যৌতুক না দেওয়ায় গৃহবধূর মাথা ন্যাড়া, গ্রেফতার ১

Send
গাজীপুর প্রতিনিধি
প্রকাশিত : ০৯:৫৮, ফেব্রুয়ারি ১৮, ২০২০ | সর্বশেষ আপডেট : ১১:৩৮, ফেব্রুয়ারি ১৮, ২০২০

 

যৌতুকের টাকা না পেয়ে গৃহবধূর মাথা ন্যাড়া করার অভিযোগযৌতুকের টাকা না পেয়ে গৃহবধূর মাথা ন্যাড়া করে দেওয়ার অভিযোগ উঠেছে স্বামী, শাশুড়ি ও দুই মামা শ্বশুরের বিরুদ্ধে। এ ঘটনায় গৃহবধূ বাদী হয়ে রবিবার (১৬ ফেব্রুয়ারি) শ্রীপুর থানায় একটি মামলা করেন। অভিযোগের পরিপ্রেক্ষিতে অভিযুক্ত এক মামা শ্বশুরকে গ্রেফতার করা হয়েছে। বাকি আসামিরা এলাকা ছেড়ে পালিয়েছে বলে জানিয়েছে পুলিশ।

যৌতুক দাবিতে নির্যাতন মামলার আসামিরা হলো স্বামী সাঈম আহমেদ (২৬), শাশুড়ি জাহানারা বেগম (৪৫), মামা শ্বশুর আতাবুর রহমান (৪২) ও হাবিবুর রহমান (৩৮)। পুলিশ আতাবুর রহমানকে গ্রেফতার করে সোমবার (১৭ ফেব্রুয়ারি) আদালতের মাধ্যমে জেল হাজতে পাঠায়।

শ্রীপুর থানার উপপরিদর্শক (এসআই) এখলাছ উদ্দিন নির্যাতনের শিকার গৃহবধূর বরাত দিয়ে জানান, প্রায় পাঁচ বছর আগে গাজীপুর ইউনিয়নের ফরিদপুর গ্রামের সালেহ আহমেদের ছেলে সাঈম আহমেদের সঙ্গে ওই গৃহবধূর বিয়ে হয়। তাদের ঘরে আড়াই বছরের এক ছেলে সন্তান রয়েছে।

গৃহবধূ পুলিশকে জানিয়েছেন, ছেলের জন্মের মাসখানেক পর থেকেই স্বামী সাঈম পরিবারের লোকজনের প্ররোচনায় দুই লাখ টাকা যৌতুক দাবি করে আসছিল। গৃহবধূ বাবার বাড়ি থেকে যৌতুক এনে দিতে অপারগতা জানালে স্বামী, শাশুড়ি ও দুই মামা শ্বশুর প্রায়ই তাকে শারীরিক ও মানসিকভাবে নির্যাতন করতো। সর্বশেষ গত ৯ ফেব্রুয়ারি স্বামীসহ তার পরিবারের লোকজন গৃহবধূকে মারধর করে এবং ব্লেড দিয়ে মাথা ন্যাড়া করে ঘরে আটকে রাখে। (১২ ফেব্রুয়ারি) বুধবার কৌশলে ছেলে মোয়াজ্জেমকে নিয়ে বাবার বাড়িতে পালিয়ে যান ওই গৃহবধূ। পরে এ ঘটনায় তিনি মামলা করেন।

উপপরিদর্শক এখলাছ উদ্দিন বলেন, মামলার পর ওইদিন রাতেই একজন আসামিকে গ্রেফতার করে জেল হাজতে পাঠানো হয়েছে। বাকিরা এলাকা ছেড়ে পালিয়েছে। তাদের গ্রেফতারে অভিযান চলছে।

/টিটি/এমএমজে/

লাইভ

টপ