প্রধান শিক্ষকের বিরুদ্ধে ধর্ষণের অভিযোগসন্তান জন্ম দিলো পঞ্চম শ্রেণির সেই ছাত্রী

Send
বরিশাল প্রতিনিধি
প্রকাশিত : ২২:৫৪, ডিসেম্বর ১৪, ২০১৯ | সর্বশেষ আপডেট : ২৩:১২, ডিসেম্বর ১৪, ২০১৯

যৌন হয়রানিপ্রধান শিক্ষক ও বখাটের ধর্ষণের শিকার পঞ্চম শ্রেণির সেই ছাত্রী (১২) মেয়ে সন্তানের জন্ম দিয়েছে। শেরেবাংলা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালের চিকিৎসকরা জানান, শনিবার (১৪ ডিসেম্বর) সিজারিয়ানের মাধ্যমে সে সন্তানের দেয়। এদিকে, মেয়েটির চিকিৎসার ব্যয়ভার থেকে শুরু করে মামলায় যথাযথ আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণের প্রতিশ্রুতি দিয়েছেন পুলিশ সুপার সাইফুল ইসলাম।

প্রসঙ্গত, মেয়েটি জানায়, বরিশালের বাকেরগঞ্জের নয় মাস আগে ভোজমহল সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক রেবা ক্লাস থেকে শিশুটিকে ডেকে নিয়ে প্রধান শিক্ষক মো. বাবুলের কক্ষে যেতে বলে। এরপর সেখানে গেলে প্রধান শিক্ষক বাবুল তাকে ধর্ষণ করে। আর বলে দেয় এ ঘটনা কাউকে জানালে তাকে প্রাণে মেরে ফেলবে। হত্যার হুমকি দিয়ে এভাবে প্রায়ই বাবুল তাকে ধর্ষণ করতো। বাইরে পাহারায় থাকতো শিক্ষক রেবা। এর মধ্যে তার বাড়ি সংলগ্ন এলাকার বাসিন্দা জুয়েলও তাকে অনেকবার ধর্ষণ করে। এ ঘটনায় মামলা করতে গেলে অভিযোগপত্র থেকে প্রধান শিক্ষকের নাম বাদ দিয়ে পুলিশ মামলা নেয় বলে মেয়েটির মা অভিযোগ করেন। পরে নয় মাসের অন্তঃসত্ত্বা অবস্থায় গত ১০ ডিসেম্বর রাতে মেয়েটিকে বরিশাল শেরেবাংলা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।

গাইনি বিভাগের চিকিৎসক ফরিদা পারভিন বলেন, ‘শনিবার দুপুর পৌনে ১২টায় সন্তান জন্ম দেয় মেয়েটি। নবজাতকের ওজন কম ‍এবং পায়খানায় সমস্যা থাকায় তাকে শিশু ওয়ার্ডে ভর্তি করে চিকিৎসা দেওয়া হচ্ছে। ধর্ষণের শিকার মেয়েটি সুস্থ আছে।’

গত বৃহস্পতিবার দুপুরে মেয়েটিকে দেখতে হাসপাতালে যান বরিশালের পুলিশ সুপার সাইফুল ইসলাম। তিনি মামলার অভিযোগপত্র থেকে কেনো অভিযুক্ত প্রধান শিক্ষকসহ অন্যদের বাদ দেওয়া হয়েছে তা খতিয়ে দেখে যথাযথ আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে জানান।

আরও পড়ুন: ধর্ষণে সন্তানসম্ভবা পঞ্চম শ্রেণির ছাত্রী: মামলায় নেই অভিযুক্ত প্রধান শিক্ষকের নাম

 

/এমএএ/

লাইভ

টপ