সেকশনস

করোনায় এইচআইভি টেস্টে ঘাটতি পড়েছে

আপডেট : ২৮ নভেম্বর ২০২০, ১৮:২১

এইডস চলতি বছরে করোনা মহামারির কারণে এইচআইভি এইডস টেস্টে কিছুটা ঘাটতি পড়েছে বলে জানিয়েছেন স্বাস্থ্য অধিদফতরের এইডস/এসটিডি কর্মসূচির সিনিয়র প্রোগ্রাম ম্যানেজার মো. আক্তারুজ্জামান। তিনি বলেন, প্রতিবছর এইচআইভি টেস্টিং টার্গেট থাকে আমাদের। সেক্ষেত্রে চলতি বছরে কিছু ঘাটতি হয়েছে। যে পরিমাণ টার্গেট আমরা করেছিলাম, সে পরিমাণ টেস্ট আমরা করতে পারিনি, কোভিড পরিস্থিতির কারণে।
শনিবার ( ২৮ নভেম্বর) এইচআইভি এইডসে আক্রান্ত রোগীদের প্রতি কুসংস্কার, বৈষম্য নিরসনে গণমাধ্যমের ভূমিকা শীর্ষক অনুষ্ঠানে তিনি এ তথ্য জানান। আক্তারুজ্জামান বলেন, হাসপাতালগুলাতেও মোট রোগীর সংখ্যাও কমে এসেছিল। আর হাসপাতালে রোগী থেকেই এইচআইভি টেস্টিং সেন্টারে রেফার করা হয়ে থাকে টেস্ট করার জন্য।
তিনি আরও বলেন, টেস্টিং এর জন্য বড় একটি জায়গা হচ্ছে গামকা (গালফ কো–অপারেশন কাউন্সিল অ্যাপ্রুভড মেডিক্যাল সেন্টারস অ্যাসোসিয়েশন। গামকার আওতায় থাকা দেশগুলোতে যেতে হলে এইচআইভি টেস্ট করা বাধ্যতামূলক। বছরে এখানে প্রায় সাত লাখ পরীক্ষা করে থাকে। কিন্তু চলতি বছরে মার্চের পর থেকে এই পরীক্ষা বন্ধ ছিল। আর সাধারণত যাদের এই পরীক্ষা করানো হয় তারা লকডাউনের কারণে ছড়িয়ে ছিটিয়ে ছিল, হারিয়ে গেছে।
মহাখালীর স্বাস্থ্য অধিদফতরে আয়োজিত এ অনুষ্ঠানে তিনি বলেন, বাংলাদেশের পাশের দেশ ভারতের মিজোরাম, মনিপুর, মেঘালয়, পশ্চিমবঙ্গ, ত্রিপুরা, মিয়ানমারের সঙ্গে আমাদের অবাধ যাতায়াত রয়েছে এবং সেখানে এইচআইভি পজিটিভ রোগীও আছে। পার্শ্ববর্তী দেশগুলোতে রোগী থাকার কারণে আমরা এখনও নিরাপদ নই।
দেশে প্রথম ১৯৮৯ সালে প্রথম এইচআইভি এইডস শনাক্ত হয়। ২০১৯ সালে এ রোগে শনাক্ত হন ৯১৯ জন, আর মারা যান ১৭০ জন। অপরদিকে, ১৯৮৯ সাল থেকে ২০১৯ পর্যন্ত দেশে এইচআইভি এইডসে আক্রান্ত সাত হাজার ৩৭৪ জন শনাক্ত হন, যার মধ্যে ১ হাজার ২৪২ জন মারা গেছেন।
অনুষ্ঠানে জানানো হয়, মোট শনাক্ত হওয়া সাত হাজার ৩৭৪ জনের মধ্যে সবচেয়ে বেশি রোগী আছেন রাজধানী ঢাকায়, প্রায় দুই হাজার ৫০০ জনের মতো।
আবার গত বছরে যে ৯১৯ জন শনাক্ত হন তাদের মধ্যে রোহিঙ্গা ১০৫ জন। তার আগের বছরে ছিল ৮৬৫ জন। এই হিসাবে যে জেলা থেকে বেশি শনাক্ত হচ্ছেন, সেসব জেলাকে এইচআইভি কর্মসূচির আওতায় অগ্রাধিকার দেওয়া হচ্ছে বলে জানান ডা. আক্তারুজ্জামান।
বাংলাদেশর ২৩টি জেলাতে এইচআইভি এইডসে আক্রান্ত রোগী বেশি জানিয়ে তিনি বলন, এই ২৩ জেলার ২৮ কেন্দ্রে এইচআইভি এইডসের সেবা কার্যক্রমও বেশি, বিনামূল্যে পরীক্ষার ব্যবস্থা এবং বিনামূল্যে যারা ইতোমধ্যে আক্রান্ত হয়েছেন তাদের চিকিৎসা সেবাও চলছে এসব জেলাতে ১১টি সরকারি মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতাল ও জেলা হাসপাতালগুলোতে।
গত এক বছরে নারী যৌনকর্মী, পুরুষ যৌনকর্মী, শিরায় মাদক গ্রহণকারী এবং হিজড়া জনগোষ্ঠীর ভেতরে পরীক্ষা করে শতকরা এক শতাংশ পজিটিভ পাওয়া গেছে, যা কিনা বিগত কয়েক বছর আগেও অনেক বেশি ছিল। আবার এর মধ্যে শিরায় মাদক গ্রহণকারীদের মধ্যে পজিটিভিটির হার বেশি, শতকরা ২৪ শতাংশ, আর প্রবাসী ও অভিবাসীদের মধ্যে রয়েছেন ২০ শতাংশ। তবে সাধারণ মানুষের মধ্যে সংক্রমণের হার শূন্য দশমিক শূন্য একেরও নিচে।

/জেএ/এমআর/

সম্পর্কিত

বাহরাইন প্রবাসী বাংলাদেশিদের ফেরত পাঠানোর চেষ্টা করছে সরকার

বাহরাইন প্রবাসী বাংলাদেশিদের ফেরত পাঠানোর চেষ্টা করছে সরকার

ফরিদপুরের সেই দুই ভাইকে হাইকোর্টের জামিন

ফরিদপুরের সেই দুই ভাইকে হাইকোর্টের জামিন

পাতা কুড়াতে গিয়ে লাশ হয়ে ফিরলো শিশু

পাতা কুড়াতে গিয়ে লাশ হয়ে ফিরলো শিশু

‘ই-নামজারি ও মিসকেস মামলার শুনানি হবে ভিডিও কনফারেন্সে’

‘ই-নামজারি ও মিসকেস মামলার শুনানি হবে ভিডিও কনফারেন্সে’

এমপিওভুক্তির সুপারিশ পেয়েছেন ১২১০ জন, বিএড স্কেল ৯০৮ জন

এমপিওভুক্তির সুপারিশ পেয়েছেন ১২১০ জন, বিএড স্কেল ৯০৮ জন

প্রধানমন্ত্রীর দফতরের নাম ভাঙিয়ে চাঁদাবাজি, এশিয়ানের শিক্ষার্থী বহিষ্কার

প্রধানমন্ত্রীর দফতরের নাম ভাঙিয়ে চাঁদাবাজি, এশিয়ানের শিক্ষার্থী বহিষ্কার

শিশু ধর্ষণের দায়ে একজনের যাবজ্জীবন

শিশু ধর্ষণের দায়ে একজনের যাবজ্জীবন

বন্ধুদের নিয়ে সংঘবদ্ধ ধর্ষণের অভিযোগে স্বামীর বিরুদ্ধে মামলা

বন্ধুদের নিয়ে সংঘবদ্ধ ধর্ষণের অভিযোগে স্বামীর বিরুদ্ধে মামলা

বাসস্ট্যান্ডে ৫ বাসে আগুন

বাসস্ট্যান্ডে ৫ বাসে আগুন

কারামুক্তির ৩ দিন আগে কারাগারেই মৃত্যু

কারামুক্তির ৩ দিন আগে কারাগারেই মৃত্যু

সর্বশেষ

আমার এ জয় পা-ফাটা সাধারণ মানুষের বিজয়: মেয়র লিলি

আমার এ জয় পা-ফাটা সাধারণ মানুষের বিজয়: মেয়র লিলি

নীলফামারীজুড়ে মৃদু শৈত্যপ্রবাহ, হাসপাতালে বাড়ছে রোগী

নীলফামারীজুড়ে মৃদু শৈত্যপ্রবাহ, হাসপাতালে বাড়ছে রোগী

বাউফলে পানিতে ডুবে শিশুর মৃত্যু

বাউফলে পানিতে ডুবে শিশুর মৃত্যু

আগুন তাপাতে গিয়ে অন্তঃসত্ত্বা নারী দগ্ধ

আগুন তাপাতে গিয়ে অন্তঃসত্ত্বা নারী দগ্ধ

উপজেলা পরিষদকে কার্যকর করার দাবিতে সংবাদ সম্মেলন

উপজেলা পরিষদকে কার্যকর করার দাবিতে সংবাদ সম্মেলন

বৃহত্তর চান্দগাঁও-মোহরাকে আধুনিক উপশহর করার প্রতিশ্রুতি ডা. শাহাদাতের

বৃহত্তর চান্দগাঁও-মোহরাকে আধুনিক উপশহর করার প্রতিশ্রুতি ডা. শাহাদাতের

হকারদের সুস্পষ্ট নীতিমালা করে পুনর্বাসন করা হবে: রেজাউল করিম চৌধুরী

হকারদের সুস্পষ্ট নীতিমালা করে পুনর্বাসন করা হবে: রেজাউল করিম চৌধুরী

কাউকেই নির্বাচনি সহিংসতা ঘটাতে দেওয়া হবে না: সিএমপি কমিশনার

কাউকেই নির্বাচনি সহিংসতা ঘটাতে দেওয়া হবে না: সিএমপি কমিশনার

নীলফামারীতে পৃথকভাবে ৩৫০ জনের মাঝে শীতবস্ত্র বিতরণ

নীলফামারীতে পৃথকভাবে ৩৫০ জনের মাঝে শীতবস্ত্র বিতরণ

জোহরা আলাউদ্দিন এমপি করোনায় আক্রান্ত

জোহরা আলাউদ্দিন এমপি করোনায় আক্রান্ত

ইয়াবা ও ফেনসিডিল উদ্ধার, কারবারি গ্রেফতার

ইয়াবা ও ফেনসিডিল উদ্ধার, কারবারি গ্রেফতার

কলাবাগানে কিশোরীকে ধর্ষণ ও হত্যার প্রতিবাদে সহপাঠীদের দেয়াল লিখন

কলাবাগানে কিশোরীকে ধর্ষণ ও হত্যার প্রতিবাদে সহপাঠীদের দেয়াল লিখন

সর্বশেষসর্বাধিক

লাইভ

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

ফরিদপুরের সেই দুই ভাইকে হাইকোর্টের জামিন

ফরিদপুরের সেই দুই ভাইকে হাইকোর্টের জামিন

‘ই-নামজারি ও মিসকেস মামলার শুনানি হবে ভিডিও কনফারেন্সে’

‘ই-নামজারি ও মিসকেস মামলার শুনানি হবে ভিডিও কনফারেন্সে’

এমপিওভুক্তির সুপারিশ পেয়েছেন ১২১০ জন, বিএড স্কেল ৯০৮ জন

এমপিওভুক্তির সুপারিশ পেয়েছেন ১২১০ জন, বিএড স্কেল ৯০৮ জন

প্রধানমন্ত্রীর দফতরের নাম ভাঙিয়ে চাঁদাবাজি, এশিয়ানের শিক্ষার্থী বহিষ্কার

প্রধানমন্ত্রীর দফতরের নাম ভাঙিয়ে চাঁদাবাজি, এশিয়ানের শিক্ষার্থী বহিষ্কার

বন্ধুদের নিয়ে সংঘবদ্ধ ধর্ষণের অভিযোগে স্বামীর বিরুদ্ধে মামলা

বন্ধুদের নিয়ে সংঘবদ্ধ ধর্ষণের অভিযোগে স্বামীর বিরুদ্ধে মামলা

বাংলাদেশি শিক্ষার্থী ফ্রান্সে গিয়ে জড়ালো জঙ্গিবাদে!

বাংলাদেশি শিক্ষার্থী ফ্রান্সে গিয়ে জড়ালো জঙ্গিবাদে!

নাসিরনগরে ধর্ষণ ঘটনার প্রতিবেদনে গরমিল, ১৩ জনকে তলব

নাসিরনগরে ধর্ষণ ঘটনার প্রতিবেদনে গরমিল, ১৩ জনকে তলব

‘আন্তর্জাতিক বাজারে অদক্ষ কর্মীর চাহিদা কমে আসছে’

‘আন্তর্জাতিক বাজারে অদক্ষ কর্মীর চাহিদা কমে আসছে’


[email protected]
© 2021 Bangla Tribune
Bangla Tribune is one of the most revered online newspapers in Bangladesh, due to its reputation of neutral coverage and incisive analysis.