পেঁয়াজ রফতানিতে নিষেধাজ্ঞা তুলে নিলো ভারত

Send
হালিম আল রাজি, হিলি
প্রকাশিত : ২৩:২৬, ফেব্রুয়ারি ২৬, ২০২০ | সর্বশেষ আপডেট : ০১:২৩, ফেব্রুয়ারি ২৭, ২০২০






পেঁয়াজ

অবশেষে পেঁয়াজ রফতানিতে নিষেধাজ্ঞা তুলে নিয়েছে ভারত। বুধবার (২৬ ফেব্রুয়ারি) ভারতের স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহর সভাপতিত্বে এক আন্তঃমন্ত্রণালয়ের বৈঠকে এ সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। দেশটির খাদ্য ও ভোক্তা অধিকার বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের মন্ত্রী রাম বিলাস পাসোয়ান এ তথ্য নিশ্চিত করে টুইটারে পোস্ট দিয়েছেন। আগামী দু-একদিনের মধ্যে এ বিষয়ে বিজ্ঞপ্তি জারি হতে পারে।  ভারতের বিভিন্ন গণমাধ্যমেও বিষয়টি প্রকাশিত হয়েছে।

ভারতের সংবাদ মাধ্যম টাইমস অব ইন্ডিয়া ও দ্য ইকোনোমিক টাইমস জানিয়েছে, বাম্পার ফলন হওয়ার কারণে দেশটিতে  রবি মৌসুমে উৎপাদিত পেঁয়াজের ব্যাপক দরপতন হয়েছে। গত বছরের মার্চে যেখানে ২৮ দশমিক ৪ লাখ মেট্রিক টন পেঁয়াজ উৎপাদিত হয়েছে সেখানে এবছর একই সময়ে বাজারে আসবে ৪০ লাখ টনের বেশি। আর দেশটির খাদ্য মন্ত্রণালয়ের সূত্র বলছে, আগামী এপ্রিলে পেঁয়াজ উৎপাদন হতে পারে ৮৬ লাখ মেট্রিক টন যা গতবছরে হয়েছিল ৬১ লাখ মেট্রিক টন। ফলে কৃষকের স্বার্থে পেঁয়াজ রফতানির সিদ্ধান্ত নিতেই আন্তঃমন্ত্রণালয়ের বৈঠকটি অনুষ্ঠিত হয়। এ বৈঠকের সিদ্ধান্ত বৈদেশিক বাণিজ্য বিষয়ক মহাপরিচালককে জানিয়ে দেওয়া হয়েছে। তিনি এ ব্যাপারে বিজ্ঞপ্তি জারি করার পর আনুষ্ঠানিকভাবে পেঁয়াজ রফতানি শুরু করবে ভারত। 

 

পেঁয়াজ রফতানিতে নিষেধাজ্ঞা তুলে নেওয়া নিয়ে ভারতের খাদ্যমন্ত্রী রাম বিলাস পাসোয়ানের টুইটারে পোস্ট।

এদিকে এ খবরে স্বস্তি ফিরে এসেছে হিলি স্থলবন্দরের পেঁয়াজ আমদানিকারকদের মধ্যে। তারা বলছেন, হিলিবন্দর দিয়ে ভারত থেকে কয়েকদিনের মধ্যেই পেঁয়াজ আমদানি শুরু করবেন তারা। এতে দেশের বাজারে পেঁয়াজ নিয়ে যে অস্থিতিশীলতা শুরু হয়েছে সে সমস্যা অচিরেই কেটে যাবে।

হিলি স্থলবন্দরের পেঁয়াজ আমদানিকারক মোবারক হোসেন বাংলা ট্রিবিউনকে বলেন, ভারতের পেঁয়াজ রফতানিতে নিষেধাজ্ঞা প্রত্যাহারের খবরটি বুধবার সন্ধ্যার দিকে ভারতীয় রফতানিকারকরা আমাদের জানিয়েছেন। তারা আরও জানিয়েছেন, আদেশটি এখনও বিজ্ঞপ্তি আকারে প্রকাশ করা হয়নি, এতে দুই দফতরের স্বাক্ষর বাকি রয়েছে। আগামীকাল বৃহস্পতিবার বা শুক্রবারের মধ্যে স্বাক্ষর হয়ে গেলে রবিবার এ বিষয়ে নির্দেশনা জারি করা হবে।

তিনি আরও বলেন, রবিবার বা সোমবার থেকে বন্দর দিয়ে ভারত থেকে পেঁয়াজ আমদানি শুরু হতে পারে। আর বন্দর দিয়ে পেঁয়াজ আমদানি শুরু হলে দেশের বাজারে পেঁয়াজের আকাশচুম্বি দাম স্বাভাবিক পর্যায়ে নেমে আসবে।

প্রসঙ্গত, অভ্যন্তরীণ বাজারে পেঁয়াজের সংকট ও দাম বৃদ্ধির কারণে গত বছরের ২৯ শে সেপ্টেম্বর বাংলাদেশে পেঁয়াজ রফতানি একেবারে বন্ধ করে দেয় ভারত। এরপর দেশের বাজারে পেঁয়াজ নিয়ে অস্থিতিশীলতা তৈরি হয়। যার প্রভাব এখনও কাটেনি।

আগের সংবাদ: 

অবশেষে আসছে ভারতীয় পেঁয়াজ?

 

 

 

 

/টিএন/

লাইভ

টপ