‘জমিদারি সাজাতে চাই না, জনগণের সেবক হতে চাই’

Send
পিরোজপুর প্রতিনিধি
প্রকাশিত : ০৯:১৩, ডিসেম্বর ০৯, ২০১৯ | সর্বশেষ আপডেট : ১১:৪৭, ডিসেম্বর ০৯, ২০১৯

মুক্ত দিবসের অনুষ্ঠানে শ ম রেজাউল করিম গৃহায়ন ও গণপূর্তমন্ত্রী শ ম রেজাউল করিম বলেছেন, ‘আমি জমিদারি সাজাতে চাই না। আমি জনগণের সেবক হতে চাই। পিরোজপুরের উন্নয়নে আমি সবার সহযোগিতা চাই।’

রবিবার (৮ ডিসেম্বর) পিরোজপুর মুক্ত দিবস উপলক্ষে আলোচনা সভায় তিনি একথা বলেন। 

মন্ত্রী বলেন, ‘মুক্তিযুদ্ধ দ্বিতীয়বার আর আসবে না। অনেকে মন্ত্রী, এমপি, প্রধানমন্ত্রী বা রাষ্ট্রপতি হতে পারবেন। কিন্তু  মুক্তিযোদ্ধা আর কেউ হতে পারবেন না। সেই গর্বের জায়গায় আপনারা (মুক্তিযোদ্ধা)। এজন্য আপনারা জাতির বীর সন্তান। এই সন্তানের জায়গাটা কেউ আর স্পর্শ করতে পারবে না। এমন একটি অনন্য উচ্চতায় আপনারা অধিষ্ঠিত আছেন।’

রেজাউল করিম বলেন, ‘আপনাদের শ্রদ্ধা জানাতেই বঙ্গবন্ধু কন্যা মুক্তিযোদ্ধাদের জন্য যত প্রকার সুযোগ-সুবিধা দেওয়া সম্ভব সব দিয়েছেন। তার লক্ষ্য মুক্তিযোদ্ধা, তাদের পরিবার এ  সন্তানদের জন্য আরও বেশি কিছু করা।’

তিনি বলেন, জিয়াউর রহমান রাষ্ট্রপতি থাকাকালে ১৯৭৯ সালের ৬ এপ্রিল সংসদে একটি আইন পাস করলেন ’৭৫ এর ১৫ আগস্টের খুনিদের বিচার করা যাবে না। সেখান থেকেই বিজয়ের চাকা পেছনে ঘোরা শুরু করলো। এ আইন করে সর্বপ্রথম খুনি রশিদকে রাজনীতিতে নিয়ে আসা হলো। জাতির জনককে যারা খুন করেছে, জিয়াউর রহমান তাদের ৬ জনকে দূতাবাসে চাকরি দিয়ে পুরস্কৃত করেছেন। এরশাদ রাষ্ট্রপতি নির্বাচনে বঙ্গবন্ধুর এক খুনিকে সামনে নিয়ে আসলেন। আর খালেদা জিয়া ১৫ ফেব্রুয়ারির নির্বাচনের পর খুনি ফারুককে সংসদে বিরোধী দলের নেতা বানালেন। 

/এসটি/এমএমজে/

লাইভ

টপ