সাবেক ছাত্রলীগ নেতার বাসা থেকে অস্ত্র উদ্ধার, চার মামলা

Send
ঝালকাঠি প্রতিনিধি
প্রকাশিত : ০০:০১, জানুয়ারি ১৭, ২০২০ | সর্বশেষ আপডেট : ০০:০৪, জানুয়ারি ১৭, ২০২০

 

ঝালকাঠিতে জেলা ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি হাদিসুর রহমান মিলনকে চাঁদাবাজির মামলায় গ্রেফতার করা হয়েছে। তার বাসা থেকে দুই দফায় অস্ত্রও উদ্ধার করেছে পুলিশ।  তার বিরুদ্ধে চারটি মামলা দায়ের করা হয়েছে।

জেলা ছাত্রলীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক জামাল হোসেন মিঠু বলেন, ‘২০১১ সালের নভেম্বর থেকে ২০১৫ সাল পর্যন্ত মিলন জেলা সভাপতি ও আমি সাধারণ সম্পাদক ছিলাম।’

ঝালকাঠি সদর থানার ওসি মো. খলিলুর রহমান জানান,  ঝালকাঠি সদর পৌরসভার ১ নম্বর ওয়ার্ড যুবলীগের নেতা ঠিকাদার আবুল কালাম দায়ের করা চাঁদাবাজির মামলায় মঙ্গলবার রাতে শহরের ডাক্তারপট্টি এলাকার বাসায় অভিযান চালিয়ে ১৫টি দেশীয় ধারালো অস্ত্রসসহ হাদিসুর রহমান মিলনকে গ্রেফতার করা হয়। পরে তার আরও পাঁচ সহযোগীকেও গ্রেফতার করা হয়। অস্ত্র উদ্ধারের ঘটনায় পুলিশ বাদী হয়ে একটি মামলা দায়ের করে। বুধবার (১৫ জানুয়ারি) মিলনকে আদালতে সোপর্দ করলে তিন দিনের রিমান্ডের আদেশ দেন আদালত। বাকি আসামিদের আদালত কারাগারে পাঠানোর নির্দেশ দেন।  স্বীকারোক্তির পর বুধবার রাতে মিলনকে সঙ্গে নিয়ে পুলিশ দ্বিতীয় দফায় অভিযান চালিয়ে তার বাসায় লুকানো অবস্থায়  তাজাগুলিসহ আগ্নেয়াস্ত্র উদ্ধার করে। এ ঘটনায় মিলনের বিরুদ্ধে অস্ত্র আইনে সদর থানায় আরও একটি মামলা দায়ের করে পুলিশ। তার আগে বুধবার বিকালে এলজিইডির হিসাব রক্ষক স্বপন কুমার বাদী হয়ে তাকে মারধরের অভিযোগে মিলনকে আসামি করে ঝালকাঠি সদর থানায় একটি মামলা দায়ের করেন।

মামলার তদন্তকারী এসআই গাউসুল আজম বলেন, ‘আমি এখনও মামলার কাগজপত্র দেখতে পারিনি। তাই এ সম্পর্কে কিছু বলতে পারবো না। আদালতের নির্দেশে তিন দিনের রিমান্ডে আরও অস্ত্র থাকার কথা স্বীকার করলে মিলনের বাসা থেকে দুটি দেশীয় পাইপ গান ও দুই রাউন্ড তাজা গুলি উদ্ধার করা হয়। এ ঘটনায় এসআই দেলোয়ার বাদী হয়ে মিলনের বিরুদ্ধে  অস্ত্র আইনে আরও একটি মামলা দায়ের করেন। এ নিয়ে মিলনের বিরুদ্ধে চারটি মামলা দায়ের করা হয়েছে। ’ 

 

/এনআই/

লাইভ

টপ