সেকশনস

জেরুজালেম ইসরায়েলের রাজধানী নয়: ইতালির আদালত

আপডেট : ১০ আগস্ট ২০২০, ১২:০৭

বলপূর্বক দখলকৃত ফিলিস্তিনের জেরুজালেম নগরীকে ইসরায়েল নিজের রাজধানী দাবি করলেও আন্তর্জাতিক আইনে তা বৈধ নয়। ফলে জেরুজালেম ইসরায়েলের রাজধানী নয়। এমন মত দিয়েছেন ইতালির একটি আদালত। দেশটির রাষ্ট্রীয় টেলিভিশনের এক অনুষ্ঠানকে কেন্দ্র করে এ রায় দেন রোম কোর্ট হিসেবে পরিচিত ট্রাইব্যুনাল ডি রোমা। রবিবার এক প্রতিবেদনে এ খবর জানিয়েছে মিডল ইস্ট মনিটর।
প্রতিবেদনে বলা হয়, ফ্লাভিও ইনসিন্না নামের ইতালির জনপ্রিয় একজন টেলিভিশন উপস্থাপকের অনুষ্ঠানে জেরুজালেমকে ইসরায়েলের রাজধানী হিসেবে উল্লেখ করা হয়েছিল। বিষয়টি নিয়ে দেশটির দুইটি সংগঠন আদালতের শরণাপন্ন হয়। তাদের আবেদনের ভিত্তিতেই এ বিষয়ে অভিমত জানান বিচারক।

রায়ে আদালত বলেছেন, ওই অনুষ্ঠানের পরবর্তী পর্বে এটা উল্লেখ করতে হবে যে, ‘আন্তর্জাতিক আইনে জেরুজালেমকে ইসরায়েলের রাজধানী হিসেবে স্বীকৃতি দেওয়া হয়নি।’

মিডল ইস্ট মনিটর মনিটর জানিয়েছে, টেলিভিশনের ওই অনুষ্ঠানটি ছিল গত ২১ মে তারিখের। সেখানে একজন প্রতিযোগীর কাছে ইসরায়েলের রাজধানীর নাম জানতে চাওয়া হয়। উত্তরে তিনি ‘তেল আবিব’ বললে তার উত্তরকে ভুল হিসেবে বিবেচনা করা হয়। বলা হয়, সঠিক উত্তর হবে ‘জেরুজালেম’।

ইতালির পররাষ্ট্র নীতি আন্তর্জাতিক আইনের সঙ্গে সামঞ্জস্যপূর্ণ হওয়ায় বিষয়টি নিয়েছে দেশটিতে বিতর্কের সূত্রপাত হয়। ওই বিতর্ক শেষ পর্যন্ত আদালতে গড়ায়।

১৯৬৭ সালে আরব-ইসরায়েল যুদ্ধে ফিলিস্তিনের পূর্ব জেরুজালেম দখল করে নেয় ইসরায়েল। এ শহরেই মুসলমানদের প্রথম কিবলা আল আকসা মসজিদ অবস্থিত। মক্কা ও মদিনার পর এটি মুসলমানদের তৃতীয় পবিত্র স্থান। ১৯৮০ সালে পুরো জেরুজালেম দখল করে নেয় ইসরায়েল। শহরটিকে তারা ইহুদিবাদী রাষ্ট্রের ‘শাশ্বত এবং অবিভক্ত রাজধানী’ দাবি করতে থাকে। তবে এই দখলদারিত্বকে আন্তর্জাতিক সম্প্রদায় স্বীকৃতি দেয়নি। আন্তর্জাতিক আইনে ইসরায়েলের দখলকৃত পশ্চিম তীর এবং পূর্ব জেরুজালেমে বলপূর্বক ইহুদি বসতি স্থাপনকে অবৈধ হিসেবে বিবেচনা করা হয়।

২০২০ সালের ২৮ জানুয়ারি ‘ডিল অব দ্য সেঞ্চুরি’ বা শতাব্দীর সেরা চুক্তি নামের মধ্যপ্রাচ্য শান্তি পরিকল্পনা প্রকাশ করেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। এতে ফিলিস্তিনের ঐতিহাসিক জেরুজালেম শহরকে ইসরায়েলি ভূখণ্ড হিসেবে দেখানো হয়েছে। আবু দিস নামের একটি ছোট গ্রামকে ভবিষ্যৎ ফিলিস্তিন রাষ্ট্রের রাজধানী হিসেবে প্রস্তাব করা হয়েছে। ওই পরিকল্পনায় জর্ডান নদীর পশ্চিম তীরের অংশবিশেষ ও গাজা উপত্যকা নিয়ে নামমাত্র একটি ফিলিস্তিন রাষ্ট্র গঠনের কথা বলা হয়েছে, যে রাষ্ট্রের নিজস্ব কোনও সেনাবাহিনী থাকবে না। তবে ট্রাম্পের কট্টর ইসরায়েল ঘেঁষা ওই প্রস্তাব প্রত্যাখ্যান করেছে আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়।

/এমপি/

সম্পর্কিত

ইসরায়েলের সঙ্গে যৌথ সামরিক মহড়ায় অংশ নেবে আমিরাত

ইসরায়েলের সঙ্গে যৌথ সামরিক মহড়ায় অংশ নেবে আমিরাত

করোনা শনাক্তের সংখ্যা সাড়ে ৯ কোটি ছাড়িয়েছে

করোনা শনাক্তের সংখ্যা সাড়ে ৯ কোটি ছাড়িয়েছে

টানা ষষ্ঠবারের মতো উগান্ডার প্রেসিডেন্ট হলেন ইওয়েরি মুসেভেনি

টানা ষষ্ঠবারের মতো উগান্ডার প্রেসিডেন্ট হলেন ইওয়েরি মুসেভেনি

ফিলিস্তিনে প্রেসিডেন্ট ও পার্লামেন্ট নির্বাচনের তারিখ ঘোষণা

ফিলিস্তিনে প্রেসিডেন্ট ও পার্লামেন্ট নির্বাচনের তারিখ ঘোষণা

আফগানিস্তানে বন্দুকধারীর হামলায় দুই নারী বিচারপতি নিহত

আফগানিস্তানে বন্দুকধারীর হামলায় দুই নারী বিচারপতি নিহত

ফাইজার ভ্যাকসিনে প্রাণহানি, নরওয়ের জরুরি পরামর্শ চেয়েছে অস্ট্রেলিয়া

ফাইজার ভ্যাকসিনে প্রাণহানি, নরওয়ের জরুরি পরামর্শ চেয়েছে অস্ট্রেলিয়া

সর্বশেষ

নীলফামারীজুড়ে মৃদু শৈত্যপ্রবাহ, হাসপাতালে বাড়ছে রোগী

নীলফামারীজুড়ে মৃদু শৈত্যপ্রবাহ, হাসপাতালে বাড়ছে রোগী

বাউফলে পানিতে ডুবে শিশুর মৃত্যু

বাউফলে পানিতে ডুবে শিশুর মৃত্যু

আগুন তাপাতে গিয়ে অন্তঃসত্ত্বা নারী দগ্ধ

আগুন তাপাতে গিয়ে অন্তঃসত্ত্বা নারী দগ্ধ

উপজেলা পরিষদকে কার্যকর করার দাবিতে সংবাদ সম্মেলন

উপজেলা পরিষদকে কার্যকর করার দাবিতে সংবাদ সম্মেলন

বৃহত্তর চান্দগাঁও-মোহরাকে আধুনিক উপশহর করার প্রতিশ্রুতি ডা. শাহাদাতের

বৃহত্তর চান্দগাঁও-মোহরাকে আধুনিক উপশহর করার প্রতিশ্রুতি ডা. শাহাদাতের

হকারদের সুস্পষ্ট নীতিমালা করে পুনর্বাসন করা হবে: রেজাউল করিম চৌধুরী

হকারদের সুস্পষ্ট নীতিমালা করে পুনর্বাসন করা হবে: রেজাউল করিম চৌধুরী

কাউকেই নির্বাচনি সহিংসতা ঘটাতে দেওয়া হবে না: সিএমপি কমিশনার

কাউকেই নির্বাচনি সহিংসতা ঘটাতে দেওয়া হবে না: সিএমপি কমিশনার

নীলফামারীতে পৃথকভাবে ৩৫০ জনের মাঝে শীতবস্ত্র বিতরণ

নীলফামারীতে পৃথকভাবে ৩৫০ জনের মাঝে শীতবস্ত্র বিতরণ

জোহরা আলাউদ্দিন এমপি করোনায় আক্রান্ত

জোহরা আলাউদ্দিন এমপি করোনায় আক্রান্ত

ইয়াবা ও ফেনসিডিল উদ্ধার, কারবারি গ্রেফতার

ইয়াবা ও ফেনসিডিল উদ্ধার, কারবারি গ্রেফতার

কলাবাগানে কিশোরীকে ধর্ষণ ও হত্যার প্রতিবাদে সহপাঠীদের দেয়াল লিখন

কলাবাগানে কিশোরীকে ধর্ষণ ও হত্যার প্রতিবাদে সহপাঠীদের দেয়াল লিখন

বাস-ট্রাক মুখোমুখি, চালক নিহত

বাস-ট্রাক মুখোমুখি, চালক নিহত

সর্বশেষসর্বাধিক

লাইভ

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

ইসরায়েলের সঙ্গে যৌথ সামরিক মহড়ায় অংশ নেবে আমিরাত

ইসরায়েলের সঙ্গে যৌথ সামরিক মহড়ায় অংশ নেবে আমিরাত

করোনা শনাক্তের সংখ্যা সাড়ে ৯ কোটি ছাড়িয়েছে

করোনা শনাক্তের সংখ্যা সাড়ে ৯ কোটি ছাড়িয়েছে

টানা ষষ্ঠবারের মতো উগান্ডার প্রেসিডেন্ট হলেন ইওয়েরি মুসেভেনি

টানা ষষ্ঠবারের মতো উগান্ডার প্রেসিডেন্ট হলেন ইওয়েরি মুসেভেনি

ফিলিস্তিনে প্রেসিডেন্ট ও পার্লামেন্ট নির্বাচনের তারিখ ঘোষণা

ফিলিস্তিনে প্রেসিডেন্ট ও পার্লামেন্ট নির্বাচনের তারিখ ঘোষণা

আফগানিস্তানে বন্দুকধারীর হামলায় দুই নারী বিচারপতি নিহত

আফগানিস্তানে বন্দুকধারীর হামলায় দুই নারী বিচারপতি নিহত


[email protected]
© 2021 Bangla Tribune
Bangla Tribune is one of the most revered online newspapers in Bangladesh, due to its reputation of neutral coverage and incisive analysis.