মমতাজ হত্যা, গ্রেফতার দুই যুবকের স্বীকারোক্তি

Send
কুড়িগ্রাম প্রতিনিধি
প্রকাশিত : ১১:৫৮, নভেম্বর ১৪, ২০১৯ | সর্বশেষ আপডেট : ১৪:০৭, নভেম্বর ১৪, ২০১৯

নিহত স্কুল শিক্ষার্থীর ছবি

অষ্টম শ্রেণির ছাত্রী মমতাজ আক্তার জিম্মিকে হত্যার কথা স্বীকার করেছে গ্রেফতার দুই যুবক। গ্রেফতার দুই যুবক হামিদুল ইসলাম ও নূরনবী মিয়াকে বুধবার সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেটের আদালতে হাজির করা হলে তারা মমতাজকে হত্যার কথা স্বীকার করেছে। তারা এ হত্যাকাণ্ডে পাঁচজন জড়িত থাকার কথাও স্বীকার করেছে। আদালত উভয়ের জবানবন্দি রেকর্ড করে তাদের জেল হাজতে পাঠানোর নির্দেশ দিয়েছেন।

রৌমারী থানার অফিসার ইন চার্জ (ওসি) আবু মো. দিলওয়ার হাসান ইনাম এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

ওসি আরও জানান, তাদের বন্ধু রাজ্জাকের প্রেমের প্রস্তাব বার বার প্রত্যাক্ষাণ করায় মমতাজকে হত্যা করা হয়েছে।

নিহত শিক্ষার্থী মমতাজ আক্তার জি‌ম্মি‌ কুড়িগ্রামের রৌমারী উপজেলার চর শৌলমারী ইউনিয়নের শাহ আলম মোল্লার মেয়ে। সে একই ইউনিয়নের পাখিউড়া দ্বিমুখী উচ্চ বিদ্যালয়ের অষ্টম শ্রেণির ছাত্রী ছিল।

আদালত সূত্রে জানা যায়, মমতাজ আক্তার জিম্মিকে রাজ্জাক নামে এক যুবক কয়েকদিন ধরে প্রেমের প্রস্তাব দিয়ে আসছিল। কিন্তু মমতাজ তাকে কোনও পাত্তা না দেওয়ায় ১৬ অক্টোবর রাজ্জাক তাদের দুই জনসহ আরও দুইজনকে নিয়ে ঘুঘুমারির চরের কাশবনের কাছে অপেক্ষা করতে থাকে। স্কুল থেকে ফেরার পথে রাজ্জাক ও দুঃখু মিয়াসহ তিনজন মমতাজকে জোর করে ধর্ষণের উদ্দেশে কাশবনে নিয়ে হাত-পা বাঁধে। এসময় মমতাজ সবাইকে বলে দেওয়ার হুমকি দিলে রাজ্জাক ও তার দুই সহযোগী তাকে হত্যা করে।

জবানবন্দিতে হামিদুল ইসলাম ও নূরনবী মিয়া জানায়, তারা ঘটনার সময় কাশবনের পাশে পাহারা দিচ্ছিল। তারা মমতাজকে হত্যায় অংশ নেয়নি।

রৌমারী থানার অফিসার ইন চার্জ (ওসি) আবু মো. দিলওয়ার হাসান ইনাম বলেন, ‘ঘটনার সঙ্গে জড়িত অপর তিন আসামিকে গ্রেফতারে পুলিশের অভিযান অব্যাহত রয়েছে। খুব শিগগির মূল হোতা রাজ্জাকসহ অপর আসামিদের আইনের আওতায় আনা হবে।’

প্রসঙ্গত, গত ১৬ অক্টোবর পরীক্ষা দিয়ে মমতাজ আর বাড়ি ফিরে আসেনি। ১৯ অক্টোবর বিকালে স্থানীয় ছেলেমেয়েরা সুখের চর গ্রামের ঘুঘুমারির চরের একটি কাঁশবনের কাছে মমতাজের বই ও ছ্যান্ডেল পড়ে থাকতে দেখে তার বাড়িতে খবর দেয়। খবর পেয়ে তার পরিবারের ও স্থানীয় লোকজন কাঁশবনের ভেতর ঢুকে হাত ও মুখ বাঁধা অবস্থায় মমতাজের লাশ পড়ে থাকতে দেখে। পরে থানায় খবর দিলে পুলিশ এসে লাশ উদ্ধার করে।

 

/জেবি/

লাইভ

টপ