X
শুক্রবার, ০৩ ফেব্রুয়ারি ২০২৩
২০ মাঘ ১৪২৯

সীমান্ত এলাকায় সংঘর্ষে আহত র‍্যাব সদস্যের অবস্থা আশঙ্কাজনক

কক্সবাজার প্রতিনিধি
১৫ নভেম্বর ২০২২, ০১:১৯আপডেট : ১৫ নভেম্বর ২০২২, ০১:১৯

বান্দরবানের নাইক্ষ্যংছড়ির ঘুমধুমের তুমব্রু সীমান্ত এলাকার ২ নং ওয়ার্ডের কোনারপাড়া মসজিদের পাশে মিয়ানমারের একটি সশস্ত্র বিচ্ছিন্নতাবাদী গ্রুপের সঙ্গে র‌্যাব সদস্যদের গোলাগুলির ঘটনা ঘটেছে। এই ঘটনায় আহত র‍্যাব সদস্যের অবস্থা আশঙ্কাজনক বলে জানা গেছে। তাকে বর্তমানে কক্সবাজার জেলা সদর হাসপাতালে চিকিৎসা দেওয়া হচ্ছে।

সোমবার (১৪ নভেম্বর) সন্ধ্যা সাড়ে ৬টার দিকে এই ঘটনা ঘটেছে বলে জানিয়েছেন ঘুমধুম ইউনিয়নের ২ নম্বর ওয়ার্ডের ইউপি সদস্য দিল মোহাম্মদ ভুট্টো এবং কোনারপাড়া শূন্যরেখার রোহিঙ্গা ক্যাম্পের একাধিক নেতা (মাঝি)। তবে এই বিষয়ে পুলিশ ও র‍্যাবের পক্ষ থেকে আনুষ্ঠানিক কোনও বক্তব্য পাওয়া যায়নি।

এ ছাড়া স্থানীয় একাধিক সূত্রে জানা গেছে, ঘটনায় কয়েকজন হতাহত হয়েছেন। গুরুতর আহত র‍্যাব সদস্যের নাম সোহেল বড়ুয়া (৩০)। তিনি র‍্যাব-১৫ কক্সবাজার ব্যাটালিয়নে কর্মরত আছেন।

হাসপাতালের কর্তব্যরত চিকিৎসক জানিয়েছেন, আহত র‍্যাব সদস্যের অবস্থা আশঙ্কাজনক। তিনি মাথায় গুরুতর আঘাত পেয়েছেন।

রাত ৯টা ৪৫ মিনিটে একটি মাইক্রোবাসযোগে গুরুতর আহত ওই র‍্যাব সদস্যকে কক্সবাজার জেলা সদর হাসপাতালে আনা হয়। সেখানে থাকা র‍্যাব কর্মকর্তারা ছবি তোলা ও ভিড় না করার জন্য অনুরোধ করেন। হাসপাতালের পুলিশ বক্সে দায়িত্বরত কর্মকর্তারাও এই বিষয়ে কোনও কথা বলতে রাজি হননি।

হাসপাতালের আবাসিক চিকিৎসা কর্মকর্তা মোহাম্মদ আশিকুর রহমান বলেন, রাত পৌনে ১০টার দিকে মাথায় গুরুতর আঘাতপ্রাপ্ত এক র‍্যাব সদস্যকে হাসপাতালের জরুরি বিভাগে আনা হয়। তার রক্তক্ষরণ হচ্ছে। চিকিৎসকরা তার চিকিৎসা চালিয়ে যাচ্ছেন।

তিনি আরও বলেন, আহত র‍্যাব সদস্যের রক্তক্ষরণ বন্ধ করা না গেলে তাকে উন্নত চিকিৎসার জন্য চট্টগ্রাম মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতাল (চমেক) অথবা ঢাকার সম্মিলিত সামরিক হাসপাতালে পাঠানো হতে পারে।

ঘুমধুম ইউনিয়নের ২ নম্বর ওয়ার্ডের ইউপি সদস্য দিল মোহাম্মদ ভুট্টো বলেন, সন্ধ্যায় ঘুমধুমের কোনারপাড়া সীমান্তে র‍্যাবের সঙ্গে কতিপয় দুষ্কৃতিকারীর গোলাগুলির ঘটনা ঘটেছে। এতে র‍্যাব সদস্যসহ কয়েকজন হতাহত হয়েছেন বলে খবর শুনেছি।

/এফআর/
সর্বশেষ খবর
উপাচার্যের আশ্বাসে হলে ফিরে গেলেন অবস্থানরত শিক্ষার্থীরা
উপাচার্যের আশ্বাসে হলে ফিরে গেলেন অবস্থানরত শিক্ষার্থীরা
রাজশাহীতে ৩ জনকে হত্যা
রাজশাহীতে ৩ জনকে হত্যা
নার্সদের যৌন হয়রানি: দুই চিকিৎসককে বদলি
নার্সদের যৌন হয়রানি: দুই চিকিৎসককে বদলি
ছিনতাইকারীর ছুরিকাঘাতে আহত পার্বত্য মন্ত্রীর এপিএস
ছিনতাইকারীর ছুরিকাঘাতে আহত পার্বত্য মন্ত্রীর এপিএস
সর্বাধিক পঠিত
টিকিট কাটতে বলায় সন্তানকে বিমানবন্দরে রেখেই চলে যান দম্পতি!
টিকিট কাটতে বলায় সন্তানকে বিমানবন্দরে রেখেই চলে যান দম্পতি!
পিন নম্বর ছাড়াই সব কার্ডে লেনদেনের সুযোগ
পিন নম্বর ছাড়াই সব কার্ডে লেনদেনের সুযোগ
নির্বাচন অফিসে গিয়ে আপ্যায়ন চাইলেন হিরো আলম, পেলেন মিষ্টি
নির্বাচন অফিসে গিয়ে আপ্যায়ন চাইলেন হিরো আলম, পেলেন মিষ্টি
ইয়েমেনে যাচ্ছিল ইরানের বিপুল অস্ত্র-গোলাবারুদ, আটকালো ফ্রান্স-যুক্তরাষ্ট্র
ইয়েমেনে যাচ্ছিল ইরানের বিপুল অস্ত্র-গোলাবারুদ, আটকালো ফ্রান্স-যুক্তরাষ্ট্র
সাত পদে ১১৭ জনের সরকারি চাকরির সুযোগ
সাত পদে ১১৭ জনের সরকারি চাকরির সুযোগ