স্কুলমাঠের মাটি কেটে নিজ জমি ভরাট, সাময়িক বরখাস্ত প্রধান শিক্ষক

Send
কুড়িগ্রাম প্রতিনিধি
প্রকাশিত : ১৮:১৭, ডিসেম্বর ১১, ২০১৯ | সর্বশেষ আপডেট : ১৮:১৭, ডিসেম্বর ১১, ২০১৯

 

বিদ্যালয়ের মাঠের মাটি কেটে নিজের পতিত জমি ভরাট করার দায়ে কুড়িগ্রামের ফুলবাড়ী উপজেলার কুরুষা ফেরুষা খন্দকার পাড়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক হাফিজুর রহমানকে সাময়িক বরখাস্ত করা হয়েছে।

বুধবার (১১ ডিসেম্বর) জেলা প্রাথমিক শিক্ষা কর্মকর্তা মো. শহীদুল ইসলাম এই তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

তিনি বলেন, ‘প্রাথমিক তদন্তে ওই শিক্ষকের বিরুদ্ধে অভিযোগের সত্যতা পাওয়া গেছে। বিদ্যালয় মাঠের মাটি কেটে নিয়ে যাওয়াসহ তার বিরুদ্ধে সরকারি আদেশ-নিষেধ অমান্যের অভিযোগও রয়েছে। তদন্তে এর সত্যতা মিলেছে। এসব অভিযোগের প্রাথমিক সত্যতা পাওয়ায় তাকে সাময়িক বরখান্ত করা হয়েছে।’

জেলা প্রাথমিক শিক্ষা কর্মকর্তা আরও বলেন, ‘অভিযুক্ত প্রধান শিক্ষকের বিরুদ্ধে বিভাগীয় মামলার ব্যবস্থা নেওয়া হচ্ছে। মামলার পর আবারও বিভাগীয় তদন্ত সাপেক্ষে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।’

এর আগে খন্দকার পাড়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক হাফিজুর রহমানের বিরুদ্ধে ওই বিদ্যালয়টির মাঠের মাটি কেটে নিয়ে যাওয়ার অভিযোগ ওঠে।

স্থানীয়রা জানান- শুধু মাঠের মাটি নয়, বিদ্যালয় প্রাঙ্গণের গাছের ডালও কেটে নিয়ে গিয়েছেন ওই প্রধান শিক্ষক। ৮ ডিসেম্বর এনিয়ে প্রতিবেদন প্রকাশের পর সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের নির্দেশে মাটি কাটা বন্ধ রাখেন প্রধান শিক্ষক। পরে অভিযোগের সত্যতা পাওয়ায় সাময়িক বরখাস্ত করা হলো তাকে।

তবে প্রধান শিক্ষক হাফিজুর রহমান বলেন, ‘বিদ্যালয়টি যে জমিতে অবস্থিত, তা একই দাগে ৪০ শতক রয়েছে। কিন্তু আমার বাবা ওই দাগ থেকে ৩৩ শতক জমি বিদ্যালয়ের নামে লিখে দিয়েছেন। বাকি ৭ শতক জমি থেকে আমি মাটি কেটেছি, যা বিদ্যালয়ের সম্পত্তি নয় বরং আমার পৈতৃক সম্পত্তি।’

 

/এএইচ/

লাইভ

টপ