সৎ মাকে হত্যা: ২০ বছর পলাতক থাকার পর গ্রেফতার

Send
চাঁদপুর প্রতিনিধি
প্রকাশিত : ২২:৫৬, জানুয়ারি ১৫, ২০২০ | সর্বশেষ আপডেট : ২২:৫৯, জানুয়ারি ১৫, ২০২০

গ্রেফতারের প্রতীকী ছবিচাঁদপুরের কচুয়ায় সৎ মাকে হত্যা করে ২০ বছর পলাতক থাকার পর মামুনুর রশিদ (৪০) নামের এক ব্যক্তিকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। এ হত্যা মামলায় তার যাবজ্জীবন সাজা হয়েছিল। সোমবার (১৪ জানুয়ারি) রাতে গোপন তথ্যের ভিত্তিতে তাকে গ্রেফতার করে চাঁদপুর জেল হাজতে পাঠানো হয়। বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন কচুয়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মো. ওয়ালি উল্লা।

মামলা সূত্রে জানা যায়, উপজেলার খিলমেহের গ্রামের আমিনুল ইসলামের দ্বিতীয় স্ত্রী লাকী বেগমকে প্রায় ২০ বছর আগে প্রকাশ্যে কুপিয়ে হত্যা করা হয়। ওই ঘটনায় আমিনুল ইসলাম বাদী হয়ে কচুয়া থানায় মামলা করেন। মামলার পর টানা ২০ বছর আসামি মামুনুর রশিদ পলাতক ছিলেন।

কচুয়া থানার এসআই লিলুশর রহমান বলেন, ‘হত্যার ঘটনাটি ২০০০ সালের মার্চ মাসের। আসামি মামুনুর রশিদের বাবা আমিনুল ইসলাম প্রথম স্ত্রী থাকার পরও দ্বিতীয় বিয়ে করে সেই বউকে বাড়িতে আনেন। এ বিষয়টি তার ছেলে মেনে নিতে না পারায় প্রকাশ্যে তার সৎ মাকে কুপিয়ে হত্যা করে পালিয়ে যায়। এরপর এ ঘটনায় কচুয়া থানায় হত্যা মামলা দায়ের করা হলে ওই মামলায় আদালত তাকে যাবজ্জীবন কারাদণ্ড দেন।’

তিনি জানান, আসামি জানিয়েছে- গত ২০ বছর দেশের বিভিন্ন স্থানে তিনি পালিয়ে ছিলেন। গত ছয় মাস ধরে মাঝে মাঝে বাড়িতে আসতেন। সোমবার গ্রেফতার করার তিন দিন আগে আসামি মামুন বাড়িতে আসেন। আমরা খবর পেয়ে ওই এলাকায় অভিযান চালিয়ে তাকে গ্রেফতার করে আদালতে সোপর্দ করি। বর্তমানে তিনি চাঁদপুর জেলা কারাগারে রয়েছেন।

 

 

 

 

/ওআর/

লাইভ

টপ