২ মার্চ মাঠে নামবো, দেখবো মশকনিধন কর্মীরা কী করেন: মেয়র আতিকুল

Send
গোপালগঞ্জ প্রতিনিধি
প্রকাশিত : ১৯:৩৭, ফেব্রুয়ারি ২৯, ২০২০ | সর্বশেষ আপডেট : ২০:৩০, ফেব্রুয়ারি ২৯, ২০২০

গোপালগঞ্জের টুঙ্গিপাড়ায় বঙ্গবন্ধুর সমাধি সৌধে শ্রদ্ধা নিবেদনের পর সাংবাদিকদের সঙ্গে কথা বলেন ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশনের নবনির্বাচিত মেয়র মো. আতিকুল ইসলাম।

মশকনিধন একটি বড় ধরনের চ্যালেঞ্জ উল্লেখ করে ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশনের নবনির্বাচিত মেয়র মো. আতিকুল ইসলাম বলেছেন, মশা অতি ক্ষুদ্র প্রাণী হলেও এটি নিয়ন্ত্রণ আমাদের জন্য একটি বড় চ্যালেঞ্জ। মশকনিধনে সব কাউন্সিলরকে সঙ্গে নিয়ে এলাকায় এলাকায় পরিষ্কার-পরিচ্ছন্নতা অভিযান চালানো হবে। ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশনের দায়িত্ব নেবো পরে, তবে আগামী ২ মার্চ (সোমবার) থেকেই মনিটরিং শুরু করবো, দেখবো মশকনিধন কর্মীরা সঠিকভাবে কাজ করছেন কিনা। নির্বাচিত কাউন্সিলররাও সকাল-বিকাল তাদের কাজ তদারকি করবেন।

আজ শনিবার (২৯ ফেব্রুয়ারি) বিকালে গোপালগঞ্জের টুঙ্গিপাড়ায় জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের সমাধিতে শ্রদ্ধা নিবেদন শেষে সাংবাদিকদের বিভিন্ন প্রশ্নের জবাবে তিনি এসব কথা বলেন।

মেয়র আতিকুল ইসলাম বলেন, আগামী ১৫ মে আমরা দায়িত্ব নেবো। একটি সুস্থ সচল ও আধুনিক ঢাকা গড়ার জন্য দলমত নির্বিশেষে কাজ করতে চাই। সিটি করপোরেশনের এই মূহূর্তের দায়িত্ব মশকনিধন কর্মীরা কোথায় কাজ করছেন। নির্ধারিত স্থানে যাচ্ছেন কিনা, ওষুধ ছিটানোর নির্দেশনা মানছেন কিনা, এগুলো গুরুত্বের সঙ্গে তদারকি করা হবে।

ঢাকাবাসীকে যার যার বাসস্থান পরিষ্কার-পরিচ্ছন্ন রাখার আহ্বান জানিয়ে মেয়র বলেন, দলমত নির্বিশেষে আমরা ঢাকাকে একটি পরিচ্ছন্ন নগরী হিসেবে গড়ে তুলতে চাই। এজন্য নগরবাসীর প্রতি আহ্বান, যেখানে-সেখানে ময়লা আবর্জনা ফেলবেন না। গত বছর যারা যেখানে-সেখানে ময়লা আবর্জনা ফেলে রাখতেন তাদের জরিমানা করেছিলাম। আগামীতে কেউ এভাবে ময়লা আবর্জনা ফেললে তাদেরও জরিমানা করা হবে। আমাদের দেশে আইন আছে, কিন্তু জরিমানার প্রয়োগ নেই। বিভিন্ন দেশে জরিমানার বিধান আছে। কারও বাড়ি বা অফিসে এডিস মশার লার্ভা পাওয়া গেলে ও বসতবাড়ি পরিষ্কার-পরিচ্ছন্ন না পাওয়া গেলে আইনের মাধ্যমে তাদের জরিমানা করা হবে।

ঢাকার যানজট ও জলজট প্রসঙ্গে মেয়র আরও বলেন, যতদিন ঢাকার বাস রুট ফ্রানচাইজ করতে না পারবো ততদিন যত্রতত্র বাসের অসম প্রতিযোগিতা থেকে যাচ্ছে। সিটি করপোরেশনের জন্য যানজট ও জলজট নিরসন চ্যালেঞ্জিং ব্যাপার। আমি সর্বাত্মক চেষ্টা করবো যানজট ও জলযট নিরসনের জন্য। আমরা সকলে মিলে কাজ করলে কোনও কিছুই অসম্ভব নয়।

এর আগে মেয়র জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের সমাধি সৌধে পুষ্পমাল্য অর্পণ করে শ্রদ্ধা নিবেদন করেন। পরে বঙ্গবন্ধু ও তার পরিবারের নিহত সদস্যদের রুহের মাগফেরাত কামনা করে সুরা ফাতেহা পাঠ ও বিশেষ মোনাজাতে অংশ নেন তিনি।

এসময় তার সঙ্গে ঢাকা মহানগর আওয়ামী লীগ ও সহযোগী সংগঠনের নেতৃবৃন্দ, ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশনের নবনির্বাচিত কাউন্সিলর, সংরক্ষিত কাউন্সিলর, স্থানীয় আওয়ামী লীগ নেতাকর্মীরা উপস্থিত ছিলেন।

/টিএন/এমএমজে/

লাইভ

টপ