সেকশনস

অঙ্গ চুরির দায়ে চিকিৎসকের কারাদণ্ড

আপডেট : ২৭ নভেম্বর ২০২০, ১৯:৩১
image

দুর্ঘটনায় নিহতদের শরীর থেকে অবৈধভাবে অঙ্গ সংগ্রহের দায়ে চীনে চিকিৎসকসহ ছয় ব্যক্তিকে কারাদণ্ড দেওয়া হয়েছে। দণ্ডিতদের কৌশলে পরাজিত হয়ে নিহতদের পরিবারগুলো মনে করতে থাকে যে, তারা বৈধভাবে অঙ্গ দান করছে। এভাবে ২০১৭ ও ২০১৮ সালের মধ্যে আনহুই প্রদেশের একটি হাসপাতাল থেকে ১১ জনের শরীর থেকে কিডনি ও লিভার সংগ্রহ করে দণ্ডিত ব্যক্তিরা। ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যম বিবিসি’র প্রতিবেদন থেকে এসব তথ্য জানা গেছে।

চিকিৎসা বিজ্ঞানের অভূতপূর্ব উন্নতির ফলে মানুষের অঙ্গ প্রতিস্থাপন সহজতর হয়েছে। ফলে প্রতিস্থাপনে আগ্রহী মানুষের সংখ্যাও বেড়েছে। আর এর প্রভাবে প্রতিস্থাপনযোগ্য অঙ্গ সংগ্রহের মারাত্মক সংকট পড়েছে চীনে। বৈধভাবে অঙ্গ দানের মাধ্যমে সেই সংকট মোকাবিলা করছে দেশটি। এর মধ্যেই আনহুই প্রদেশের ওই হাসপাতালে অবৈধভাবে অঙ্গ সংগ্রহকারী চক্রটির কার্যক্রম শনাক্ত করে দেশটির কর্তৃপক্ষ।

স্থানীয় সংবাদমাধ্যমের খবরে বলা হয়েছে, অঙ্গ চুরির চক্রের দণ্ডিতদের মধ্যে রয়েছে হাসপাতালের অঙ্গ সংগ্রহকারী বিভাগে কর্মরত চার জন ঊর্ধ্বতন চিকিৎসক। খবরে বলা হয়েছে, এসব ব্যক্তিদের লক্ষ্যবস্তু ছিলো হুয়াইউনুয়ান কাউন্টি পিপল’র হাসপাতালে আসা গাড়ি দুর্ঘটনার শিকার কিংবা মস্তিষ্কে অনিয়ন্ত্রিত রক্তক্ষরণের রোগীরা।

হাসপাতালটির নিবিড় পরিচর্যা কেন্দ্রের প্রধান ইয়াং সুক্সুয়ান রোগীদের পরিবারের সদস্যদের সঙ্গে কথা বলতো। তাদের কাছে জানতে চাওয়া হতো প্রিয়জনদের অঙ্গ দানের ক্ষেত্রে তাদের সম্মতি আছে কিনা। পরিবারের সদস্যরা তখন সম্মতি পত্র স্বাক্ষর করতে পারতো। পরে জানা যায়, সেগুলো আসলেই ভুয়া সম্মতি পত্র।

পরে সেই মৃতদেহ কিংবা রোগীকে মধ্যরাতে হাসপাতালটি থেকে বের করে নিয়ে অ্যাম্বুলেন্সের মতো দেখতে একটি গাড়িতে করে নিয়ে যাওয়া হতো। সেখানেই তাদের শরীর থেকে এসব অঙ্গ সংগ্রহ করা হতো। পরে সেসব অঙ্গ প্রতিস্থাপনে আগ্রহী বিভিন্ন ব্যক্তি কিংবা অন্য হাসপাতালের কাছে বিক্রি করতো। আগ্রহী এসব ব্যক্তি ও হাসপাতালগুলো গোপনে চক্রটির সদস্যদের সঙ্গে যোগাযোগ করতো।

ঘটনার শিকার এক ব্যক্তির ছেলে সন্দেহপ্রবণ হয়ে পড়ার জেরে এই চক্রটির খোঁজ পাওয়া যায়। ২০১৮ সালে মায়ের মৃত্যুর কয়েক মাস পর সি জিয়ানলিন পরিবারের কাছে থাকা অঙ্গদান সংক্রান্ত নথিপত্রগুলো আবার খতিয়ে দেখতে যান। ফর্মটির বেশ কিছু গুরুত্বপূর্ণ অংশ শুন্য থাকার পাশাপাশি বেশ কিছু অসামঞ্জস্যতা দেখতে পান তিনি। পরে তিনি আবিষ্কার করেন, প্রাদেশিক কর্তৃপক্ষ কিংবা বেইজিংয়ে চীনের অঙ্গ দান প্রশাসন সেন্টার কোথাও তার মায়ের অঙ্গদানের রেকর্ড নেই।

স্থানীয় একটি সংবাদমাধ্যমকে সি জিয়ানলিন জানান, এসব অসামঞ্জস্যের বিষয়ে তিনি যখন হাসপাতালটির নিবিড় পরিচর্যা কেন্দ্রের প্রধান ইয়াং সুক্সুয়ানের কাছে জানতে চান, তখনই তাকে মুখ বন্ধ রাখতে বিপুল টাকার প্রস্তাব দেওয়া হয়। জিয়ানলিন বলেন, ‘তখনই আমি নিশ্চিত হলাম খুব অদ্ভূত কিছু ঘটে চলেছে।’ সঙ্গে সঙ্গে তিনি এই বিষয়ে কর্তৃপক্ষকে সতর্ক করেন।

অঙ্গ চুরির চক্রটির ছয় সদস্যকে ইচ্ছাকৃতভাবে মৃতদেহ ধ্বংসের দায়ে গত জুলাইতে কারাদণ্ড দেওয়া হয়। তবে মামলাটি এখন নতুন করে সামনে আসার কারণ সি জিয়ানলিন এখনই বিষয়টি নিয়ে স্থানীয় সংবাদমাধ্যমে কথা বলেছেন।

চীনা কর্তৃপক্ষ বহুদিন ধরে নিহত কারাবন্দিদের শরীর থেকে অঙ্গ সংগ্রহ করে অন্যদের শরীরে প্রতিস্থাপন করেছে। তবে চীনের এই চর্চাটি বিশ্ব জুড়ে তুমুল সমালোচিত। ২০১৫ সালে আনুষ্ঠানিকভাবে সেই চর্চা বন্ধ করে দেওয়া হয়। ওই সময় বেইজিং কর্তৃপক্ষ সতর্ক করে দিয়ে জানায়, যথাযথ প্রক্রিয়া অনুসরণ করে অঙ্গ প্রতিস্থাপন নিশ্চিত করা কঠিন হয়ে উঠবে।

বর্তমানে দেশটি চাহিদা মেটাতে ন্যাশনাল অর্গান ব্যাংকে দানকৃত অঙ্গের ওপর নির্ভরশীল। বিগত কয়েক বছরে চীনে অঙ্গ দানের হার বেড়েছে। তবে এখনও বিশ্বের বহু দেশ থেকেই এই হার অনেক কম। স্পেনে যেখানে প্রতি দশলাখে ৪৯ জন অঙ্গদান করে সেখানে চীনে এই হার ৪ দশমিক ৪।

/জেজে/

সম্পর্কিত

করোনার নতুন ওষুধ আনতে অক্সফোর্ডের গবেষণা

করোনার নতুন ওষুধ আনতে অক্সফোর্ডের গবেষণা

যুক্তরা‌জ্যে ক‌রোনায় দম্পতিসহ ৪ বাংলা‌দেশির মৃত্যু

যুক্তরা‌জ্যে ক‌রোনায় দম্পতিসহ ৪ বাংলা‌দেশির মৃত্যু

যুক্তরাজ্যে শিশু কল্যাণ হটলাইনে কল বেড়েছে ৫০ শতাংশ

যুক্তরাজ্যে শিশু কল্যাণ হটলাইনে কল বেড়েছে ৫০ শতাংশ

‘পরশুরাম’ ডাকোটার ‘রুদ্র ফর্মেশনে’ মুক্তিযুদ্ধকে সম্মান জানাবে ভারত 

‘পরশুরাম’ ডাকোটার ‘রুদ্র ফর্মেশনে’ মুক্তিযুদ্ধকে সম্মান জানাবে ভারত 

সেনা প্রত্যাহারে গতি আনায় ভারত ও চীনের সম্মতি

সেনা প্রত্যাহারে গতি আনায় ভারত ও চীনের সম্মতি

অলিম্পিকের আগে হার্ড ইমিউনিটি অর্জন করতে পারবে না জাপান: গবেষক

অলিম্পিকের আগে হার্ড ইমিউনিটি অর্জন করতে পারবে না জাপান: গবেষক

পাকিস্তানে সেনা অভিযানে দুই শীর্ষ তালেবান কমান্ডার নিহত

পাকিস্তানে সেনা অভিযানে দুই শীর্ষ তালেবান কমান্ডার নিহত

চরম আবহাওয়াজনিত দুর্যোগের বলি পাঁচ লাখ মানুষ

চরম আবহাওয়াজনিত দুর্যোগের বলি পাঁচ লাখ মানুষ

ভারতের রাষ্ট্রপতির উন্মোচন করা ছবি নিয়ে বিতর্ক

ভারতের রাষ্ট্রপতির উন্মোচন করা ছবি নিয়ে বিতর্ক

সম্পর্কের উন্নতি চায় সৌদি আরব-তুরস্ক

সম্পর্কের উন্নতি চায় সৌদি আরব-তুরস্ক

নিউ জিল্যান্ডে শনাক্ত হওয়া ব্যক্তি দক্ষিণ আফ্রিকার স্ট্রেইনে আক্রান্ত

নিউ জিল্যান্ডে শনাক্ত হওয়া ব্যক্তি দক্ষিণ আফ্রিকার স্ট্রেইনে আক্রান্ত

সর্বশেষ

মাঠ থেকে কৃষকের লাশ উদ্ধার

মাঠ থেকে কৃষকের লাশ উদ্ধার

রামেক হাসপাতালে চিকিৎসকের বিরুদ্ধে নার্সকে যৌন হয়রানির অভিযোগ

রামেক হাসপাতালে চিকিৎসকের বিরুদ্ধে নার্সকে যৌন হয়রানির অভিযোগ

রাজশাহী জেলা পরিষদ চেয়ারম্যানকে আ.লীগ থেকে বহিষ্কার

রাজশাহী জেলা পরিষদ চেয়ারম্যানকে আ.লীগ থেকে বহিষ্কার

পঁচাত্তরে পা রাখলেন মির্জা ফখরুল

পঁচাত্তরে পা রাখলেন মির্জা ফখরুল

দুই কাউন্সিলর প্রার্থীকে জরিমানা

দুই কাউন্সিলর প্রার্থীকে জরিমানা

আশুগঞ্জ উপজেলা চেয়ারম্যানের ভাই নিহত: ইউপি চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে মামলা

আশুগঞ্জ উপজেলা চেয়ারম্যানের ভাই নিহত: ইউপি চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে মামলা

বরগুনার প্রতি প্রধানমন্ত্রীর আলাদা নজর আছে: নানক

বরগুনার প্রতি প্রধানমন্ত্রীর আলাদা নজর আছে: নানক

২৬ জানুয়ারি মধ্যরাত থেকে চট্টগ্রাম মহানগরীতে যান চলাচলে নিষেধাজ্ঞা

২৬ জানুয়ারি মধ্যরাত থেকে চট্টগ্রাম মহানগরীতে যান চলাচলে নিষেধাজ্ঞা

দেশের প্রথম ডিজিটাল ভূমি তথ্য ব্যাংকের উদ্বোধন আজ

দেশের প্রথম ডিজিটাল ভূমি তথ্য ব্যাংকের উদ্বোধন আজ

‘বিএনপি নির্বাচনকে প্রশ্নবিদ্ধ করার জন্য নানা চক্রান্ত করছে’

‘বিএনপি নির্বাচনকে প্রশ্নবিদ্ধ করার জন্য নানা চক্রান্ত করছে’

ভারতের পদ্মশ্রী খেতাব প্রসঙ্গে যা বললেন সন্‌জীদা খাতুন

ভারতের পদ্মশ্রী খেতাব প্রসঙ্গে যা বললেন সন্‌জীদা খাতুন

মোংলায় পারমাণবিক বিদ্যুৎকেন্দ্রের মালবাহী জাহাজ দুর্ঘটনার শিকার

মোংলায় পারমাণবিক বিদ্যুৎকেন্দ্রের মালবাহী জাহাজ দুর্ঘটনার শিকার

সর্বশেষসর্বাধিক

লাইভ

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

করোনার নতুন ওষুধ আনতে অক্সফোর্ডের গবেষণা

করোনার নতুন ওষুধ আনতে অক্সফোর্ডের গবেষণা

যুক্তরা‌জ্যে ক‌রোনায় দম্পতিসহ ৪ বাংলা‌দেশির মৃত্যু

যুক্তরা‌জ্যে ক‌রোনায় দম্পতিসহ ৪ বাংলা‌দেশির মৃত্যু

যুক্তরাজ্যে শিশু কল্যাণ হটলাইনে কল বেড়েছে ৫০ শতাংশ

যুক্তরাজ্যে শিশু কল্যাণ হটলাইনে কল বেড়েছে ৫০ শতাংশ

সেনা প্রত্যাহারে গতি আনায় ভারত ও চীনের সম্মতি

সেনা প্রত্যাহারে গতি আনায় ভারত ও চীনের সম্মতি

অলিম্পিকের আগে হার্ড ইমিউনিটি অর্জন করতে পারবে না জাপান: গবেষক

অলিম্পিকের আগে হার্ড ইমিউনিটি অর্জন করতে পারবে না জাপান: গবেষক

পাকিস্তানে সেনা অভিযানে দুই শীর্ষ তালেবান কমান্ডার নিহত

পাকিস্তানে সেনা অভিযানে দুই শীর্ষ তালেবান কমান্ডার নিহত

চরম আবহাওয়াজনিত দুর্যোগের বলি পাঁচ লাখ মানুষ

চরম আবহাওয়াজনিত দুর্যোগের বলি পাঁচ লাখ মানুষ

ভারতের রাষ্ট্রপতির উন্মোচন করা ছবি নিয়ে বিতর্ক

ভারতের রাষ্ট্রপতির উন্মোচন করা ছবি নিয়ে বিতর্ক

সম্পর্কের উন্নতি চায় সৌদি আরব-তুরস্ক

সম্পর্কের উন্নতি চায় সৌদি আরব-তুরস্ক


[email protected]
© 2021 Bangla Tribune
Bangla Tribune is one of the most revered online newspapers in Bangladesh, due to its reputation of neutral coverage and incisive analysis.