কলেজে পড়ার সময়েই ব্যবসায় যুক্ত হন খুলনার সেরা করদাতা জিয়াউল

Send
খুলনা প্রতিনিধি
প্রকাশিত : ২২:৫২, নভেম্বর ১৭, ২০১৯ | সর্বশেষ আপডেট : ২৩:০৫, নভেম্বর ১৭, ২০১৯

খুলনার সেরা করদাতা হিসেবে আব্দুস সালাম মুর্শেদী এমপির কাছ থেকে ক্রেস্ট গ্রহণ করছেন জিয়াউল আহসান

ব্যবসায়ী পরিবারের সন্তান হওয়ায় ব্যবসায় ছিল মজ্জার গভীরেই। ফলে কলেজে পড়াকালীন সময় থেকেই ব্যবসায় যুক্ত হন জিয়াউল আহসান। সেই ব্যবসায় জীবনে এনে দিয়েছে সাফল্য। একজন সফল ব্যবসায়ী হিসেবে এবারও পেয়েছেন খুলনার সেরা করদাতার সম্মাননা। টানা ৫ম বারের মতো এ সম্মাননা পেলেন তিনি।

খুলনা অঞ্চলের সেরা করদাতাদের তালিকা ঘেঁটে দেখা গেছে, জিয়াউলের মেঝ ভাই শামীম আহসানও এবার এ তালিকায় রয়েছেন। শামীম এবার নিয়ে টানা ৬ষ্ঠবার সেরা করদাতার পুরস্কার পেয়েছেন। জিয়া জানান, তার বড় ভাই কামরুল আহসানও ইতোপূর্বে খুলনা সিটি করপোরেশন এলাকা থেকে টানা ৫ বার সেরা করদাতার সম্মাননা পেয়েছিলেন।

মো. জিয়াউল আহসান বলেন, তাদের ব্যবসায়ী পরিবার। তাই তিনিও কলেজ জীবন থেকেই ব্যবসার সঙ্গে সম্পৃক্ত। তার বাবা ছিলেন চাকরিজীবী। কিন্তু তার চাচারা ব্যবসায়ী। সেখান থেকেই তার ভাইয়েরা প্রথম ব্যবসায়ে সম্পৃক্ত হন। তিনি ইন্টারমেডিয়েটে পড়াকালীন সময় থেকেই নিজেদের জমিতে ঘের ব্যবসা শুরু করেন। ব্যবসায়ের পাশাপাশি হিসাব বিজ্ঞান নিয়ে অনার্স ও মাস্টার্স ডিগ্রি সম্পন্ন করেন। ২০০৫ সাল থেকে তিনি পুরোপুরি ব্যবসায়ী। তিনি বলেন, পারিবারিকভাবেই তিনি করদানে উৎসাহিত  হয়েছেন।

খুলনার দ্বিতীয় সেরা করদাতার পুরস্কার গ্রহণ করছেন জিয়াউল আহসানের ভাই শামীম আহসান।

জিয়া বলেন, নিয়মিত কর দেওয়ার ফলে ব্যবসায়ের ক্ষেত্রে বিশেষ করে আমদানি রফতানিতে ভালো করার সুযোগ তৈরি হয়। এ কারণেই তিনি ব্যবসার শুরু থেকেই নিয়মিত করদাতা। কিন্তু সেরা করদাতার স্বীকৃতি পেতে শুরু করেছেন ২০১৫ সাল থেকে। তারপর থেকে এ পর্যন্ত প্রতি বছরই সেরা করদাতার সম্মাননা পাচ্ছেন। তিনি নিজেই এখন অন্যান্য ব্যবসায়ীদেরকে নিয়মিত কর প্রদানে উৎসাহিত করছেন।

তিনি মনে করেন, নিয়মিত কর প্রদানের বিকল্প নেই। ব্যবসায়ের ক্ষেত্রে অগ্রগামী হওয়ার চেয়েও বড় বিষয় হচ্ছে কর দিলে দেশের উন্নয়ন গতিশীল হয়। উন্নয়নের স্বার্থেই তিনি ও পরিবারের অন্যান্য সদস্যরা নিয়মিত কর দেন। কর না দেওয়ার প্রবণতা দেশের উন্নয়নকে বাধাগ্রস্ত করে।

জিয়াউল আহসান বলেন, বর্তমানে তিনি বিভিন্ন যন্ত্রাংশ, স্টোন ও ওয়্যার আমদানি করেন। তিনি ছোটবেলা থেকেই স্বাধীনচেতা। তারই ধারাবাহিকতায় নিজের জমিতে ঘের করার মাধ্যমে স্বাধীনভাবে চলতে শুরু করেন। এখনও তিনি স্বাধীন চিন্তা চেতনার মাধ্যমে ব্যবসায় অগ্রসর হচ্ছেন। জিয়া জানান, দেশের বিশিষ্ট ব্যবসায়ী আব্দুস সালাম মুর্শেদী এমপি তাদের নিকটাত্মীয়।  এবার সেরাদাতার সম্মাননা নেওয়ার অনুষ্ঠানে তারা দুই ভাই আব্দুস সালাম মুর্শেদীর হাত থেকে সম্মাননা ক্রেস্ট ও সনদপত্র পেয়েছেন। এতে তারা খুবই খুশি।

মো. জিয়াউল আহসান ও মো. শামীম আহসান খুলনার আ. হামিদ হাওয়ালাদার ও হামিদা বেগমের সন্তান। জিয়াউল আহসান বটিয়াঘাটা উপজেলার কৈয়া বাজার সংলগ্ন ঘোলা এলাকা ও মো. শামীম আহসান খুলনা মহানগরীর দক্ষিণ টুটপাড়া ক্রস রোড এলাকায় বসবাস করছেন। বুধবার খুলনায় কর বিভাগ আয়োজিত এক বর্ণাঢ্য অনুষ্ঠানে তাদের সম্মাননা দেওয়া হয়। এ সহোদর খুলনা জেলার সর্বোচ্চ কর প্রদানকারী শ্রেণিতে সেরা করদাতার তালিকায় যথাক্রমে ১ ও ২ নম্বরে রয়েছেন।

 

/টিএন/

লাইভ

টপ