গুঁড়ি গুঁড়ি বৃষ্টিতে শীত বেড়েছে নীলফামারীতে

Send
নীলফামারী প্রতিনিধি
প্রকাশিত : ১০:৩৫, জানুয়ারি ২২, ২০২০ | সর্বশেষ আপডেট : ১১:২৬, জানুয়ারি ২২, ২০২০

প্রথম দফা মৃদু শৈত্যপ্রবাহের পর গত কয়েকদিনে তাপমাত্রা বেড়েছিল খানিকটা। এরপর গত দু’দিন আগে হঠাৎ গুঁড়ি গুঁড়ি বৃষ্টিতে দেশের উত্তরের সীমান্তবর্তী জেলা নীলফামারীতে ফের শীত বেড়েছে। এতে বিপাকে পড়েছে খেটে খাওয়া মানুষ।
বুধবার (২২ জানুয়ারি) সকালে নীলফামারীতে সর্বনিম্ন তাপমাত্রা রেকর্ড করা হয়েছে ৮ দশমিক ৮ ডিগ্রি সেলসিয়াস আর সর্ববোচ্চ তাপমাত্রা রেকর্ড করা হয় ১৮ ডিগ্রি সেলসিয়াস। মঙ্গলবার সর্বনিম্ন তাপমাত্রা রেকর্ড করা হয়েছিল ৮ দশমিক ২ ডিগ্রি সেলসিয়াস।
জেলার শহরের নিউবাবু পাড়ার ম্যাচে রান্নার কাজে যেতে পারেনি আলেয়া বেগম (৬৫)। তিনি বলেন, ঠান্ডায় পানি নাড়তে পারছি না। হাত-পা ঝিম ঝিম করে। ওই কাজ করে পরিবাবের পাঁচ জন মানুষ খাই। ঠান্ডায় কাজে যেতে না পারায়, এখন কীভাবে সংসার চালাবো ভেবে পাচ্ছি না।
শহরের কিচেন মার্কেটের পাহারাদার সুধীর চন্দ্র রায় (৬৫) জানান, দু’দিন আগে কুয়াশা কম ছিল। মোটামুটি গরম পড়েছিল। কিন্তু হঠাৎ করে ফের শীত পড়তে শুরু করেছে। সকাল থেকে কনকনে ঠান্ডা বাতাস বইছে। ঠান্ডায় ডিউটি করাই দায় হয়ে পড়েছে। দুপুর গড়িয়েও মিলছে না সূর্যের দেখা।
সৈয়দপুর বিমানবন্দরের আবহাওয়া কার্যালয়ের সহকারী আবহাওয়া কর্মকর্তা মো. লোকমান হাকিম বলেন, ‘মৃদু শৈত্যপ্রবাহ চলছে। সে কারণে শীতের তীব্রতা আরও বেড়েছে। ফলে খেটে খাওয়া মানুষ হাত-পা গুটিয়ে আগুন তাপিয়ে দিন পার করছে। হাতে কাজ না থাকায় বিপাকে পড়েছে বিভিন্ন শ্রেণিপেশার মানুষ।’
মো. লোকমান হাকিম আরও বলেন, ‘তাপমাত্রা আরও কমার সম্ভাবনা রয়েছে। এটি দেশের দ্বিতীয় মৃদু শৈত্যপ্রবাহ। জেলায় আগামী দু’দিনে শৈত্যপ্রবাহ বয়ে যেতে পারে বলে ধারণা করা হচ্ছে।’

/এআর/এমএমজে/

লাইভ

টপ