‘প্রেমিকের’ সঙ্গে বাড়ি ফেরার সময় সংঘবদ্ধ ধর্ষণ

Send
সাভার প্রতিনিধি
প্রকাশিত : ১৫:৪১, ফেব্রুয়ারি ২৫, ২০২০ | সর্বশেষ আপডেট : ১৯:৪৯, ফেব্রুয়ারি ২৫, ২০২০

ধর্ষণআশুলিয়ায় এক পোশাক শ্রমিককে (১৯) সংঘবদ্ধ ধর্ষণের অভিযোগ উঠেছে। এ ঘটনায় জড়িত সন্দেহে দুজনকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। গত রবিবার (২৩ ফেব্রুয়ারি) রাতে নরসিংহপুর এলাকায় আরিফের বাড়িতে এ ঘটনা ঘটে।

গ্রেফতারকৃতরা হলো আশুলিয়ার নরসিংহপুর এলাকার মৃত জলিল সরকারের ছেলে রানা সরকার (২৫) ও একই এলাকার মৃত জামাল মোল্লার ছেলে আরিফ হোসেন (২৯)।

এ ঘটনায় মূল অভিযুক্ত পোশাক শ্রমিক সামিউল ইসলাম মৃধা ওরফে সোহান (২২) পলাতক আছে। সে আশুলিয়ার নরসিংহপুর এলাকার মঞ্জুরুল ইসলামের বাড়ির ভাড়াটিয়া। তার বাড়ি নাটোর জেলার লালপুরে।

মামলা সূত্রে জানা যায়, আশুলিয়ায় একটি বাড়িতে ভাড়া থেকে স্থানীয় একটি পোশাক কারখানায় কাজ করেন অভিযোগকারী। পোশাক শ্রমিক সামিউল ইসলাম মৃধা ওরফে সোহানের সঙ্গে তার প্রেমের সম্পর্ক ছিল। গত রবিবার রাতে ওই নারী নরসিংহপুর এলাকায় তার বান্ধবীর বাড়িতে বেড়াতে যান। রাত ৮টার দিকে বাসায় ফেরার পথে সামিউল তাকে একই এলাকার আরিফের বাসায় নিয়ে যায়। সেখানে সামিউল, তার বন্ধু আরিফ ও রানা ওই নারীকে ধর্ষণ করে। এ সময় ওই নারী চিৎকার করলে তাকে মেরে ফেলার হুমকি দেয় তারা। রাত সাড়ে ১০টার দিকে ওই নারীকে ভয়ভীতি দেখিয়ে কক্ষ থেকে বের করে দেওয়া হয়।

ওই রাতেই আশুলিয়া থানায় একটি লিখিত অভিযোগ দায়ের করেন এই নারী। পরে সোমবার রাতে অভিযান চালিয়ে পুলিশ ঘটনার সঙ্গে জড়িত থাকার দায়ে দুই জনকে গ্রেফতার করে।

গ্রেফতারকৃতদের মধ্যে রানা সরকার আগেরও একটি ধর্ষণ মামলার আসামি। সে ওই এলাকার ইয়াপুর ইউনিয়নের ৬ নম্বর ওয়ার্ড মেম্বার আবু তাহের মৃধার ম্যানেজার। আবু তাহের মৃধা জানান, ধর্ষণের অভিযোগে তিনি রানাকে বের করে দিয়েছেন।

এ ব্যাপারে আশুলিয়া থানার পরিদর্শক (ইন্টিলিজেন্স) ফজলুল হক জানান, নারী শ্রমিককে উদ্ধার করে স্বাস্থ্য পরীক্ষার জন্য ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। এ ঘটনায় মামলা দায়ের করা হয়েছে। গ্রেফতার করা হয়েছে দু’জনকে।

/এফএস/এমওএফ/

লাইভ

টপ