X
মঙ্গলবার, ২৭ সেপ্টেম্বর ২০২২
১২ আশ্বিন ১৪২৯

মাদ্রাসাছাত্রীকে সংঘবদ্ধ ধর্ষণের অভিযোগ, আটক ১

চাঁদপুর প্রতিনিধি
০৭ আগস্ট ২০২২, ২২:২৪আপডেট : ০৭ আগস্ট ২০২২, ২২:২৪

চাঁদপুরের কচুয়ায় সপ্তম শ্রেণির (১৩) এক মাদ্রাসাছাত্রীকে সংঘবদ্ধ ধর্ষণের অভিযোগ উঠেছে। এ ঘটনায় মো. রাসেল (৩০) নামে এক যুবককে আটক করেছে পুলিশ।

গত শুক্রবার বিকালে উপজেলার কচুয়া উত্তর ইউনিয়নের খিড্ডা বাজারের পাশে এ ঘটনা ঘটে। রবিবার (৭ আগস্ট) ছাত্রীর পরিবারের অভিযোগের ভিত্তিতে রাসেলকে আটক করা হয়।

ছাত্রীর বাবা বলেন, ‌‘কচুয়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসাধীন আমার এক নাতনিকে গত শুক্রবার দুপুরে খাবার দিয়ে সিএনজি অটোরিকশাযোগে বাড়ি ফিরছিল মেয়ে। পথিমধ্যে তিন যুবক অটোরিকশায় উঠে ভয়ভীতি দেখিয়ে মেয়েকে খিড্ডা বাজারের পশ্চিম পাশে এক বাড়িতে নিয়ে ধর্ষণ করে পালিয়ে যায়। গ্রাম্য সালিশদাররা বিষয়টি মীমাংসার কথা বলে সময়ক্ষেপণ করে। রবিবার কচুয়া থানায় অভিযোগ দিই।’

তিনি বলেন, ‘ঘটনায় জড়িতরা হলো তেতৈয়া গ্রামের মাদ্রাসা বাড়ির বাকি মিয়ার ছেলে মো. রাসেল, নুরুল ইসলামের ছেলে মোহাম্মদ উল্লাহ ও আবু মিয়ার ছেলে মো. হাছান। তাদের বিরুদ্ধে থানায় এজাহার দিয়েছি।’

কচুয়া থানার ওসি মো. মহিউদ্দিন বলেন, ‘ছাত্রীর দেওয়া তথ্য অনুযায়ী রাসেলকে আটক করা হয়েছে। সোমবার ডাক্তারি পরীক্ষার জন্য ছাত্রীকে হাসপাতালে পাঠানো হবে। সেইসঙ্গে তার জবানবন্দি রেকর্ড করা হবে। ছাত্রীর বাবার দেওয়া এজাহারটি মামলা হিসেবে নথিভুক্ত করা হবে।’

/এএম/
সম্পর্কিত
বাবুল আক্তার ও ইলিয়াস হোসাইনের বিরুদ্ধে পিবিআই প্রধানের মামলা
বাবুল আক্তার ও ইলিয়াস হোসাইনের বিরুদ্ধে পিবিআই প্রধানের মামলা
গৃহবধূকে সংঘবদ্ধ ধর্ষণের পর হত্যা, ৯ জনের যাবজ্জীবন
গৃহবধূকে সংঘবদ্ধ ধর্ষণের পর হত্যা, ৯ জনের যাবজ্জীবন
দেড় বছরের সন্তানকে ডোবায় ফেলে হত্যা, বাবা আটক
দেড় বছরের সন্তানকে ডোবায় ফেলে হত্যা, বাবা আটক
শিশুধর্ষণ মামলায় একজনের যাবজ্জীবন
শিশুধর্ষণ মামলায় একজনের যাবজ্জীবন
বাংলা ট্রিবিউনের সর্বশেষ
আ.লীগ নেতাকে ‘হত্যাকারী’ কিশোর আত্মহত্যা করেছে, দাবি পুলিশের
আ.লীগ নেতাকে ‘হত্যাকারী’ কিশোর আত্মহত্যা করেছে, দাবি পুলিশের
একসঙ্গে এত লাশ কখনও দেখেনি মাড়েয়া গ্রামের মানুষ
একসঙ্গে এত লাশ কখনও দেখেনি মাড়েয়া গ্রামের মানুষ
সেনা সমাবেশ শুরুর পর কাজাখস্তানে ঢুকেছে ৯৮ হাজার রুশ নাগরিক
সেনা সমাবেশ শুরুর পর কাজাখস্তানে ঢুকেছে ৯৮ হাজার রুশ নাগরিক
রাষ্ট্র আর প্রশাসন ঝুঁকির মধ্যে পড়ে গেছে: ইনু
রাষ্ট্র আর প্রশাসন ঝুঁকির মধ্যে পড়ে গেছে: ইনু
এ বিভাগের সর্বশেষ
গৃহবধূকে সংঘবদ্ধ ধর্ষণের পর হত্যা, ৯ জনের যাবজ্জীবন
গৃহবধূকে সংঘবদ্ধ ধর্ষণের পর হত্যা, ৯ জনের যাবজ্জীবন
দেড় বছরের সন্তানকে ডোবায় ফেলে হত্যা, বাবা আটক
দেড় বছরের সন্তানকে ডোবায় ফেলে হত্যা, বাবা আটক
শিশুধর্ষণ মামলায় একজনের যাবজ্জীবন
শিশুধর্ষণ মামলায় একজনের যাবজ্জীবন
এমসি কলেজে সংঘবদ্ধ ধর্ষণ, দু’বছরেও হয়নি সাক্ষ্যগ্রহণ 
এমসি কলেজে সংঘবদ্ধ ধর্ষণ, দু’বছরেও হয়নি সাক্ষ্যগ্রহণ 
আলমডাঙ্গায় স্বামী-স্ত্রীর মরদেহ উদ্ধারের ঘটনায় মামলা
আলমডাঙ্গায় স্বামী-স্ত্রীর মরদেহ উদ্ধারের ঘটনায় মামলা