প্রজ্ঞাপনের ৭ মাসেও সিলেটে চালু হয়নি শ্রম আদালত

Send
মৌলভীবাজার প্রতিনিধি
প্রকাশিত : ১০:৫১, জানুয়ারি ২৬, ২০২০ | সর্বশেষ আপডেট : ১১:১০, জানুয়ারি ২৬, ২০২০

চা শ্রমিকসরকারি প্রজ্ঞাপন জারির সাত মাস পরও সিলেটে চালু হয়নি শ্রম আদালতের কার্যক্রম। এতে চরম ভোগান্তির শিকার হচ্ছেন লাখ লাখ শ্রমিক। নানা সমস্যা ও মামলা নিয়ে সিলেট বিভাগের শ্রমিকদের দ্বারস্থ হতে হচ্ছে চট্টগ্রাম শ্রম আদালতে। সংশ্লিষ্ট্র সূত্রে জানা গেছে, স্থান নির্ধারণ না হওয়ায় আদালত চালু হয়নি।

শ্রমিক সংগঠনের নেতারা জানান, গত বছরের ২৪ জুন প্রজ্ঞাপন জারির পর থেকে চট্টগ্রামের দ্বিতীয় শ্রম আদালতের এখতিয়ার বহির্ভূত হওয়ায় সিলেট বিভাগের কোনও মামলা গ্রহণ করা হয়নি।পরে শ্রম মন্ত্রণালয়ের নির্দেশে গত বছরের নভেম্বর থেকে চট্টগ্রাম শ্রম আদালত অতিরিক্ত দায়িত্ব হিসেবে সিলেট শ্রম আদালতের মামলা গ্রহণ করছেন।

চা-শ্রমিক সংঘের মৌলভীবাজার জেলা কমিটির আহ্বায়ক রাজদেব কৈরি বলেন, ‘দৈনিক ১০২ টাকা মজুরিতে আমাদের জীবিকা নির্বাহ করতে হয়। কোনও কারণে চাকরিতে সমস্যা হলে শ্রম আদালতের জন্য চট্টগ্রামে যাওয়া আমাদের পক্ষে সম্ভব হয় না। ফলে আমরা আইনি প্রতিকার চাইতেও পারি না। জরুরিভাবে সিলেট শ্রম আদালত চালু করা দরকার।’

মৌলভীবাজার জেলা হোটেল শ্রমিক ইউনিয়নের সভাপতি মোস্তফা কামাল বলেন, ‘আমাদের দীর্ঘদিনের দাবির পরিপ্রেক্ষিতে সিলেটে শ্রম আদালত চালুর ঘোষণা দেওয়া হলেও এর কার্যক্রম চালু হয়নি।’

বাংলাদেশ ট্রেড ইউনিয়ন সংঘ মৌলভীবাজার জেলা কমিটির সাধারণ সম্পাদক রজত বিশ্বাস বলেন,হবিগঞ্জ জেলায় অনেক শিল্পকারখানা গড়ে উঠেছে এবং মৌলভীবাজারের শেরপুরে শ্রীহট্ট ইকনোমিক জোনের কার্যক্রমও শুরু হচ্ছে। তাই  শ্রীমঙ্গলে শ্রম আদালত চালু করা যৌক্তিক।

এ বিষয়ে শ্রীমঙ্গল কলকারখানা ও প্রতিষ্ঠান অধিদফতরের উপ মহাপরিদর্শক মাহবুবুল হাসান বলেন, ‘শ্রম আদালত চালু হলে শ্রমিকরা ন্যায্য অধিকার ফিরে পাবে। মৌলভীবাজারে না হলে সিলেটে হলেও শ্রমিকদের ভোগান্তি কমবে। দ্রুত শ্রম আদালত স্থাপনের বিষয়টি ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের নজরদারিতে আসবে বলে আশা করি।’

শ্রীমঙ্গল শ্রম অধিদফতরের  সিলেট বিভাগের উপ-পরিচালক নাহিদুল ইসলাম বলেন, ‘প্রজ্ঞাপন জারির প্রায় সাত মাস পার হলেও এখনও চালু হয়নি শ্রম আদালত। মন্ত্রণালয় থেকে জানানো হয়েছে, লোকবল নিয়োগের কার্যক্রম চলছে। সিলেট নাকি শ্রীমঙ্গল কোথায় আদালত চালু হবে সে স্থান নির্ধারণ হয়নি। আশঅ করা হচ্ছে সিলেটে শিগগিরই শ্রম আদালকের কাজ চালু হবে।’

 

 

 

 

/এসটি/

লাইভ

টপ