স্ত্রী-শাশুড়িসহ ৪ জনকে হত্যার পর আত্মহত্যা

Send
মৌলভীবাজার প্রতিনিধি
প্রকাশিত : ১০:৫৬, জানুয়ারি ১৯, ২০২০ | সর্বশেষ আপডেট : ১৭:৪৮, জানুয়ারি ১৯, ২০২০

 

হত্যাকাণ্ডের শিকার চার জনের মরদেহ

মৌলভীবাজারের বড়লেখা উপজেলার শাহবাজপুর ইউনিয়নের পাল্লাতল চা বাগানে মাদকাসক্ত এক ব্যক্তি তার স্ত্রী, শাশুড়ি ও দুই প্রতিবেশীকে হত্যার পর নিজেও গলায় ফাঁস লাগিয়ে আত্মহত্যা করেছে। পুলিশ জানায়, ঘাতকের নাম নির্মল (৪০), সে ছিল মদ্যপ।

হত্যাকাণ্ডের শিকার চার জন হলেন−নির্মল কর্মকারের স্ত্রী জলি ব্যানার্জি (৩৫), শাশুড়ি লক্ষ্মী ব্যানার্জি (৫০), পাশের ঘরের বসন্ত ভৌমিক (৫৫), বসন্তের মেয়ে শিউলি ভৌমিক (১৬)।

রবিবার (১৯ জানুয়ারি) ভোর রাতে পাল্লাতল চা বাগানে এ ঘটনা ঘটেছে।

এছাড়া নির্মলের দায়ের কোপে গুরুতর আহত হয়েছেন বসন্ত ভৌমিকের স্ত্রী কানন ভৌমিক। তাকে সিলেট এমএজি ওসমানী মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। 

মৌলভীবাজারের পুলিশ সুপার মো. ফারুক আহমেদ এ তথ্য নিশ্চিত করেন।

স্থানীয়রা জানায়, নির্মল মদ্যপ অবস্থায় প্রথমে তার স্ত্রী জলিকে এলোপাতাড়ি কুপিয়ে হত্যা করে। এসময় শাশুড়ি এগিয়ে এলে তাকেও কুপিয়ে হত্যা করা হয়। এরপর দুই প্রতিবেশী এগিয়ে এলে তাদেরও কুপিয়ে মারাত্মক জখম করায় তারাও ঘটনাস্থলে মারা যান। চার জনের মৃত্যু নিশ্চিত হওয়ার পর নির্মল বসতঘরে গলায় ফাঁস দিয়ে আত্মহত্যা করে।

চা বাগানের ব্যবস্থাপক মাহবুবুর রহমান জানান, পারিবারিক কলহের জের ধরে নির্মল নামের ওই ব্যক্তি চার জনকে ধারালো অস্ত্র দিয়ে কুপিয়ে হত্যা করে। নির্মলসহ পাঁচ জনই চা বাগানের শ্রমিক।

তিনি বলেন, ‘চা শ্রমিক নির্মল মাদকাসক্ত ছিল। তার বাড়ি ওই এলাকায় নয়। বছরখানেক আগে জলির সঙ্গে তার বিয়ে হয়। তারপর থেকে সে শ্বশুরবাড়িতেই থাকতো।

বড়লেখা থানার ওসি ইয়াসিনুল হক বলেন, ‘পাঁচ জনের মৃত্যুর খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে গিয়ে পুলিশ মরদেহ উদ্ধার করে।’

/এপিএইচ/এমএমজে/

লাইভ

টপ