সেকশনস

সেই শিশুটি সুস্থ আছে, দত্তক নিতে চান অনেকে

আপডেট : ০১ ডিসেম্বর ২০২০, ০০:২৮

শিশুটি সুস্থ আছে

ব্রাহ্মণবাড়িয়া সদর উপজেলার বাসুদেব ইউনিয়নের দুবলা গ্রামে সড়কে পাশ থেকে রবিবার (৩০ ডিসেম্বর) সন্ধ্যায় উদ্ধার হওয়া ছয় মাস বয়সী ছেলে শিশুটি এখন ব্রাহ্মণবাড়িয়া সদর হাসপাতালের শিশু ওয়ার্ডে চিকিৎসাধীন রয়েছেন। শিশুটি সুস্থ আছেন বলে হাসপাতালে কর্তব্যরত চিকিৎসকেরা জানিয়েছেন। শিশুটির প্রকৃত কোনও অভিভাবক না পাওয়া গেলে আদালতের মাধ্যমে পরবর্তী সিদ্ধান্ত নেওয়ার কথা জানান সংশ্লিষ্টরা।

শিশুটিকে কুড়িয়ে পাওয়া জহিরুল ইসলাম ও পারভীন দম্পতি জানান, ব্রাহ্মণবাড়িয়া সদর উপজেলার বাসুদেব ইউনিয়নের ঢাকা-আগরতলা মহাসড়কের পাশে দুবলা গ্রামের একটি কলামোড়ার ঝোঁপে শিশুটির কান্না করছিল। কাপড় দিয়ে মোড়ানো অবস্থায় ছিল ছয় মাস বয়সী ছেলে শিশুটি। শীতে কাতর শিশুটিকে জহিরুল ইসলামের স্ত্রী পারভীন আক্তার উদ্ধার করেন। পরে স্থানীয় গণ্যমান্য ব্যক্তিদের অবহিত করার পাশপাশি তিনি পুলিশকে শিশুটি সম্পর্কে খবর দেন। পরে ব্রাহ্মণবাড়িয়া সদর থানা পুলিশ ঘটনাস্থলে এসে শিশুটিকে উদ্ধার করে চিকিৎসার জন্যে ব্রাহ্মণবাড়িয়া সদর হাসপাতালে নিয়ে আসেন। শিশুটি বর্তমানে ব্রাহ্মণবাড়িয়া সদর হাসপাতালের শিশু ওয়ার্ডে চিকিৎসাধীন। শিশুটির কোনও অভিভাবক না থাকায় জহিরুল ইসলাম দম্পতি এখন শিশুটিকে দেখাশোনা করছেন। শিশুটির প্রকৃত অভিভাবক না পাওয়া গেলে জহিরুল ইসলাম দম্পতি এই শিশুটির দায়িত্ব নিতে আগ্রহ প্রকাশ করছেন।

সাবলম্বী কৃষক পরিবারের সদস্য জহিরুল ও তার স্ত্রী পারভিন আক্তার বলেন, আমাদের পরিবারে দুই ছেলে দুই মেয়ে আছে। সরকারের পক্ষ থেকে শিশুটিকে আমাদের কাছে তুলে দিলে সন্তান হিসেবে মানুষের মতো মানুষ করতে চাই। এছাড়া উপযুক্ত প্রমাণসহ কোনও অভিভাবক যদি ২০ বছর পরে এসেও দাবি করেন তাদের সন্তান তাহলে আমি তাদের তাছে সরকারের সহযোগিতা নিয়ে তুলে দেবো।

ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেনারেল হাসপাতালের শিশু ওয়ার্ডের কর্তব্যরত জ্যেষ্ঠ সেবিকা তাসলিমা আক্তার জানান, শিশুটির শারীরিক অবস্থা এখন ভালো এবং সুস্থ আছে। গতকাল রাতে শিশুটিকে হাসপাতালে আনার পর নিবিড় পর্যবেক্ষণে রেখে চিকিৎসা দেওয়া হচ্ছিল। যতটুকু যত্ন নেওয়া দরকার আমরা সর্বোচ্চ চেষ্টা করছি।

ব্রাহ্মণবাড়িয়া সদর মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মো. আব্দুর রহিম জানান, শিশুটির এখনও কোনও অভিভাবক পাওয়া যায়নি। ফেসবুকসহ সামাজিক ভাবে প্রচার প্রচারণা করা হচ্ছে। শিশুর পরিবারের সন্ধানে পুলিশ চেষ্টা চালাচ্ছে। অভিভাবক না পেলে আদালতের মাধ্যমে শিশুটির পরবর্তী অবস্থান কোথায় হবে এ ব্যপারে সিদ্ধান্ত গ্রহণ করা হবে।

এদিকে হাসপাতাল এবং থানা সূত্রে জানা যায়, শিশুটিকে দত্তক নেওয়ার জন্যে ইতোমধ্যে অন্তত ১০টি নিঃসন্তান দম্পতি নানা ভাবে ব্রাহ্মণবাড়িয়া সদর হাসপাতাল এবং থানায় যোগাযোগ রাখছেন। 

/টিএন/

সম্পর্কিত

উখিয়ায় রোহিঙ্গা ক্যাম্পে দুই পক্ষের গোলাগুলি, নিহত ১

উখিয়ায় রোহিঙ্গা ক্যাম্পে দুই পক্ষের গোলাগুলি, নিহত ১

‘শান্তিচুক্তিবিরোধী কাউকে ছাড় দেওয়া হবে না’

‘শান্তিচুক্তিবিরোধী কাউকে ছাড় দেওয়া হবে না’

একপক্ষের ধর্মঘট, অপরপক্ষ চালাচ্ছে লঞ্চ

একপক্ষের ধর্মঘট, অপরপক্ষ চালাচ্ছে লঞ্চ

আশুগঞ্জ উপজেলা চেয়ারম্যানের ভাই নিহত: ইউপি চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে মামলা

আশুগঞ্জ উপজেলা চেয়ারম্যানের ভাই নিহত: ইউপি চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে মামলা

২৬ জানুয়ারি মধ্যরাত থেকে চট্টগ্রাম মহানগরীতে যান চলাচলে নিষেধাজ্ঞা

২৬ জানুয়ারি মধ্যরাত থেকে চট্টগ্রাম মহানগরীতে যান চলাচলে নিষেধাজ্ঞা

‘বিএনপি নির্বাচনকে প্রশ্নবিদ্ধ করার জন্য নানা চক্রান্ত করছে’

‘বিএনপি নির্বাচনকে প্রশ্নবিদ্ধ করার জন্য নানা চক্রান্ত করছে’

‘চুপ করে বসে থেকে সাধারণ সম্পাদকের দায়িত্ব পালন করতে পারবেন না’

‘চুপ করে বসে থেকে সাধারণ সম্পাদকের দায়িত্ব পালন করতে পারবেন না’

আ.লীগের দুপক্ষে উত্তেজনা: নোয়াখালীতে সভা-সমাবেশ নিষিদ্ধ

আ.লীগের দুপক্ষে উত্তেজনা: নোয়াখালীতে সভা-সমাবেশ নিষিদ্ধ

কাপ্তাইয়ে পৃথক ঘটনায় দুই যুবকের মৃত্যু

কাপ্তাইয়ে পৃথক ঘটনায় দুই যুবকের মৃত্যু

৬ লাখ টাকার জালনোটসহ গ্রেফতার ২

৬ লাখ টাকার জালনোটসহ গ্রেফতার ২

ইউনিয়ন যুবলীগের সভাপতিকে কুপিয়ে জখম

ইউনিয়ন যুবলীগের সভাপতিকে কুপিয়ে জখম

সর্বশেষ

বাড়তে চায় না চুল?

বাড়তে চায় না চুল?

বাংলাদেশের এক ফুটবলারের কানে ২২ সেলাই!

বাংলাদেশের এক ফুটবলারের কানে ২২ সেলাই!

’অর্থনৈতিক খাত অবাধ্য সন্তানের মতো’

জাপা এমপির অভিযোগ’অর্থনৈতিক খাত অবাধ্য সন্তানের মতো’

নব্য নাৎসিবাদের উত্থানের বিরুদ্ধে জোটবদ্ধ হওয়ার আহ্বান জাতিসংঘের

নব্য নাৎসিবাদের উত্থানের বিরুদ্ধে জোটবদ্ধ হওয়ার আহ্বান জাতিসংঘের

মানবিকতার সুযোগ নিয়ে অপরাধী কর্মকাণ্ড চালাতো শাকিল

মানবিকতার সুযোগ নিয়ে অপরাধী কর্মকাণ্ড চালাতো শাকিল

জার্মান মিডিয়ার সংবাদ প্রত্যাখ্যান অ্যাস্ট্রাজেনেকার

জার্মান মিডিয়ার সংবাদ প্রত্যাখ্যান অ্যাস্ট্রাজেনেকার

কীভাবে ফিরিয়ে আনা হবে পিকে হালদারকে?

কীভাবে ফিরিয়ে আনা হবে পিকে হালদারকে?

৩ লাখ মিটার কারেন্ট জালসহ ১০ মণ জাটকা জব্দ

৩ লাখ মিটার কারেন্ট জালসহ ১০ মণ জাটকা জব্দ

উখিয়ায় রোহিঙ্গা ক্যাম্পে দুই পক্ষের গোলাগুলি, নিহত ১

উখিয়ায় রোহিঙ্গা ক্যাম্পে দুই পক্ষের গোলাগুলি, নিহত ১

ভারত থেকে আসা টিকা প্রয়োগে অনুমতি মিলেছে

ভারত থেকে আসা টিকা প্রয়োগে অনুমতি মিলেছে

অক্সফোর্ডের টিকা বয়স্কদের কাজে আসে না: জার্মান মিডিয়া

অক্সফোর্ডের টিকা বয়স্কদের কাজে আসে না: জার্মান মিডিয়া

মেসির ওই সতীর্থ আবারও খেলতে চান বাংলাদেশে

মেসির ওই সতীর্থ আবারও খেলতে চান বাংলাদেশে

সর্বশেষসর্বাধিক

লাইভ

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

উখিয়ায় রোহিঙ্গা ক্যাম্পে দুই পক্ষের গোলাগুলি, নিহত ১

উখিয়ায় রোহিঙ্গা ক্যাম্পে দুই পক্ষের গোলাগুলি, নিহত ১

‘শান্তিচুক্তিবিরোধী কাউকে ছাড় দেওয়া হবে না’

‘শান্তিচুক্তিবিরোধী কাউকে ছাড় দেওয়া হবে না’

একপক্ষের ধর্মঘট, অপরপক্ষ চালাচ্ছে লঞ্চ

একপক্ষের ধর্মঘট, অপরপক্ষ চালাচ্ছে লঞ্চ

আশুগঞ্জ উপজেলা চেয়ারম্যানের ভাই নিহত: ইউপি চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে মামলা

আশুগঞ্জ উপজেলা চেয়ারম্যানের ভাই নিহত: ইউপি চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে মামলা

২৬ জানুয়ারি মধ্যরাত থেকে চট্টগ্রাম মহানগরীতে যান চলাচলে নিষেধাজ্ঞা

২৬ জানুয়ারি মধ্যরাত থেকে চট্টগ্রাম মহানগরীতে যান চলাচলে নিষেধাজ্ঞা

‘বিএনপি নির্বাচনকে প্রশ্নবিদ্ধ করার জন্য নানা চক্রান্ত করছে’

‘বিএনপি নির্বাচনকে প্রশ্নবিদ্ধ করার জন্য নানা চক্রান্ত করছে’

‘চুপ করে বসে থেকে সাধারণ সম্পাদকের দায়িত্ব পালন করতে পারবেন না’

‘চুপ করে বসে থেকে সাধারণ সম্পাদকের দায়িত্ব পালন করতে পারবেন না’

আ.লীগের দুপক্ষে উত্তেজনা: নোয়াখালীতে সভা-সমাবেশ নিষিদ্ধ

আ.লীগের দুপক্ষে উত্তেজনা: নোয়াখালীতে সভা-সমাবেশ নিষিদ্ধ

কাপ্তাইয়ে পৃথক ঘটনায় দুই যুবকের মৃত্যু

কাপ্তাইয়ে পৃথক ঘটনায় দুই যুবকের মৃত্যু


[email protected]
© 2021 Bangla Tribune
Bangla Tribune is one of the most revered online newspapers in Bangladesh, due to its reputation of neutral coverage and incisive analysis.