে স্বাধীনতা সংগ্রাম হয়েছে এবং দেশ স্বাধীন হয়েছে দেশ স্বাধীন করা যদি সম্ভব হয় থাকে তবে এদেরকে মোকাবিলা করা কঠিন হবে না। আওয়ামী লীগ স্বেচ্ছাসেবক দলের প্রতি আহ্বান জানান তিনি বলেন, ‘দেশ এখন স্বাধীন। যার যা খুশি লেখেন।’

তিনি বলেন, ‘এ সরকার শুধু আওয়ামী লীগের সরকার নয়, এ সরকার দেশের মানুষের সরকার।’

১৯৭২ সালের ১৫ মার্চের পত্রিকা

কারও কাছে মাথা নত নয়

বঙ্গবন্ধু বলেন, ‘কোনও অবস্থাতেই তিনি কারও কাছে মাথা নত করতে পারবেন না। নাকে খত দিয়ে সাহায্য কিনে আনতে পারবেন না।’ বঙ্গবন্ধু সুস্পষ্টভাবে ঘোষণা করেন যে, তথাকথিত বৈদেশিক সাহায্য ও সহযোগিতার নামে দেশের ভাগ্য নিয়ে ছিনিমিনি খেলতে দেবেন না। তিনি বলেন, টাকার জন্য তিনি কারও কাছে দেশ বন্ধক রাখতে পারবেন না। আপামর জনসাধারণকে দেশ গড়ার কাজে শরিক হওয়ার আহ্বান জানিয়ে আবেগজড়িত কণ্ঠে বঙ্গবন্ধু বলেন, ‘আমি দেখতে চাই, বাংলার মানুষ খেয়ে পরে বেঁচে আছে। দেখতে চাই, তাদের মুখে আনন্দের হাসি। দেখতে চাই, গ্রামে গ্রামে শুরু হয়েছে লাঠি খেলা, চলছে নৌকাবাইচ।’

আওয়ামী লীগ স্বেচ্ছাসেবক দলকে জনসেবায় আত্মনিয়োগের আহ্বান জানিয়ে তিনি বলেন, ‘তোমাদের কাজ সাত কোটি মানুষের সেবা করা। মানবতার সেবাই সবচেয়ে বড় সেবা।’

রাতারাতি মুক্তিযোদ্ধা পরিচয়দানকারীদের সমালোচনা

বঙ্গবন্ধু বলেন, মানুষের মুখে হাসি ফুটুক তাই আমরা চাই। প্রয়োজন হলে, আমরা মন্ত্রিত্ব ছেড়ে দেবো কিন্তু জনগণের সমর্থন হারাবো না। ১৬ ডিসেম্বরের পর যারা রাতারাতি মুক্তিযোদ্ধা পরিচয় দিতে শুরু করেছেন তাদের কার্যকলাপের তীব্র সমালোচনা করে তিনি তাদেরকে সাবধান করে দেন।

প্রধানমন্ত্রী চোরাকারবারি ও মুনাফিকদের বিরুদ্ধে কঠোর হুঁশিয়ারি প্রদান করেন। তিনি বলেন, অবস্থার সুযোগ নিয়ে এরা চোরাকারবারি করছে। এদের দমন করতে তিনি স্বেচ্ছাসেবকদের আহ্বান জানান।

তিনি বলেন, দেশ এখন স্বাধীন। স্বাধীনতা অর্থ বিশৃঙ্খলার নয়। চুরি দুষ্কর্ম চোরাচালান নয়। এত ত্যাগের বিনিময়ে অর্জিত স্বাধীনতাকে বৃথা যেতে দেওয়া হবে না।

 

 

/এসটি/

সম্পর্কিত

করোনায় আরও মৃত্যু ২০

করোনায় আরও মৃত্যু ২০

ভারতের উপহারের পুরোটাই অক্সফোর্ড-অ্যাস্ট্রাজেনেকার ভ্যাক্সিন

ভারতের উপহারের পুরোটাই অক্সফোর্ড-অ্যাস্ট্রাজেনেকার ভ্যাক্সিন

‘যুক্তরাষ্ট্রের সঙ্গে আরও ঘনিষ্ঠভাবে কাজ করবে বাংলাদেশ’

‘যুক্তরাষ্ট্রের সঙ্গে আরও ঘনিষ্ঠভাবে কাজ করবে বাংলাদেশ’

ধর্ষণের শিকার নারী-শিশুর পরিচয় প্রকাশে নিষেধাজ্ঞা বাস্তবায়নে রিট

ধর্ষণের শিকার নারী-শিশুর পরিচয় প্রকাশে নিষেধাজ্ঞা বাস্তবায়নে রিট

টিকা সংরক্ষণে যে পরিকল্পনা সরকারের

টিকা সংরক্ষণে যে পরিকল্পনা সরকারের

মুক্তিযোদ্ধাদের বিভক্তি মুক্তিযুদ্ধের অর্জন ও চেতনাকে দুর্বল করছে

মুক্তিযোদ্ধাদের বিভক্তি মুক্তিযুদ্ধের অর্জন ও চেতনাকে দুর্বল করছে

‘বহুতল টিএসসি’র পরিকল্পনাকে যেভাবে দেখছেন স্থপতিরা

‘বহুতল টিএসসি’র পরিকল্পনাকে যেভাবে দেখছেন স্থপতিরা

নামাজের আগে জঙ্গিবাদের কুফল নিয়ে বয়ানের আহ্বান

নামাজের আগে জঙ্গিবাদের কুফল নিয়ে বয়ানের আহ্বান

বুধ বা বৃহস্পতিবার আসছে টিকা, প্রথম পাবেন স্বাস্থ্যকর্মীরা

বুধ বা বৃহস্পতিবার আসছে টিকা, প্রথম পাবেন স্বাস্থ্যকর্মীরা

ওয়াজ মাহফিলে উসকানিমূলক বক্তব্য বিষয়ে ভাবছে পুলিশ

ওয়াজ মাহফিলে উসকানিমূলক বক্তব্য বিষয়ে ভাবছে পুলিশ

জিয়া পরিবারে মানি ইজ প্রবলেম হয়ে দাঁড়িয়েছে

জিয়া পরিবারে মানি ইজ প্রবলেম হয়ে দাঁড়িয়েছে

নাইকো দুর্নীতি মামলার অভিযোগ গঠনের শুনানি পেছালো

নাইকো দুর্নীতি মামলার অভিযোগ গঠনের শুনানি পেছালো

সর্বশেষ

জঙ্গি সংগঠনের সদস্য গ্রেফতার

জঙ্গি সংগঠনের সদস্য গ্রেফতার

নাগরিক ঐক্যে যোগ দিলেন জাপার প্রেসিডিয়াম সদস্য মনিরা বেগম

নাগরিক ঐক্যে যোগ দিলেন জাপার প্রেসিডিয়াম সদস্য মনিরা বেগম

দূর শিক্ষণে অংশ নিচ্ছে না সাড়ে ৬৯ শতাংশ শিক্ষার্থী!

দূর শিক্ষণে অংশ নিচ্ছে না সাড়ে ৬৯ শতাংশ শিক্ষার্থী!

জেমকন গ্রুপের অরগানিকেয়ারের সঙ্গে ইভ্যালির চুক্তি

জেমকন গ্রুপের অরগানিকেয়ারের সঙ্গে ইভ্যালির চুক্তি

তামিম সব সইতে রাজি

তামিম সব সইতে রাজি

দুই হাজার কোটি টাকা পাচার: ফরিদপুরের দুই চেয়ারম্যান কারাগারে

দুই হাজার কোটি টাকা পাচার: ফরিদপুরের দুই চেয়ারম্যান কারাগারে

ডিআইজি মিজানসহ ৪ জনের বিরুদ্ধে পরবর্তী সাক্ষ্যগ্রহণ ২৬ জানুয়ারি

ডিআইজি মিজানসহ ৪ জনের বিরুদ্ধে পরবর্তী সাক্ষ্যগ্রহণ ২৬ জানুয়ারি

ডিআইজি প্রিজনস পার্থ গোপাল বণিকের বিরুদ্ধে বাদীর সাক্ষ্যগ্রহণ হয়নি

ডিআইজি প্রিজনস পার্থ গোপাল বণিকের বিরুদ্ধে বাদীর সাক্ষ্যগ্রহণ হয়নি

ভ্যাকসিন নিয়ে দুর্নীতিতে জড়িয়েছে সরকার: মির্জা ফখরুল

ভ্যাকসিন নিয়ে দুর্নীতিতে জড়িয়েছে সরকার: মির্জা ফখরুল

রাজ অবমাননা আইনে থাইল্যান্ডে রেকর্ড মেয়াদের কারাদণ্ড

রাজ অবমাননা আইনে থাইল্যান্ডে রেকর্ড মেয়াদের কারাদণ্ড

লাইসেন্স-ডাক্তার-নার্স ছাড়াই চলছিল ৩ ক্লিনিক!

লাইসেন্স-ডাক্তার-নার্স ছাড়াই চলছিল ৩ ক্লিনিক!

৩০ কেজি গাঁজাসহ ৩ মাদক ব্যবসায়ী গ্রেফতার

৩০ কেজি গাঁজাসহ ৩ মাদক ব্যবসায়ী গ্রেফতার

সর্বশেষসর্বাধিক

লাইভ

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

করোনায় আরও মৃত্যু ২০

করোনায় আরও মৃত্যু ২০

ভারতের উপহারের পুরোটাই অক্সফোর্ড-অ্যাস্ট্রাজেনেকার ভ্যাক্সিন

ভারতের উপহারের পুরোটাই অক্সফোর্ড-অ্যাস্ট্রাজেনেকার ভ্যাক্সিন

‘যুক্তরাষ্ট্রের সঙ্গে আরও ঘনিষ্ঠভাবে কাজ করবে বাংলাদেশ’

‘যুক্তরাষ্ট্রের সঙ্গে আরও ঘনিষ্ঠভাবে কাজ করবে বাংলাদেশ’

টিকা সংরক্ষণে যে পরিকল্পনা সরকারের

টিকা সংরক্ষণে যে পরিকল্পনা সরকারের

মুক্তিযোদ্ধাদের বিভক্তি মুক্তিযুদ্ধের অর্জন ও চেতনাকে দুর্বল করছে

মুক্তিযোদ্ধাদের বিভক্তি মুক্তিযুদ্ধের অর্জন ও চেতনাকে দুর্বল করছে

নামাজের আগে জঙ্গিবাদের কুফল নিয়ে বয়ানের আহ্বান

নামাজের আগে জঙ্গিবাদের কুফল নিয়ে বয়ানের আহ্বান

বুধ বা বৃহস্পতিবার আসছে টিকা, প্রথম পাবেন স্বাস্থ্যকর্মীরা

বুধ বা বৃহস্পতিবার আসছে টিকা, প্রথম পাবেন স্বাস্থ্যকর্মীরা

জিয়া পরিবারে মানি ইজ প্রবলেম হয়ে দাঁড়িয়েছে

জিয়া পরিবারে মানি ইজ প্রবলেম হয়ে দাঁড়িয়েছে

৯ হাজার কোটি টাকার গ্যাস বিল বাকি সরকারের

৯ হাজার কোটি টাকার গ্যাস বিল বাকি সরকারের

১৫ রাষ্ট্রায়ত্ত চিনিকলের ১৪টি অলাভজনক 

১৫ রাষ্ট্রায়ত্ত চিনিকলের ১৪টি অলাভজনক 


[email protected]
© 2021 Bangla Tribune
Bangla Tribune is one of the most revered online newspapers in Bangladesh, due to its reputation of neutral coverage and incisive analysis.