X

সেকশনস

‘যথা সময়ে যথা স্থানে বঙ্গবন্ধুর ভাস্কর্য হবেই হবে’

আপডেট : ০৩ ডিসেম্বর ২০২০, ১৩:০৪

বঙ্গবন্ধুর ভাস্কর্য বাস্তবায়ন পরিষদের সংবাদ সম্মেলন জাতির জনকের ভাস্কর্য স্থাপনের বিরোধিতার কারণ রাজনৈতিক। তাই এই মহান বিজয়ের মাস ডিসেম্বরেই নগরীর ধোলাইপাড়ের নির্দিষ্ট স্থানে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ভাস্কর্য স্থাপন করতে হবে। এই দাবি করেছে বঙ্গবন্ধুর ভাস্কর্য বাস্তবায়ন পরিষদ। একই সঙ্গে দেশের প্রতিটি জেলায় বঙ্গবন্ধুর ভাস্কর্য স্থাপনের দাবিও জানিয়েছে তারা।

সংগঠনটি বলেছে, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে বঙ্গবন্ধুর যে ভাস্কর্য স্থাপনের প্রকল্প গ্রহণ করা হয়েছে সেটা যথা সময়ে যথা স্থানে হবেই হবে। ধর্ম ব্যবসায়ীরা মুক্তিযুদ্ধ ও বাংলাদেশকে হেয়-প্রতিপন্ন করার জন্য এর বিরোধিতা করছে।

বৃহস্পতিবার (৩ ডিসেম্বর) নগরীর সেগুনবাগিচায় অবস্থিত ঢাকা রিপোর্টার্স ইউনিটির সাগর রুনি মিলনায়তনে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে এ দাবি জানানো হয়।

সংবাদ সম্মেলনে বঙ্গবন্ধুর ভাস্কর্য বাস্তবায়ন পরিষদের আহ্বায়ক ড. মো. আওলাদ হোসেন বলেন, ‘এই বিজয়ের মাসেই স্বাধীনতার মহানায়ক জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ভাস্কর্য যাতে যথা স্থানে স্থাপিত হয় সেই দাবি জানাচ্ছি। পাশাপাশি সোনার বাংলাদেশের প্রতিটি জেলায় বঙ্গবন্ধুর ভাস্কর্য স্থাপনেরও দাবি জানাচ্ছি। যে সমস্ত ষড়যন্ত্রকারী বঙ্গবন্ধুর ভাস্কর্য স্থাপনের বিরোধিতা করছে মূলত তারা মুক্তিযুদ্ধ ও স্বাধীনতার বিরোধিতা করছে। তাদের অবিলম্বে আইনের আওতায় এনে বিচার করতে হবে।’

তিনি আরও বলেন, ‘যারা ভাস্কর্য স্থাপনের বিরোধিতা করছে তারাই বিএনপি-জামায়াত জোটের সময় ২০ দলীয় জোটের অন্তর্ভুক্ত সংগঠনের নেতৃত্বে থেকে জিয়াউর রহমানের ভাস্কর্য উদ্বোধন করেছে। বাংলাদেশে জিয়াউর রহমানের অসংখ্য ভাস্কর্য আছে। এখন মানুষকে ধোঁকা দেওয়ার কোনও সুযোগ নেই।’

মো. আওলাদ হোসেন বলেন, ‘পৃথিবীর অসংখ্য দেশে তাদের জাতির পিতার ভাস্কর্য রয়েছে। তুরস্কে ইসলামি দল ক্ষমতায়। এরদোয়ান সাহেব নিজেই একজন কোরআনে হাফেজ। উনার নিজের ভাস্কর্যও রয়েছে। মালয়েশিয়া, পাকিস্তান ও আফগানিস্তানে অসংখ্যা ভাস্কর্য আছে। সেখানে তো কোনও কথা নেই। আসলে তারা বোঝে না ভাস্কর্য আর মূর্তি এক নয়। আমাদের জানতে হবে, যারা বিরোধিতা করছে তাদের পূর্বসূরিদের পরিচয় কী।’

সভায় ১৮৯ সদস্য বিশিষ্ট বঙ্গবন্ধুর ভাস্কর্য বাস্তবায়ন পরিষদের কমিটি ঘোষণা করা হয়।

অনুষ্ঠানে পরিষদের যুগ্ম আহ্বায়ক ও কদমতলী থানা আওয়ামী লীগের সভাপতি মোহাম্মদ নাছিম মিয়া, যাত্রা বাড়ি থানা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক হারুন আর রশিদ, শ্যামপুন থানা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক হাবিবুর রহমান বাবু প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

 

 

/এসএস/এফএস/

সম্পর্কিত

উপমহাদেশের স্বার্থে পাকিস্তানের স্বীকৃতি জরুরি

উপমহাদেশের স্বার্থে পাকিস্তানের স্বীকৃতি জরুরি

ঘর 'আপন' হওয়ার আগে আগলে রাখছেন তারা

ঘর 'আপন' হওয়ার আগে আগলে রাখছেন তারা

শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খুলে দিতে মানতে হবে যে সব বিষয়

শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খুলে দিতে মানতে হবে যে সব বিষয়

কারাগারে হলমার্কের জিএম এর নারীসঙ্গ: ৩ কর্মকর্তাকে প্রত্যাহার

কারাগারে হলমার্কের জিএম এর নারীসঙ্গ: ৩ কর্মকর্তাকে প্রত্যাহার

কারাগারে নারী দর্শনার্থীর সঙ্গে সময় কাটালেন হলমার্কের জিএম

কারাগারে নারী দর্শনার্থীর সঙ্গে সময় কাটালেন হলমার্কের জিএম

বিমানবন্দরে স্বামী-স্ত্রী নিহতের ঘটনায় বাসচালক কারাগারে

বিমানবন্দরে স্বামী-স্ত্রী নিহতের ঘটনায় বাসচালক কারাগারে

সেই কিশোরীকে হস্তান্তরে কোনও সিদ্ধান্ত হয়নি

সেই কিশোরীকে হস্তান্তরে কোনও সিদ্ধান্ত হয়নি

শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খুলে দিতে প্রস্তুতির নির্দেশনা জারি

শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খুলে দিতে প্রস্তুতির নির্দেশনা জারি

বিভিন্ন স্থানে সড়কে নিহত ১৪

বিভিন্ন স্থানে সড়কে নিহত ১৪

‘ডব্লিউটিও’র সহায়তায় আন্তর্জাতিক বাণিজ্যকে সুসংহত করতে হবে’

‘ডব্লিউটিও’র সহায়তায় আন্তর্জাতিক বাণিজ্যকে সুসংহত করতে হবে’

সিরিজ জয়ে ক্রিকেট দলকে প্রধানমন্ত্রীর শুভেচ্ছা

সিরিজ জয়ে ক্রিকেট দলকে প্রধানমন্ত্রীর শুভেচ্ছা

মোটরসাইকেলে অটোরিকশার ধাক্কা, পুলিশ কনস্টেবল নিহত

মোটরসাইকেলে অটোরিকশার ধাক্কা, পুলিশ কনস্টেবল নিহত

সর্বশেষ

উপমহাদেশের স্বার্থে পাকিস্তানের স্বীকৃতি জরুরি

উপমহাদেশের স্বার্থে পাকিস্তানের স্বীকৃতি জরুরি

নতুন ঘর পেয়ে খুশি সুকজান বেগম

নতুন ঘর পেয়ে খুশি সুকজান বেগম

‘জীবনেও ভাবি নাই পাক্কা ঘরে ঘুমামু’

‘জীবনেও ভাবি নাই পাক্কা ঘরে ঘুমামু’

ঘর 'আপন' হওয়ার আগে আগলে রাখছেন তারা

ঘর 'আপন' হওয়ার আগে আগলে রাখছেন তারা

খুবির অস্থিতিশীল পরিবেশ প্রসঙ্গে সাবেক ২৭৩ শিক্ষার্থীর উদ্বেগ

খুবির অস্থিতিশীল পরিবেশ প্রসঙ্গে সাবেক ২৭৩ শিক্ষার্থীর উদ্বেগ

বিদ্যুতের লাইন ছিঁড়ে ঘরে আগুন, প্রতিবন্ধী শিশুসহ নিহত ৪

বিদ্যুতের লাইন ছিঁড়ে ঘরে আগুন, প্রতিবন্ধী শিশুসহ নিহত ৪

‘এত কাজ কেউ করতে পারেনি, জিতলে আরও করবো’

‘এত কাজ কেউ করতে পারেনি, জিতলে আরও করবো’

শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খুলে দিতে মানতে হবে যে সব বিষয়

শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খুলে দিতে মানতে হবে যে সব বিষয়

কারাগারে হলমার্কের জিএম এর নারীসঙ্গ: ৩ কর্মকর্তাকে প্রত্যাহার

কারাগারে হলমার্কের জিএম এর নারীসঙ্গ: ৩ কর্মকর্তাকে প্রত্যাহার

কারাগারে নারী দর্শনার্থীর সঙ্গে সময় কাটালেন হলমার্কের জিএম

কারাগারে নারী দর্শনার্থীর সঙ্গে সময় কাটালেন হলমার্কের জিএম

বিমানবন্দরে স্বামী-স্ত্রী নিহতের ঘটনায় বাসচালক কারাগারে

বিমানবন্দরে স্বামী-স্ত্রী নিহতের ঘটনায় বাসচালক কারাগারে

কেক কাটা নয়, শুধু দোয়ার আয়োজন করেছি: সম্রাট

শুভ জন্মদিন নায়করাজ রাজ্জাককেক কাটা নয়, শুধু দোয়ার আয়োজন করেছি: সম্রাট

সর্বশেষসর্বাধিক

লাইভ

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

কারাগারে হলমার্কের জিএম এর নারীসঙ্গ: ৩ কর্মকর্তাকে প্রত্যাহার

কারাগারে হলমার্কের জিএম এর নারীসঙ্গ: ৩ কর্মকর্তাকে প্রত্যাহার

বিমানবন্দরে স্বামী-স্ত্রী নিহতের ঘটনায় বাসচালক কারাগারে

বিমানবন্দরে স্বামী-স্ত্রী নিহতের ঘটনায় বাসচালক কারাগারে

সেই কিশোরীকে হস্তান্তরে কোনও সিদ্ধান্ত হয়নি

সেই কিশোরীকে হস্তান্তরে কোনও সিদ্ধান্ত হয়নি

যশোরে দুই লাখ ডলারসহ ৪ হুন্ডি ব্যবসায়ী আটক

যশোরে দুই লাখ ডলারসহ ৪ হুন্ডি ব্যবসায়ী আটক

‘সোনা ব্যবসায়ী’ প্রতারক রিমান্ডে

‘সোনা ব্যবসায়ী’ প্রতারক রিমান্ডে

মেয়ের বিরুদ্ধে থানায় ডায়েরি করলেন সাবেক বিচারপতি

মেয়ের বিরুদ্ধে থানায় ডায়েরি করলেন সাবেক বিচারপতি

গৃহকর্মী রেখা ও তার স্বামী রিমান্ডে

গৃহকর্মী রেখা ও তার স্বামী রিমান্ডে

অগ্রাধিকারভিত্তিতে ভ্যাকসিন নিশ্চিতের দাবি কৃষিবিদদের

অগ্রাধিকারভিত্তিতে ভ্যাকসিন নিশ্চিতের দাবি কৃষিবিদদের

স্বর্ণ ব্যবসায়ী পরিচয়ে প্রতারণা করতো চক্রটি, গ্রেফতার ৪

স্বর্ণ ব্যবসায়ী পরিচয়ে প্রতারণা করতো চক্রটি, গ্রেফতার ৪

দখলবাজদের উচ্ছেদে কোনও নোটিশ দেওয়া হবে না: মেয়র আতিক

দখলবাজদের উচ্ছেদে কোনও নোটিশ দেওয়া হবে না: মেয়র আতিক


[email protected]
© 2021 Bangla Tribune
Bangla Tribune is one of the most revered online newspapers in Bangladesh, due to its reputation of neutral coverage and incisive analysis.