X
শুক্রবার, ০৩ ফেব্রুয়ারি ২০২৩
২০ মাঘ ১৪২৯

‘মাদক সংশ্লিষ্টতায়’ গ্রেফতার করতে আসা পুলিশের সামনেই গৃহবধূর বিষপান

ব্রাহ্মণবাড়িয়া প্রতিনিধি
২৪ জানুয়ারি ২০২৩, ১১:৫১আপডেট : ২৪ জানুয়ারি ২০২৩, ১১:৫১

ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় আখাউড়া উপজেলার দক্ষিণ ইউনিয়নের নূরপুরে এক গৃহবধূকে মাদক ব্যবসায়ী উল্লেখ করে গ্রেফতার করতে গিয়েছিল একদল পুলিশ। এসময় মাদক সংশ্লিষ্টতার অভিযোগ প্রত্যাখ্যান করে পুলিশের সামনেই কীটনাশক পান করছেন তিনি। তাকে আশঙ্কাজনক অবস্থায় ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ (ঢামেক) হাসপাতালে পাঠানো। ওই নারীর স্বজনদের দাবি, তার বিরুদ্ধে কোনও গ্রেফতারি পরোয়ানা নেই, তাকে কোনও কারণ ছাড়াই হয়রানি করা হয়েছে। অন্যদিকে পুলিশের দাবি, ওই নারী মাদক ব্যবসায়ী। তবে পুরো ঘটনা খতিয়ে দেখার আশ্বাস দিয়েছেন পুলিশ সুপার।

স্থানীয়রা জানান, সোমবার সন্ধ্যা সাড়ে ৬টার দিকে আখাউড়া উপজেলার দক্ষিণ ইউনিয়নের নূরপুর গ্রামের এক গৃহবধূকে মাদক ব্যবসায়ী উল্লেখ আখাউড়া থানার উপ-পরিদর্শক মোবারক আলী ও সহকারী উপ-পরিদর্শক আব্দুল আজিজের নেতৃত্বে নারী পুলিশ সদস্যসহ একদল পুলিশ সদস্য তার বাড়িতে যায়। এসময় তারা তাকে বাড়ি থেকে নিয়ে যাওয়ার চেষ্টা করেন। এরই এক ফাঁকে পুলিশের সামনেই তিনি কীটনাশক পান করেন ওই গৃহবধূ।

স্বজনদের দাবি, তার বিরুদ্ধে গ্রেফতারি পরোয়ানা বা কোনও অভিযোগ না থাকলেও পুলিশ তাকে গ্রেফতার করতে আসে। এই ঘটনার অপমান না সইতে পেরে বিষপান করেছে। এমনকি ঘটনাটি (কীটনাশক পান) পুলিশের সামনেই ঘটলেও তারা তাকে বাধা দিতে এগিয়ে আসেননি। বরং তারা সুযোগ বুঝে ঘটনাস্থল থেকে সটকে পড়েন। পরে ওই গৃহবধূকে আশঙ্কাজনক অবস্থায় প্রথমে আখাউড়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স ও পরে ব্রাহ্মণবাড়িয়া ২৫০ শয্যা বিশিষ্ট জেনারেল হাসপাতালে আনা হয়। সেখান থেকে উন্নত চিকিৎসার জন্যে তাকে ঢাকা মেডিক্যাল হাসপাতালে পাঠানো হয়।

গৃহবধূর মা জানান, ‘আমার মেয়েকে ধরার জন্য দুইটি সিএনজিতে করে নারী পুলিশসহ অনেক পুলিশ তার বাড়িতে যায়। থানার ওসি নিয়ে যেতে বলেছে, এমন কথা বলে তারা তাকে নিয়ে যেতে চায়। এসময় তারা টানা-হেঁচড়া করতে থাকে। পরে পুলিশের সামনেই আমার মেয়ে বিষ খায়। তখন পুলিশ তাকে আটকায়নি। এর কিছুক্ষণ পরে পুলিশ ঘর থেকে বের হয়ে যায়। আমার মেয়ের নামে কোনও মামলা বা ওয়ারেন্ট নেই। এমনি-এমনি তারা এমনটা করেছে। আমি এ ঘটনার বিচার চাই।’

গৃহবধূর দেবর বলেন, পুলিশ ভাবীকে নিয়ে প্রায় ১ ঘণ্টা টানাটানি করে। পরে ঘরের কোনও এক জায়গা থেকে বিষ পান করেন ভাবী। পরে পুলিশ দ্রুত সেখান থেকে চলে যায়। আমরা তাকে হাসপাতালে নিয়ে আসি, এখন ঢাকায় নিয়ে যাচ্ছি। আমার ভাবীর নামে কোনও গ্রেফতারি পরোয়ানা নেই।’

ওই গৃহবধূকে ঢাকা নেওয়ার পথে অ্যাম্বুলেন্সে থাকা আখাউড়া থানার উপ-পরিদর্শক আব্দুল সালেক জানান, ‘থানার ওসি আমাকে হাসপাতালে পাঠিয়েছেন। এখান থেকে ডাক্তার ঢাকায় প্রেরণ করেছে, তাই তাকে ঢাকায় নিয়ে যাচ্ছি।’

ব্রাহ্মণবাড়িয়া সদর হাসপাতালের চিকিৎসক ডা. আবদুল মোনেম জানান, ‘রোগীকে আখাউড়া স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স থেকে ওয়াশ করে এখানে প্রেরণ করেছে। আমরা তাকে প্রাথমিক চিকিৎসা শেষে আমরা উন্নত চিকিৎসার জন্যে ঢাকায় রেফার করেছি। তবে রোগীর অবস্থা ভালো নয়।’

ঘটনা সম্পর্কে ব্রাহ্মণবাড়িয়া পুলিশ সুপার জানান, আখাউড়া থেকে পরিত্যাক্ত অবস্থায় ২০ কেজি গাঁজা উদ্ধার করা হয়। গাঁজাগুলো ওই গৃহবধূ ও তার স্বামীর বলে নিশ্চিত হয় পুলিশ। পরে সেখানে অভিযানে চালানো হয়। তারপরও সেখানে কী ঘটেছে, তা খতিয়ে দেখা হচ্ছে বলে জানান পুলিশ সুপার।

পুলিশের দেওয়া তথ্য অনুযায়ী, ওই গৃহবধূর বিরুদ্ধে ২০১৮ সালে একটি মাদক মামলা রয়েছে। ঘটনার পর সোমবার আরও একটি মাদক মামলায় তাকে আসামি করা হয়েছে।

/ইউএস/
সর্বশেষ খবর
‘বিএনপির দাবি ভিত্তিহীন, উপনির্বাচনে ২৫ শতাংশের বেশি ভোট পড়েছে’
‘বিএনপির দাবি ভিত্তিহীন, উপনির্বাচনে ২৫ শতাংশের বেশি ভোট পড়েছে’
বই পেতে দেরি হলে ওয়েবসাইট থেকে পড়ানোর পরামর্শ শিক্ষামন্ত্রীর
বই পেতে দেরি হলে ওয়েবসাইট থেকে পড়ানোর পরামর্শ শিক্ষামন্ত্রীর
বাংলাদেশকে নিয়ে যা বলেছেন মেসি
বাংলাদেশকে নিয়ে যা বলেছেন মেসি
সুন্দরবনে বেড়েছে বিদেশি পর্যটক
সুন্দরবনে বেড়েছে বিদেশি পর্যটক
সর্বাধিক পঠিত
টিকিট কাটতে বলায় সন্তানকে বিমানবন্দরে রেখেই চলে যান দম্পতি!
টিকিট কাটতে বলায় সন্তানকে বিমানবন্দরে রেখেই চলে যান দম্পতি!
পিন নম্বর ছাড়াই সব কার্ডে লেনদেনের সুযোগ
পিন নম্বর ছাড়াই সব কার্ডে লেনদেনের সুযোগ
নির্বাচন অফিসে গিয়ে আপ্যায়ন চাইলেন হিরো আলম, পেলেন মিষ্টি
নির্বাচন অফিসে গিয়ে আপ্যায়ন চাইলেন হিরো আলম, পেলেন মিষ্টি
হিরো আলমের এত ভোট পাওয়া নিয়ে যা বলছেন আ.লীগ-বিএনপির নেতারা
হিরো আলমের এত ভোট পাওয়া নিয়ে যা বলছেন আ.লীগ-বিএনপির নেতারা
ইউক্রেনকে সতর্ক করলো ইউরোপীয় ইউনিয়ন
ইউক্রেনকে সতর্ক করলো ইউরোপীয় ইউনিয়ন