সেকশনস

আফগান কারাগারে সংঘর্ষ অব্যাহত, আইএস-এর দায় স্বীকার

আপডেট : ০৩ আগস্ট ২০২০, ১৬:৫৫
image

আফগানিস্তানের জালালাবাদের কারাগারে বন্দুকধারীদের হামলার বেশ কয়েক ঘণ্টা পেরিয়ে গেলেও পরিস্থিতি এখনও নিরাপত্তা বাহিনীর নিয়ন্ত্রণে আসেনি। দুই পক্ষের মধ্যে সংঘর্ষ অব্যাহত রয়েছে। রবিবার (২ আগস্ট) সন্ধ্যা থেকে চলমান এ সংঘর্ষে এরইমধ্যে ২১ জন নিহত ও ৪৩ জন আহত হয়েছে। নিহতদের মধ্যে কারাবন্দি ছাড়াও রয়েছে বেসামরিক নাগরিক, কারারক্ষী ও আফগান নিরাপত্তা বাহিনীর সদস্য। সোমবার (৩ আগস্ট) নিরাপত্তা বাহিনীর গুলিতে তিন বন্দুকধারীও নিহত হয়েছে। সব মিলে এ ঘটনায় প্রাণহানির সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ২৪। নানগারহার প্রদেশের গভর্নরের মুখপাত্রকে উদ্ধৃত করে কাতারভিত্তিক সংবাদমাধ্যম আলজাজিরা এসব তথ্য জানিয়েছে। এরইমধ্যে হামলার দায় স্বীকার করেছে মধ্যপ্রাচ্যভিত্তিক জঙ্গি সংগঠন আইএস-এর আফগানিস্তান শাখা।

রবিবার (২ আগস্ট) রাতে নানগারগার প্রদেশের রাজধানী জালালাবাদের কারা প্রাঙ্গণে গাড়িবোমা হামলা চালায় এক আত্মঘাতী। এরপরই নিরাপত্তা প্রহরীদের লক্ষ্য করে গুলি ছুড়তে থাকে বেশ কয়েকজন বন্দুকধারী। পরে নিরাপত্তা বাহিনী অভিযান শুরু করলে দুই পক্ষের মধ্যে সংঘর্ষ শুরু হয়। আফগান কর্মকর্তারা জানিয়েছেন, নিহতের সংখ্যা আরও বাড়তে পারে।

বেশ কয়েকজন বন্দি এরইমধ্যে কারাগার থেকে পালিয়েছে। নানগারহার পুলিশের মুখপাত্র তারেক আজিজ ফরাসি বার্তা সংস্থা এএফপিকে বলেন, প্রায় ১০০ কারাবন্দি পালাতে চেয়েছিল। তাদের বেশিরভাগকেই আটকাতে পেরেছে নিরাপত্তা বাহিনী। তবে নানগারহার প্রাদেশিক কাউন্সিলের প্রধান আহমদ আলি হাজারাত দাবি করেছেন, যেসব বন্দি পালাতে চেয়েছিল, তাদের একটা বড় অংশই পালাতে সক্ষম হয়েছে।

কারাগারটিতে প্রায় দেড় হাজার বন্দি রয়েছে। এরমধ্যে কয়েকশ’ বন্দিকে জঙ্গি সংগঠন আইএস-এর আফগান শাখার সদস্য বলে মনে করা হয়ে থাকে। আলজাজিরার প্রতিবেদনে বলা হয়, কারাগারটিতে হামলার ঘটনায় আইএস-এর আফগান শাখা দায় স্বীকার করেছে। সংগঠনটি সেখানে আইএস ইন খোরাসান প্রভিন্স নামে পরিচিত। নানগারহার প্রদেশে সংগঠনটির সদর দফতর ছিল।

নানগারহার প্রদেশের রাজধানী জালালাবাদের কাছে বিশেষ বাহিনীর অভিযানে এক জ্যেষ্ঠ আইএস কমান্ডার নিহত হওয়ার একদিনের মাথায় এ হামলা হলো।

এর আগে তালেবানের পক্ষ থেকে করা এক টুইটার পোস্টে হামলার দায় অস্বীকার করা হয়। ঈদুল আজহা উপলক্ষে সংগঠনটির সঙ্গে আফগান সরকারের অস্ত্রবিরতি চলছে।

নানগারহারে প্রায় নিয়মিতই বন্দুকধারীর হামলা হয়ে থাকে। এর অনেকগুলোরই দায় স্বীকার করে আইএস।

/এফইউ/এমওএফ/

সম্পর্কিত

ইসরায়েলের সঙ্গে যৌথ সামরিক মহড়ায় অংশ নেবে আমিরাত

ইসরায়েলের সঙ্গে যৌথ সামরিক মহড়ায় অংশ নেবে আমিরাত

করোনা শনাক্তের সংখ্যা সাড়ে ৯ কোটি ছাড়িয়েছে

করোনা শনাক্তের সংখ্যা সাড়ে ৯ কোটি ছাড়িয়েছে

টানা ষষ্ঠবারের মতো উগান্ডার প্রেসিডেন্ট হলেন ইওয়েরি মুসেভেনি

টানা ষষ্ঠবারের মতো উগান্ডার প্রেসিডেন্ট হলেন ইওয়েরি মুসেভেনি

ফিলিস্তিনে প্রেসিডেন্ট ও পার্লামেন্ট নির্বাচনের তারিখ ঘোষণা

ফিলিস্তিনে প্রেসিডেন্ট ও পার্লামেন্ট নির্বাচনের তারিখ ঘোষণা

আফগানিস্তানে বন্দুকধারীর হামলায় দুই নারী বিচারপতি নিহত

আফগানিস্তানে বন্দুকধারীর হামলায় দুই নারী বিচারপতি নিহত

ফাইজার ভ্যাকসিনে প্রাণহানি, নরওয়ের জরুরি পরামর্শ চেয়েছে অস্ট্রেলিয়া

ফাইজার ভ্যাকসিনে প্রাণহানি, নরওয়ের জরুরি পরামর্শ চেয়েছে অস্ট্রেলিয়া

সময়ের আগেই থেমে গেলো নাসার মেগা রকেটের ইঞ্জিন পরীক্ষা

সময়ের আগেই থেমে গেলো নাসার মেগা রকেটের ইঞ্জিন পরীক্ষা

নরওয়েতে ফাইজার ভ্যাকসিনে মৃত্যুর ঘটনায় বিবৃতি অস্ট্রেলীয় কর্তৃপক্ষের

নরওয়েতে ফাইজার ভ্যাকসিনে মৃত্যুর ঘটনায় বিবৃতি অস্ট্রেলীয় কর্তৃপক্ষের

সর্বশেষ

বাউফলে পানিতে ডুবে শিশুর মৃত্যু

বাউফলে পানিতে ডুবে শিশুর মৃত্যু

আগুন তাপাতে গিয়ে অন্তঃসত্ত্বা নারী দগ্ধ

আগুন তাপাতে গিয়ে অন্তঃসত্ত্বা নারী দগ্ধ

উপজেলা পরিষদকে কার্যকর করার দাবি  সংবাদ সম্মেলন

উপজেলা পরিষদকে কার্যকর করার দাবি  সংবাদ সম্মেলন

বৃহত্তর চান্দগাঁও-মোহরাকে আধুনিক উপশহর করার প্রতিশ্রুতি ডা. শাহাদাতের

বৃহত্তর চান্দগাঁও-মোহরাকে আধুনিক উপশহর করার প্রতিশ্রুতি ডা. শাহাদাতের

হকারদের সুস্পষ্ট নীতিমালা করে পুনর্বাসন করা হবে: রেজাউল করিম চৌধুরী

হকারদের সুস্পষ্ট নীতিমালা করে পুনর্বাসন করা হবে: রেজাউল করিম চৌধুরী

কাউকেই নির্বাচনি সহিংসতা ঘটাতে দেওয়া হবে না: সিএমপি কমিশনার

কাউকেই নির্বাচনি সহিংসতা ঘটাতে দেওয়া হবে না: সিএমপি কমিশনার

নীলফামারীতে পৃথকভাবে ৩৫০ জনের মাঝে শীতবস্ত্র বিতরণ

নীলফামারীতে পৃথকভাবে ৩৫০ জনের মাঝে শীতবস্ত্র বিতরণ

জোহরা আলাউদ্দিন এমপি করোনায় আক্রান্ত

জোহরা আলাউদ্দিন এমপি করোনায় আক্রান্ত

ইয়াবা ও ফেনসিডিল উদ্ধার, কারবারি গ্রেফতার

ইয়াবা ও ফেনসিডিল উদ্ধার, কারবারি গ্রেফতার

কলাবাগানে কিশোরীকে ধর্ষণ ও হত্যার প্রতিবাদে সহপাঠীদের দেয়াল লিখন

কলাবাগানে কিশোরীকে ধর্ষণ ও হত্যার প্রতিবাদে সহপাঠীদের দেয়াল লিখন

বাস-ট্রাক মুখোমুখি, চালক নিহত

বাস-ট্রাক মুখোমুখি, চালক নিহত

৬০ দিনে নিষ্পত্তির বিধান সত্ত্বেও মামলা ঝুলে আছে ১৩ বছর

৬০ দিনে নিষ্পত্তির বিধান সত্ত্বেও মামলা ঝুলে আছে ১৩ বছর

সর্বশেষসর্বাধিক

লাইভ

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

ইসরায়েলের সঙ্গে যৌথ সামরিক মহড়ায় অংশ নেবে আমিরাত

ইসরায়েলের সঙ্গে যৌথ সামরিক মহড়ায় অংশ নেবে আমিরাত

করোনা শনাক্তের সংখ্যা সাড়ে ৯ কোটি ছাড়িয়েছে

করোনা শনাক্তের সংখ্যা সাড়ে ৯ কোটি ছাড়িয়েছে

টানা ষষ্ঠবারের মতো উগান্ডার প্রেসিডেন্ট হলেন ইওয়েরি মুসেভেনি

টানা ষষ্ঠবারের মতো উগান্ডার প্রেসিডেন্ট হলেন ইওয়েরি মুসেভেনি

ফিলিস্তিনে প্রেসিডেন্ট ও পার্লামেন্ট নির্বাচনের তারিখ ঘোষণা

ফিলিস্তিনে প্রেসিডেন্ট ও পার্লামেন্ট নির্বাচনের তারিখ ঘোষণা

আফগানিস্তানে বন্দুকধারীর হামলায় দুই নারী বিচারপতি নিহত

আফগানিস্তানে বন্দুকধারীর হামলায় দুই নারী বিচারপতি নিহত

ফাইজার ভ্যাকসিনে প্রাণহানি, নরওয়ের জরুরি পরামর্শ চেয়েছে অস্ট্রেলিয়া

ফাইজার ভ্যাকসিনে প্রাণহানি, নরওয়ের জরুরি পরামর্শ চেয়েছে অস্ট্রেলিয়া


[email protected]
© 2021 Bangla Tribune
Bangla Tribune is one of the most revered online newspapers in Bangladesh, due to its reputation of neutral coverage and incisive analysis.