অধ্যক্ষ সিরাজসহ মৃত্যুদণ্ড পাওয়া ৪ আসামি চট্টগ্রাম ও কুমিল্লার কারাগারে

Send
ফেনী প্রতিনিধি
প্রকাশিত : ২৩:৩০, নভেম্বর ১৩, ২০১৯ | সর্বশেষ আপডেট : ২৩:৩৭, নভেম্বর ১৩, ২০১৯

নুসরাত হত্যা মামলা

ফেনীর সোনাগাজীর মাদ্রাসাছাত্রী নুসরাত জাহান রাফিকে পুড়িয়ে হত্যা মামলায় মৃত্যুদণ্ড পাওয়া চারজনকে চট্টগ্রাম ও কুমিল্লা কেন্দ্রীয় কারাগারে স্থানান্তর করা হয়েছে। এর মধ্যে মূল আসামি সোনাগাজী ইসলামিয়া ফাজিল মাদ্রাসার বরখাস্ত হওয়া অধ্যক্ষ সিরাজ উদ দৌলাও রয়েছেন। ফেনী জেলা কারাগারে পৃথক কনডেম সেল না থাকায় এখান থেকে বুধবার (১৩ নভেম্বর) কড়া নিরাপত্তার মধ্যদিয়ে তাদের চট্টগ্রাম ও কুমিল্লা কেন্দ্রীয় কারাগারে নেওয়া হয়। এর আগে গতকাল মঙ্গলবার এ মামলায় মৃত্যুদণ্ড পাওয়া ১২ আসামিকে কুমিল্লা কেন্দ্রীয় কারাগারে পাঠানো হয়। ফেনী কারাগারের জেলার দিদারুল আলম বাংলা ট্রিবিউনকে এসব তথ্য নিশ্চিত করেন।

জেলার দিদারুল আলম জানান, মৃত্যুদণ্ডপ্রাপ্ত আসামি কামরুন্নাহার মণি ও উম্মে সুলতানা ওরফে পপিকে বুধবার সকালে চট্টগ্রাম কেন্দ্রীয় কারাগারে পাঠানো হয়। আর বিকালে সিরাজ উদ দৌলা ও আওয়ামী লীগ নেতা মো. রুহুল আমিনকে কুমিল্লা কেন্দ্রীয় কারাগারে পাঠানো হয়। মৃত্যুদণ্ড পাওয়া ১৬ জনের মধ্যে গতকাল মঙ্গলবার ১২ জনকে কুমিল্লা কেন্দ্রীয় কারাগারে পাঠানো হয়। কারা মহাপরিদর্শকের নির্দেশে তাদের চট্টগ্রাম ও কুমিল্লা কারাগারে স্থানান্তর করা হয়েছে।

এর আগে গত ২৪ অক্টোবর ফেনীর নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনালের বিচারক মো. মামুনুর রশিদ নুসরাত হত্যা মামলার রায়ে ১৬ আসামির মৃত্যুদণ্ড ঘোষণা করেন।

উল্লেখ্য, সোনাগাজী ইসলামিয়া ফাজিল মাদ্রাসার আলিম পরীক্ষার্থী ছিলেন নুসরাত জাহান রাফি। তাকে যৌন হয়রানির অভিযোগ ওঠে ওই মাদ্রাসার অধ্যক্ষ সিরাজ উদ দৌলার বিরুদ্ধে। এ ঘটনায় নুসরাতের মা শিরিন আক্তার বাদী হয়ে সোনাগাজী থানায় মামলা দায়ের করেন। এরপর অধ্যক্ষকে গ্রেফতার করে পুলিশ। পরে মামলা তুলে নিতে বিভিন্নভাবে নুসরাতের পরিবারকে হুমকি দেওয়া হয়। গত ৬ এপ্রিল সকাল ৯টার দিকে আলিম পর্যায়ের আরবি প্রথম পত্রের পরীক্ষা দিতে ওই মাদ্রাসা কেন্দ্রে যান নুসরাত। এসময় তাকে পাশের বহুতল ভবনের ছাদে ডেকে নিয়ে গায়ে কেরোসিন ঢেলে আগুন দেওয়া হয়। ১০ এপ্রিল রাত সাড়ে ৯টার দিকে ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালের বার্ন ইউনিটে চিকিৎসাধীন অবস্থায় নুসরাত মারা যান। এ ঘটনায় নুসরাতের বড় ভাই বাদী হয়ে সোনাগাজী মডেল থানায় মামলা করেন।

 

/এমএ/

লাইভ

টপ