X
মঙ্গলবার, ০৫ জুলাই ২০২২
২১ আষাঢ় ১৪২৯

দেড় কোটি টাকার রাস্তায় এক মাসেই ফাটল

আপডেট : ১৩ মে ২০২২, ১০:৩৩

ফরিদপুরের বোয়ালমারী উপজেলায় দেড় কোটি টাকা ব্যয়ে রাস্তা নির্মাণের এক মাসের মধ্যে ফাটল দেখা দিয়েছে। এজিং ভেঙে হুমকির মুখে পড়েছে নির্মাণাধীন প্রায় পাঁচ কিলোমিটার রাস্তা।

উপজেলা প্রকৌশল সূত্রে জানা গেছে, গ্রামীণ সড়ক মেরামত ও সংরক্ষণ প্রকল্পের আওতায় উপজেলার সাতৈর ইউনিয়নের সাতৈর বাজার থেকে ডোবরা গ্রাম পর্যন্ত ৪ দশমিক ৯৮ কিলোমিটার রাস্তা সংস্কারে ব্যয় ধরা হয়েছে এক কোটি ৪৮ লাখ ৪৩ হাজার টাকা। গত জানুয়ারিতে কাজটি শুরু হয়ে ঈদের আগে কাজ শেষ হয়। সংস্কার শেষ হওয়ার এক মাসের মধ্যে সড়কের বিভিন্ন স্থানে ফাটল দেখা দিয়েছে। কোনও কোনও স্থানে কার্পেটিং উঠে এজিং ভেঙে পুকুরেও চলে গেছে। কাজে নিম্ন মানের ইট, খোয়া, পাথর, বালু ব্যবহার করার কারণে বিভিন্ন স্থানে রাস্তা উঁচু নিচু হয়ে দেবে গেছে বলে স্থানীয়দের অভিযোগ।

সরেজমিন দেখা গেছে, সাতৈর দিঘির পাড় এলাকায় রাস্তার এজিং ভেঙে দীঘিতে চলে গেছে। সোজা মোল্যার বাড়ির পাশে রাস্তা ফেঁটে দেবে গেছে। একই গ্রামের খালেক মাতুব্বরের বাড়ির সামনে রাস্তার পাইলিং ভেঙে পুকুরের ভেতরে এবং গো-মরা মোড়ে বিটুমিন উঠে গেছে। দেশের বাইরে সুতা রফতানি করা ডোবরা জনতা জুট মিলের শত শত শ্রমিক এই রাস্তা দিয়ে মিলে যাতায়াত করেন। জনতা জুটমিলটি সাতৈর ইউনিয়নের ডোবরা গ্রামে অবস্থিত।

সাতৈর গ্রামের শরিফুল ইসলাম বলেন, ‘আমরা প্রতিদিন এই রাস্তা দিয়ে যাতায়াত করি। ফসল মৌসুমে ফসল মালগাড়িতে নিয়ে ঘরে তুলি। তবে এই রাস্তার কাজ যেভাবে নিম্নমানের সামগ্রী দিয়ে করা হয়েছে, তা কতদিন ভালো থাকবে ভাবার বিষয়। খারাপ সামগ্রী দিয়ে রাস্তা নির্মাণ করার কারণে পিচ উঠে যাওয়ার উপক্রম হয়েছে। আর হালকা গাড়ি চললেও বেশি দিন এ রাস্তা টিকবে না। ভারী যানবাহন চললে তো রাস্তায় থাকবে না।’

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক স্থানীয় এক ব্যবসায়ী বলেন, ‘রাস্তা নির্মাণের কয়েকদিন পর বিভিন্ন স্থান গর্ত হয়ে দেবে গেছে। অনেক স্থান উঁচু নিচু হয়ে গেছে। কাজ করার সময় ঠিকাদার নতুন ইট, বালু রাস্তার কাজে ব্যবহার করেননি। রাস্তার পুরাতন ইট তুলে তার ওপরে বিটুমিন (পিচ) ঢেলে রোলার দিয়ে ঠিকমতো সমান না করেই কার্পেটিং করায় রাস্তা ফেঁটে যাচ্ছে।’

সড়ক নির্মাণাধীন প্রতিষ্ঠান তাসা কন্সট্রাকশন এন্টার প্রাইজের স্বত্ত্বাধিকারী মো. সহিদুল ইসলাম বলেন, ‘চলতি বছরের জানুয়ারিতে কাজটি শুরু করে ঈদের আগে শেষ করেছি। কাজে কোনও অনিয়ম হয়নি। তবে ভাঙা ও ভেঁটে যাওয়া স্থানে বৃষ্টির পরে মেরামত করে দেওয়া হবে।’

উপজেলা প্রকৌশলী রাশেদ ইকবাল জানান, ‘কাজ নিয়ম অনুযায়ী করা হয়েছে। আসলে ওই স্থানের মাটি ও পরিবেশ অনেকটা খারাপ। রাস্তার পাশে অনেক পুকুর রয়েছে, যার ফলে রাস্তার সমস্যা হতে পারে। আর রাস্তার ক্যাপাসিটি ১০ টন। কিন্তু রাস্তা দিয়ে ভারী যান চলাচল করার কারণে রাস্তা ভেঙে যেতে পারে।’

ঠিকাদার প্রতিষ্ঠানের সম্পূর্ণ বিলের বিষয়ে জানতে চাইলে তিনি বলেন, ‘বিল পরিশোধ করা হয়েছে। তবে জামানত হিসাবে আমাদের কাছে ৫ শতাংশ টাকা জমা রয়েছে। এক বছরের মধ্যে রাস্তায় কোনও সমস্যা হলে ঠিকাদার প্রতিষ্ঠান সে জায়গা মেরামত করে দেবে। গত বৃহস্পতিবার রাস্তা ভেঙে যাওয়ার অভিযোগ শুনেই এলজিইডি দফতরের ল্যাব এক্সপার্টদের নিয়ে পরীক্ষা করা হয়েছে।’

/এসএইচ/
বাংলা ট্রিবিউনের সর্বশেষ
জমে উঠছে অনলাইনে পশুর হাট
জমে উঠছে অনলাইনে পশুর হাট
চট্টগ্রাম সিটির বর্জ্য অপসারণ করবে ৫ হাজার শ্রমিক 
চট্টগ্রাম সিটির বর্জ্য অপসারণ করবে ৫ হাজার শ্রমিক 
কোন গ্রিডে কত লোডশেডিং
কোন গ্রিডে কত লোডশেডিং
পশুর অবৈধ হাট বসানোয় ৪০ হাজার টাকা জরিমানা
পশুর অবৈধ হাট বসানোয় ৪০ হাজার টাকা জরিমানা
এ বিভাগের সর্বশেষ
প্রাণিসম্পদ কর্মকর্তার ভুলে ক্ষুদ্র উদ্যোক্তার ১৪০০ হাঁসের মৃত্যু
প্রাণিসম্পদ কর্মকর্তার ভুলে ক্ষুদ্র উদ্যোক্তার ১৪০০ হাঁসের মৃত্যু
দৌলতদিয়া-পাটুরিয়া পারাপার হবে স্বস্তির, চলবে ২১ ফেরি 
দৌলতদিয়া-পাটুরিয়া পারাপার হবে স্বস্তির, চলবে ২১ ফেরি 
ঘরে ঢুকে মা-ছেলেকে হত্যার ২ দিন পর মামলা
ঘরে ঢুকে মা-ছেলেকে হত্যার ২ দিন পর মামলা
স্ত্রীকে পুড়িয়ে হত্যায় স্বামীর যাবজ্জীবন
স্ত্রীকে পুড়িয়ে হত্যায় স্বামীর যাবজ্জীবন
পাননি ছুটি, বাধ্য হয়ে কাজের সময় অসুস্থ পোশাককর্মীর মৃত্যু
পাননি ছুটি, বাধ্য হয়ে কাজের সময় অসুস্থ পোশাককর্মীর মৃত্যু