বরিশাল বিশ্ববিদ্যালয়ে ৫ শিক্ষার্থীকে কুপিয়ে জখমের ঘটনায় বহিষ্কার ২

Send
বরিশাল প্রতিনিধি
প্রকাশিত : ২১:৫১, ফেব্রুয়ারি ২৭, ২০২০ | সর্বশেষ আপডেট : ২২:১৯, ফেব্রুয়ারি ২৭, ২০২০




(বাম দিক থেকে) বহিষ্কার হওয়া শিক্ষার্থী শান্ত ও নাভিদ
বরিশাল বিশ্ববিদ্যালয়ে (ববি) আবাসিক হলের কক্ষ বদল নিয়ে সৃষ্ট দ্বন্দ্বের জেরে পাঁচ শিক্ষার্থীকে কুপিয়ে জখমের ঘটনায় দুই শিক্ষার্থীকে সাময়িক বহিষ্কার করেছে কর্তৃপক্ষ। পাশাপাশি ঘটনার তদন্তে গঠিত তিন সদস্যের কমিটিকে আগামী পাঁচ কর্মদিবসের মধ্যে প্রতিবেদন জমা দেওয়ার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। বৃহস্পতিবার (২৭ ফেব্রুয়ারি) রাতে বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টর ড. সুব্রত কুমার দাস এসব তথ্য জানান।

বহিষ্কার হওয়া শিক্ষার্থীরা হলেন বাংলা বিভাগের ২০১৮-১৯ শিক্ষাবর্ষের তাহমিদ জামান নাভিদ এবং ভূতত্ত্ব ও খনি বিদ্যার ২০১৭-১৮ শিক্ষাবর্ষের আল সামাদ শান্ত।

ঘটনার তদন্তে তঠিত কমিটির সদস্যরা হলেন পদার্থ বিজ্ঞান বিভাগের সহকারী অধ্যাপক ড. খোরশেদ আলম, শের-ই বাংলা হলের আবাসিক শিক্ষক সাদমান শাকিব বিন রহমান এবং সহকারী প্রক্টর সুপ্রভাত হালদার।

এর আগে, শের-ই বাংলা হলে শিক্ষার্থী নির্যাতনের ঘটনায় ২৬ ফেব্রুয়ারি একটি পৃথক তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়। তিন সদস্যের ওই কমিটিকেও পাঁচ কর্মদিবসের মধ্যে প্রতিবেদন জমা দেওয়ার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। ওই কমিটির আহ্বায়ক শের-ই বাংলা হলের আবাসিক শিক্ষক ইয়াসিফ আহমদ ফয়সাল, একই হলের আবাসিক শিক্ষক সদস্য মো. সোহেল রানা এবং সাইফুল ইসলাম।

প্রসঙ্গত, গত ২৫ ফেব্রুয়ারি রাত ১০টার দিকে শের-ই বাংলা হলের ৪০১৬ নম্বর কক্ষের আবাসিক ছাত্র মো. শাহজালালকে তার কক্ষ থেকে ডেকে ১০০১ নম্বর কক্ষে নেওয়া হয়। সেখানে হাত-পা ও মুখ বেঁধে নির্যাতনের অভিযোগ করেন শাহজালাল। একই দিন বিকালে পাঁচ শিক্ষার্থীকে কুপিয়ে জখম করা হয়। তারা শের-ই বাংলা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছেন। এই পৃথক দুই ঘটনার প্রতিবাদে এবং ঘটনার সঙ্গে জড়িতদের বিচার দাবিতে বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা ক্যাম্পাসে মানববন্ধন করেন। পরে বৃহস্পতিবার রাতে বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ জরুরি বৈঠক করে দুই শিক্ষার্থীকে সাময়িক বহিষ্কার ও ঘটনা তদন্তে কমিটি গঠন করেন।

/টিটি/

লাইভ

টপ