সেকশনস

তুষারপাতে বিপাকে বসনিয়ার অভিবাসনপ্রত্যাশীরা

আপডেট : ০৫ ডিসেম্বর ২০২০, ২০:৩৮

শীত যত বাড়ছিল, দুর্ভোগ ততটাই বাড়ার শঙ্কা ছিল অভিবাসনপ্রত্যাশীদের মধ্যে। শীত মৌসুমের প্রথম তুষারপাত সেই দুর্দশা বাড়িয়ে দিলো আরও কয়েক গুণ। ভেলিকা ক্লাদুসার জঙ্গল থেকে ডয়চে ভেলে যখন অভিবাসনপ্রত্যাশীদের দুর্দশার চিত্র তুলে ধরে, তখন শীতের হাত থেকে বাঁচতে হিমশিম খাচ্ছিল তারা। বাইরের ঠাণ্ডা থেকে বাঁচতে পলিথিনের তৈরি অস্থায়ী ঘর তৈরি করেছেন তারা। কিন্তু সেটির ভেতরেও সহজেই জমে কুয়াশার ফোঁটা।

আশপাশ থেকে সংগ্রহ করা লাকড়ি দিয়েই রান্না ও শরীর গরম রাখার চেষ্টা করছিলেন অনেকে। কিন্তু তাদের রসদও ফুরিয়ে আসছিল দ্রুতই।

বার্তা সংস্থা এপি জানিয়েছে, তুষারপাতের মধ্যেও বেশ কিছু অভিবাসনপ্রত্যাশী সেই পলিথিনের অস্থায়ী ঘরগুলোতেই বাস করছেন।

অনেক ক্ষেত্রেই পলিথিনের তাঁবুর ওপর বরফ জমে তা বাঁকা হয়ে যাচ্ছে, ভেঙেও পড়ছে। উলের তৈরি টুপি, গরম পোশাক ও রেইনকোট পরে শীত মোকাবিলার চেষ্টা করছেন তারা। তবে প্রচণ্ড ঠাণ্ডার তুলনায় এসব ব্যবস্থা একেবারেই অপ্রতুল।

বাংলাদেশ থেকে যাওয়া ৩০ বছরের শাহীন এপি-কে বলেন, ‘এখন প্রচণ্ড ঠাণ্ডা, গত রাতে খুব সমস্যায় পড়েছিলাম। আমাদের কোথাও ঘুমানোরও জায়গা নেই।’

তুষারপাতের জন্য একেবারেই প্রস্তুত ছিলেন না অভিবাসনপ্রত্যাশীরা। অনেকে নিজেদের একমাত্র গরম কাপড় ধুয়ে শুকানোর জন্য ঝুলিয়ে রেখেছিলেন। বরফ পড়ে মুহূর্তেই জামা-কাপড়-জুতা এমনকি অনেকের রাতের একমাত্র সম্বল কম্বলও ভিজে যায়।

২২ বছরের আহমেদ জানান, তিনি কোথাও থাকার জায়গা পাচ্ছেন না। পরিস্থিতি দিন দিন টিকে থাকার জন্য ‘অসম্ভব’ হয়ে পড়ছে বলেও জানান তিনি।

১৯৯০-এর দশকে যুদ্ধের পর থেকে এখনও অর্থনৈতিকভাবে ঘুরে দাঁড়াতে পারেনি বসনিয়া। ভয়াবহ মূল্যস্ফীতির কারণে দেশটি ইউরোপ মহাদেশের অন্যতম দরিদ্র রাষ্ট্র হিসেবে পরিচিত। তার ওপর হাজার হাজার অভিবাসীর চাপ দেশটিকে আরও বিপদে ফেলেছে।

বসনিয়ার রাজনীতিবিদরা একমত হতে না পারায় সংকট মোকাবিলায় সঠিক পদক্ষেপও গ্রহণ করতে পারছে না দেশটির সরকার।

অভিবাসনপ্রত্যাশীদের কেউই বসনিয়ায় থাকতে চান না। তাদের লক্ষ্য সীমান্তের ওপাড়ে ইউরোপীয় ইউনিয়নের দেশ ক্রোয়েশিয়া গিয়ে সেখান থেকে ফ্রান্স, ইতালি ও জার্মানির মতো অর্থনৈতিকভাবে সমৃদ্ধ দেশগুলোতে যাওয়া।

ক্রোয়েশিয়া সীমান্তে ব্যাপক কড়াকড়ির মধ্যে অবৈধভাবে পাড়ি দিতে গিয়ে ধরা পড়েন বেশিরভাগ অভিবাসনপ্রত্যাশী। তাদের ক্রোয়েশিয়া বা স্লোভেনিয়া থেকে বসনিয়ায় ফেরত পাঠানোর সময় নির্যাতন করা হয় বলেও অভিযোগ রয়েছে।

ক্রোয়েশিয়া পুলিশের বিরুদ্ধে নির্মম নির্যাতনের অভিযোগ বারবার উঠলেও এমন অভিযোগ ভিত্তিহীন বলে উড়িয়ে দিয়েছে দেশটির স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়। সূত্র: ডিডব্লিউ।

/এমপি/

সম্পর্কিত

জার্মানির ক্ষমতাসীন দলের নতুন প্রধান আরমিন লাশেট

জার্মানির ক্ষমতাসীন দলের নতুন প্রধান আরমিন লাশেট

উগান্ডায় ক্ষমতাসীন প্রেসিডেন্টকে জয়ী ঘোষণা, ফল প্রত্যাখ্যান বিরোধী নেতার

উগান্ডায় ক্ষমতাসীন প্রেসিডেন্টকে জয়ী ঘোষণা, ফল প্রত্যাখ্যান বিরোধী নেতার

দেশীয় টিকা নিতে চান না ভারতীয় চিকিৎসকদের একাংশ

দেশীয় টিকা নিতে চান না ভারতীয় চিকিৎসকদের একাংশ

১৮০০ কিলোমিটার দূরের লক্ষ্যবস্তুতে আঘাত হেনেছে ইরানের ক্ষেপণাস্ত্র: আইআরএনএ

১৮০০ কিলোমিটার দূরের লক্ষ্যবস্তুতে আঘাত হেনেছে ইরানের ক্ষেপণাস্ত্র: আইআরএনএ

সামরিক শাসন জারির প্রস্তাব নিয়ে হোয়াইট হাউসে ট্রাম্প সমর্থক?

সামরিক শাসন জারির প্রস্তাব নিয়ে হোয়াইট হাউসে ট্রাম্প সমর্থক?

ভারতে প্রথম করোনার টিকা পেলেন এক পরিচ্ছন্নতা কর্মী

ভারতে প্রথম করোনার টিকা পেলেন এক পরিচ্ছন্নতা কর্মী

টিকাদানে অবসরপ্রাপ্ত চিকিৎসকদেরও যুক্ত করার পরিকল্পনা বাইডেনের

টিকাদানে অবসরপ্রাপ্ত চিকিৎসকদেরও যুক্ত করার পরিকল্পনা বাইডেনের

ফাইজারের টিকা পেতে দেরি হওয়ায় ক্ষুব্ধ ইউরোপ

ফাইজারের টিকা পেতে দেরি হওয়ায় ক্ষুব্ধ ইউরোপ

ভ্যাকসিনে অনাগ্রহী ৪২ শতাংশ ব্রিটিশ বাংলাদেশি

ভ্যাকসিনে অনাগ্রহী ৪২ শতাংশ ব্রিটিশ বাংলাদেশি

‘ফেব্রুয়ারিতেই যুক্তরাষ্ট্রে করোনায় মৃতের সংখ্যা পাঁচ লাখে পৌঁছাবে’

‘ফেব্রুয়ারিতেই যুক্তরাষ্ট্রে করোনায় মৃতের সংখ্যা পাঁচ লাখে পৌঁছাবে’

সর্বশেষ

নাটোরের তিন পৌরসভায় নৌকা বিজয়ী

নাটোরের তিন পৌরসভায় নৌকা বিজয়ী

সাভারে পৌরসভায় নৌকার বিজয়

সাভারে পৌরসভায় নৌকার বিজয়

সুনামগঞ্জের দুটিতে আ.লীগ, ১টিতে স্বতন্ত্র প্রার্থী বিজয়ী

সুনামগঞ্জের দুটিতে আ.লীগ, ১টিতে স্বতন্ত্র প্রার্থী বিজয়ী

নবীগঞ্জ ও মাধবপুরে বিএনপি প্রার্থীর জয়

নবীগঞ্জ ও মাধবপুরে বিএনপি প্রার্থীর জয়

যেভাবে জয়ী হলেন জাপার একমাত্র মেয়র ডাবলু

যেভাবে জয়ী হলেন জাপার একমাত্র মেয়র ডাবলু

শ্রীপুর পৌরসভার চার বারের মেয়র আনিছুর

শ্রীপুর পৌরসভার চার বারের মেয়র আনিছুর

মৌলভীবাজারের দুই পৌরসভায় নৌকার জয়

মৌলভীবাজারের দুই পৌরসভায় নৌকার জয়

‘যতদিন এমপি আছি সনাতন ধর্মাবলম্বীদের জায়গা দখল হতে দেবো না’

‘যতদিন এমপি আছি সনাতন ধর্মাবলম্বীদের জায়গা দখল হতে দেবো না’

গাংনীতে আ.লীগের প্রার্থীর জয়, ৪ মেয়রপ্রার্থীর নির্বাচন বর্জন

গাংনীতে আ.লীগের প্রার্থীর জয়, ৪ মেয়রপ্রার্থীর নির্বাচন বর্জন

জুরাইনের বিক্রমপুর প্লাজার আগুন নিয়ন্ত্রণে

জুরাইনের বিক্রমপুর প্লাজার আগুন নিয়ন্ত্রণে

গাইবান্ধায় সংঘর্ষ: পুলিশ-র‌্যাবের গাড়ি ভাঙচুর, আহত ৫

গাইবান্ধায় সংঘর্ষ: পুলিশ-র‌্যাবের গাড়ি ভাঙচুর, আহত ৫

তিন সেট মোবাইলের জন্য বাঘার জহুরুল হত্যাকাণ্ড

তিন সেট মোবাইলের জন্য বাঘার জহুরুল হত্যাকাণ্ড

সর্বশেষসর্বাধিক

লাইভ

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

জার্মানির ক্ষমতাসীন দলের নতুন প্রধান আরমিন লাশেট

জার্মানির ক্ষমতাসীন দলের নতুন প্রধান আরমিন লাশেট

উগান্ডায় ক্ষমতাসীন প্রেসিডেন্টকে জয়ী ঘোষণা, ফল প্রত্যাখ্যান বিরোধী নেতার

উগান্ডায় ক্ষমতাসীন প্রেসিডেন্টকে জয়ী ঘোষণা, ফল প্রত্যাখ্যান বিরোধী নেতার

দেশীয় টিকা নিতে চান না ভারতীয় চিকিৎসকদের একাংশ

দেশীয় টিকা নিতে চান না ভারতীয় চিকিৎসকদের একাংশ

১৮০০ কিলোমিটার দূরের লক্ষ্যবস্তুতে আঘাত হেনেছে ইরানের ক্ষেপণাস্ত্র: আইআরএনএ

১৮০০ কিলোমিটার দূরের লক্ষ্যবস্তুতে আঘাত হেনেছে ইরানের ক্ষেপণাস্ত্র: আইআরএনএ

সামরিক শাসন জারির প্রস্তাব নিয়ে হোয়াইট হাউসে ট্রাম্প সমর্থক?

সামরিক শাসন জারির প্রস্তাব নিয়ে হোয়াইট হাউসে ট্রাম্প সমর্থক?

ভারতে প্রথম করোনার টিকা পেলেন এক পরিচ্ছন্নতা কর্মী

ভারতে প্রথম করোনার টিকা পেলেন এক পরিচ্ছন্নতা কর্মী

টিকাদানে অবসরপ্রাপ্ত চিকিৎসকদেরও যুক্ত করার পরিকল্পনা বাইডেনের

টিকাদানে অবসরপ্রাপ্ত চিকিৎসকদেরও যুক্ত করার পরিকল্পনা বাইডেনের

ফাইজারের টিকা পেতে দেরি হওয়ায় ক্ষুব্ধ ইউরোপ

ফাইজারের টিকা পেতে দেরি হওয়ায় ক্ষুব্ধ ইউরোপ


[email protected]
© 2021 Bangla Tribune
Bangla Tribune is one of the most revered online newspapers in Bangladesh, due to its reputation of neutral coverage and incisive analysis.