ফলাফল মেনে নেওয়ার মানসিকতা আছে: লিটন

Send
দুলাল আবদুল্লাহ, রাজশাহী
প্রকাশিত : ০৮:৫৬, জুলাই ৩০, ২০১৮ | সর্বশেষ আপডেট : ০৯:২৯, জুলাই ৩০, ২০১৮

ভোট দেওয়ার পর খায়রুজ্জামান লিটননির্বাচনের যেকোনও ধরনের ফলাফল মেনে নেওয়ার মানসিকতা আছে বলে মন্তব্য করেছেন রাজশাহী সিটি করপোরেশন (রাসিক) নির্বাচনে আওয়ামী লীগের মেয়র পদপ্রার্থী এএইচএম খায়রুজ্জামান লিটন। শনিবার সকাল সোয়া ৮টায় নগরীর উপশহর স্যাটেলাইট হাই স্কুল কেন্দ্রে তিনি ভোট দেন। এরপর সাংবাদিকদের সঙ্গে আলাপকালে তিনি একথা বলেন।  

ভোট দেওয়ার পর তিনি সাংবাদিকদের বলেন,  ‘আমি লক্ষ্য করেছি যে, উৎসবমুখর পরিবেশে সবাই ভোট দিচ্ছেন। সারাদিন এমন পরিবেশে সবাই ভোট দেবে এটাই আশা করি। নির্বাচনে জয়-পরাজয় থাকবেই। ফলাফল একমাত্র সৃষ্টিকর্তাই জানেন। তবে যেকোনও ফলাফল মেনে নেওয়ার মন মানসিকতা আছে।’

ভোট কারচুপির কোনও আশঙ্কা আছে কিনা-এমন প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, ‘ভোট গ্রহণের কেবল আধা ঘণ্টা পার হয়েছে। এখনি কিছু বলা যাবে না। পরিবেশ যেন এমনই থাকে এটাই আশা করি। তবে অতি উৎসাহী কেউ এই সুষ্ঠু পরিবেশটাকে নষ্ট না করে।’

বিএনপি ভোট প্রত্যাখানের গুজব সম্পর্কে তিনি বলেন, ‘এ বিষয়ে আমি মন্তব্য করবো না। এটা তাদের রাজনৈতিক ও প্রার্থীর সিদ্ধান্ত। ভোট হচ্ছে গণতান্ত্রিক প্রক্রিয়া। কোনও রাজনৈতিক দলের এ ধরনের আচরণ জনগণ প্রত্যাশা করে না।’

জয়ের ব্যাপারে আশাবাদ ব্যক্ত করে লিটন বলেন, ‘বিজয়ের ব্যাপারে আমি শতভাগ না হলেও ৭০ ভাগ আশাবাদী। কারণ নির্বাচনি প্রচারের সময় আমি মানুষের যে উৎসাহ, উদ্দীপনা দেখেছি তাতে মনে হয়েছে আমি বিজয়ী হবো।’

স্যাটেলাইট হাই স্কুল কেন্দ্রে বিএনপির মেয়র পদপ্রার্থী মোসাদ্দেক হোসেন বুলবুলের ভোট দেওয়ার কথা রয়েছে।

ভোট দেওয়ার পর খায়রুজ্জামান লিটনএছাড়া স্বতন্ত্র মেয়র প্রার্থী মুরাদ মোর্শেদ ১৪ নম্বর ওয়ার্ডের তেরখাদিয়ায় শহীদ কামারুজ্জামান বিভাগীয় স্টেডিয়ামের ভোটকেন্দ্রে ভোট দেবেন। ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ মনোনীত প্রার্থী শফিকুল ইসলাম ছোটবনগ্রাম সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় কেন্দ্রে ভোট দেবেন। আর বাংলাদেশ জাতীয় পার্টির প্রার্থী হাবিবুর রহমান নগরীর দড়িখরবোনা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে সকাল সাড়ে ৮টা থেকে ৯টার মধ্যে ভোট প্রদান করবেন। 

রাজশাহীতে এবার মোট ভোটকেন্দ্র ১৩৮টি এবং বুথের সংখ্যা ১ হাজার ২০টি। নির্বাচন কমিশন ১১৪টি কেন্দ্রকে ঝুঁকিপূর্ণ বলে ঘোষণা করেছে। রবিবার রাজশাহীর গভর্মেন্ট ল্যাবরেটরি স্কুল মিলনায়তনে স্থাপিত রিটার্নিং অফিসারের অস্থায়ী কার্যালয় থেকে প্রতিটি ভোটকেন্দ্রে নির্বাচনি উপকরণ সরবরাহ করা হয়। এবার নগরীর বিবি হিন্দু একাডেমিতে দুইটি কেন্দ্রে (১০০,১০১) ইলেকট্রনিক ভোটিং মেশিনে (ইভিএম) ভোটগ্রহণ করা হবে। এবার এ সিটির ভোটার সংখ্যা ৩ লাখ ১৮ হাজার ১৩৮ জন। মোট ভোটারের মধ্যে ১ লাখ ৬২ হাজার ৫৩ জন নারী এবং পুরুষ ভোটার ১ লাখ ৫৬ হাজার ৮৫ জন। মেয়র পদে পাঁচ প্রার্থীর মধ্যে চারজন দলীয় প্রতীকে এবং একজন স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে ভোট করছেন। এছাড়া সাধারণ ১৬০ জন কাউন্সিলর ও ৫২ জন সংরক্ষিত কাউন্সিলর পদে ভোট করছেন।

আরও পড়ুন:

রাসিকের পাঁচ মেয়রপ্রার্থী কে কোথায় ভোট দেবেন

/এসটি/

লাইভ

টপ