‘বন্দুকযুদ্ধে চরমপন্থী ও মাদক ব্যবসায়ী’ নিহত

Send
নওগাঁ প্রতিনিধি
প্রকাশিত : ১০:১৫, এপ্রিল ০২, ২০২০ | সর্বশেষ আপডেট : ১০:১৫, এপ্রিল ০২, ২০২০

বন্দুকযুদ্ধনওগাঁর আত্রাই ও পত্নীতলায় পুলিশের সঙ্গে পৃথক দুটি কথিত বন্দুকযুদ্ধে দুই জনের মৃত্যু হয়েছে। পুলিশ দাবি করছে, তাদের একজন চরমপন্থী এবং অন্যজন মাদক ব্যবসায়ী। ঘটনাস্থল থেকে আগ্নেয়াস্ত্র ও মাদক উদ্ধার হয়েছে বলেও দাবি করছে পুলিশ।

আত্রাই থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মসলিম উদ্দিন বলেন, রাত আড়াইটার দিকে আত্রাই উপজেলার তিলাবুদুরী এলাকায় অস্ত্র উদ্ধারে যান তারা। এসময় পুলিশের উপস্থিতি টের পেয়ে পুলিশকে লক্ষ্য করে দুষ্কৃতিকারীরা গুলি ছোঁড়ে। পাল্টা গুলি চালায় পুলিশ। এতে মিনহাজুল ওরফে মিন্টু ওরফে শিকদার (৪০) নামে এক দুষ্কৃতিকারী গুলিবিদ্ধ হয়। অন্যরা পালিয়ে যায়। পরে আহত অবস্থায় হাসপাতালে নেওয়ার পর তার মৃত্যু হয়।

নিহত মিনহাজুল আত্রাই উপজেলার ভর তেঁতুলিয়া গ্রামের আব্দুর রহমানের ছেলে। পুলিশ দাবি করে, সে নিষিদ্ধ ঘোষিত সর্বহারা গ্রুপের সক্রিয় সদস্য। তার বিরুদ্ধে একাধিক হত্যা মামলা আছে। ঘটনাস্থল থেকে একটি বিদেশি পিস্তল, গুলি ও হাতবোমা উদ্ধার করেছে পুলিশ।

এদিকে পত্নীতলা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) পরিমল চক্রবর্তী বলেন, উপজেলার দীবর এলাকায় রাতে মাদক উদ্ধার করতে গেলে পুলিশের সঙ্গে মাদক চোরাকারবারীদের গোলাগুলি হয়। এসময় জাহিদুল (৩৮) নামে এক মাদক ব্যবসায়ী গুলিবিদ্ধ হয়। অন্যান্য মাদক চোরাকারবারিরা পালিয়ে যায়।

পরে ঘটনাস্থল থেকে গুলিবিদ্ধ জাহিদুলকে উদ্ধার করে হাসপাতালে নিলে চিকিৎসক মৃত ঘোষণা করেন। ঘটনাস্থল থেকে একটি শ্যুটারগান, গুলি, হাসুয়া, ৯৮৫ পিস ইয়ারা উদ্ধার করেছে পুলিশ। নিহত জাহিদুল পত্নীতলা উপজেলার বালুঘা গ্রামের বাসিন্দা। সে চিহ্নিত মাদক ব্যবসায়ী জানায় পুলিশ কর্মকর্তারা।

পুলিশ সুপার প্রকৌশলী আব্দুল মান্নান বিপিএম বলেন, পুলিশের নিয়মিত কর্যক্রমের অংশ হিসেবে অস্ত্র ও মাদক উদ্ধারে গেলে নিহতের ঘটনা দুইটি ঘটে।

/এফএস/

লাইভ

টপ