রাবিতে বিজয়ের প্রথম প্রহরে শ্রদ্ধা নিবেদনে নিষেধাজ্ঞা!

Send
রাবি প্রতিনিধি
প্রকাশিত : ০২:৪৪, ডিসেম্বর ১৬, ২০১৯ | সর্বশেষ আপডেট : ০২:৫১, ডিসেম্বর ১৬, ২০১৯

রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ে মহান বিজয় দিবসের শ্রদ্ধা নিবেদন প্রথম প্রহরে নয়, শুরু হবে ভোরে। এজন্য কাউকে ১৬ ডিসেম্বর প্রথম প্রহরে বিজয় দিবসের শ্রদ্ধা নিবেদন করতে দেওয়া হচ্ছে না। বিষয়টি বাংলা ট্রিবিউনকে নিশ্চিত করেছেন বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টর অধ্যাপক লুৎফর রহমান। তবে এর আগে প্রতিবছর ১৬ ডিসেম্বর প্রথম প্রহরে শ্রদ্ধা নিবেদন করা হতো বলে জানা গেছে।
অধ্যাপক লুৎফর রহমান বলেন, ‘রাষ্ট্রপতি ও প্রধানমন্ত্রী সকালে শ্রদ্ধা নিবেদন করবেন। যেহেতু রাষ্ট্রের প্রথম ব্যক্তি হচ্ছেন মহামান্য রাষ্ট্রপতি, ওনি সকালে ফুল দেবেন। তারপর থেকে সকলে দেবেন।’ এ ব্যাপারে ওপর থেকে নির্দেশনা রয়েছে বলে তিনি জানান।
এদিকে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসনের এমন নিষেধাজ্ঞায় বিস্ময় প্রকাশ করেছেন অনেকে। বিশ্ববিদ্যালয়ের সাংবাদিক সমিতির সভাপতি সুজন আলী বলেন, ‘গত বছরও আমরা দেখেছি রাষ্ট্রপতি ও প্রধানমন্ত্রী ভোরে শ্রদ্ধা নিবেদন করেছেন। কিন্তু আমরা ১৬ ডিসেম্বর প্রথম প্রহরে সংগঠনের পক্ষ থেকে শহীদ মিনারে শ্রদ্ধা নিবেদন করেছি। এ বছর শ্রদ্ধা নিবেদনের জন্য আমরা কার্যালয়ে অবস্থান করছিলাম। রাত সাড়ে ১০টার দিকে এক শিক্ষার্থীর মাধ্যমে জানতে পারি বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন বিজয় দিবসের প্রথম প্রহরে শ্রদ্ধা নিবেদন করতে নিষেধ করেছে। পরে বিশ্ববিদ্যলয় প্রক্টরের সঙ্গে যোগাযোগ করা হলে তিনি জানান রাতে শ্রদ্ধা নিবেদন করা যাবে না।’
এ বিষয়ে বিশ্ববিদ্যালয়ের ম্যানেজমেন্ট স্টাডিজ বিভাগের সিনিয়র শিক্ষক, নাট্যব্যক্তিত্ব অধ্যাপক মলয় ভৌমিক বাংলা ট্রিবিউনকে বলেন, ‘এ ধরনের কোনও সরকারি নির্দেশনা থাকলে আমরা তা গণমাধ্যমে পেতাম। আমি মনে করি, সরকারি নির্দেশনা থাকলে সেটি গণমাধ্যমে আসবে। তা না এলে অন্য কেউ যদি এ ধরনের নির্দেশনা দেন তবে তা সরকারকে অবমাননা করা হবে।’

বিজয় দিবসের প্রথম প্রহরে রুয়েট ভিসির শ্রদ্ধা নিবেদন  রুয়েটে শ্রদ্ধা নিবেদন
এদিকে বিজয় দিবসের প্রথম প্রহরে রাজশাহী প্রকৌশল ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের (রুয়েট) কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে শ্রদ্ধা নিবেদন করেছেন বিশ্ববিদ্যালয়ের ভিসি রফিকুল ইসলাম সেখ। এ সময় বিশ্ববিদ্যালয়ের রেজিস্ট্রার, শিক্ষক সমিতির সাধারণ সম্পাদক ও প্রশাসনের কর্মকর্তা-কর্মচারীরা উপস্থিত ছিলেন।
প্রথম প্রহরে শ্রদ্ধা নিবেদন না করার জন্য সরকারের পক্ষ থেকে কোনও ধরনের নির্দেশনা ছিল কিনা জানতে চাইলে রুয়েটের জনসংযোগ কর্মকর্তা এএফএম মাহমুদুর রহমান দীপন বলেন, ‘আমরা এ ধরনের কোনও নির্দেশনা পাইনি। নির্দেশনা দেওয়া হলে অবশ্যই উপাচার্য ও রেজিস্ট্রার তা জানতেন। কিন্তু তারা নিজেরাই প্রথম প্রহরে শ্রদ্ধা নিবেদন করেছেন।’

 

/ওআর/

লাইভ

টপ