ইউপিডিএফ সদস্যকে গুলি করে হত্যা

Send
রাঙামাটি প্রতিনিধি
প্রকাশিত : ১৫:৩৬, ডিসেম্বর ১৬, ২০১৭ | সর্বশেষ আপডেট : ১৫:৪৭, ডিসেম্বর ১৬, ২০১৭

রাঙামাটিরাঙামাটির বন্দুকভাংগা এলাকায় আঞ্চলিক রাজনৈতিক সংগঠন ইউনাইটেড পিপলস ডেমোক্রেটিক ফ্রন্ট (ইউপিডিএফ) এর এক সংগঠককে গুলি করে হত্যা করেছে দুর্বৃত্তরা। শনিবার (১৬ ডিসেম্বর) ভোর রাতে বাসা থেকে ডেকে নিয়ে অনল বিকাশ চাকমাকে হত্যা করা হয় বলে জানিয়েছেন ইউপিডিএফ এর আরেক সংগঠক মাইকেল চাকমা। 

বাংলা ট্রিবিউনকে মাইকেল চাকমা জানান, ভিন্নমতাবলম্বীদের উদ্যোগে গঠিত নতুন দল ইউপিডিএফ (গণতান্ত্রিক) এর সদস্যরা এই কাজ করেছে বলে তাদের সন্দেহ।

রাঙামাটির কোতোয়ালি থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) সত্যজিৎ বড়ুয়া বলেন, ‘খবর পেয়ে সকালে পুলিশ ঘটনাস্তলে গিয়েছে। ফিরলে বিস্তারিত জানাতে পারবো।’

উল্লেখ্য সম্প্রতি রাঙামাটিতে বেশ কয়েকটি রাজনৈতিক সহিংসতার ঘটনা ঘটেছে। গত ২ ডিসেম্বর সাবেক ইউপি মেম্বার ও ইউপিডিএফ সদস্য অনাদি রঞ্চন চাকমাকে (৫৫) গুলি করে হত্যা করা হয়। নানিয়ার চরের চিরঞ্জিব দজরপাড়া এলাকায় বাসা থেকে ডেকে নিয়ে গুলি করা হয় তাকে।

গত ৫ ডিসেম্বর বিলাইছড়ি উপজেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি রাম চরন মারমা ওরফে রাসেল মারমাকে পিটিয়ে গুরুতর আহত অবস্থায় ফেলে রেখে যায় ১০-১২ জনের একটি দল। ওই দিনই রাত ৮টার দিকে জুরাছড়ি আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক ও উপজেলা আওয়ামী যুবলীগের সহ-সভাপতি অরবিন্দু চাকমাকে গুলি করে হত্যা করা হয়। ৬ ডিসেম্বর মধ্য রাতে কিছু যুবক ঘরে ঢুকে মহিলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি ঝর্ণা খীসা ও তার পরিবারের আরও দুই সদস্য কুপিয়ে জখম করে।

আরও আগে গত ২০ নভেম্বর বিলাইছড়িতে উপজেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি স্বপন কুমার চাকমা, যুবলীগ নেতা রিগান চাকমা, ইউপি সদস্য অমৃত কান্তি তংচজ্ঞ্যা, কেংড়াছড়ি মৌজার হেডম্যান সমতোষ চাকমাকে মারধরের ঘটনা ঘটে। হঠাৎ করে সহিংসতা বাড়ায় জেলায় উত্তেজনা তৈরি হয়েছে। 

 

/এফএস/

লাইভ

টপ