দেশে ফিরলো পশ্চিমবঙ্গে আটকা পড়া ৮১ বাংলাদেশি

Send
বেনাপোল প্রতিনিধি
প্রকাশিত : ১১:১৩, এপ্রিল ০৪, ২০২০ | সর্বশেষ আপডেট : ১১:১৭, এপ্রিল ০৪, ২০২০

বেনাপোল ইমিগ্রেশন ভবনকরোনাভাইরাস প্রতিরোধে ভারত সরকারের ঘোষিত ‘লকডাউনে’ কলকাতাসহ পশ্চিমবঙ্গে আটকা পড়া ৮১ বাংলাদেশি দেশে ফিরেছে। শুক্রবার (৩ এপ্রিল) ছোট ছোট কয়েকটি ভাগে বেনাপোল ইমিগ্রেশন চেকপোস্ট দিয়ে তাদের ফিরিয়ে আনা হয়। সকাল থেকে সন্ধ্যা পর্যন্ত তারা ভারতের পেট্রাপোলের আনুষ্ঠানিকতা সম্পন্ন করে বাংলাদেশে আসেন।

পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের পক্ষ থেকে এ তথ্য জানানো হয়। নয়াদিল্লির বাংলাদেশ হাইকমিশনের তথ্য অনুসারে, ভারতে প্রায় আড়াই হাজার বাংলাদেশি আটকা পড়েছে। এরমধ্যে প্রায় এক হাজার শিক্ষার্থী রয়েছেন। করোনাভাইরাসের পরিস্থিতি কিছুটা স্বাভাবিক হলে তাদেরকে দ্রুত দেশে ফিরিয়ে আনা হবে।

পশ্চিমবঙ্গে আটকে পড়া ৮১ বাংলাদেশিকে দুই দেশের দূতাবাস ও সংশ্লিষ্ট মন্ত্রণালয়ে আলাপ-আলোচনার পর তাদের বাংলাদেশে আসার অনুমতি দেয় ভারতীয় কর্তৃপক্ষ। মোদি সরকার ভারতে ‘জনতার কারফিউ’ ডাক দিলে গত ১৩ মার্চ থেকে ভারতে প্রবেশ নিষিদ্ধ হয় বাংলাদেশিদের। এরপর ২৬ মার্চ থেকে বেনাপোল চেকপোস্ট দিয়ে উভয় দেশর যাত্রী পারাপার বন্ধ হয়ে যায়। এতে আটকে থাকা বাংলাদেশিরা চরম দুর্ভোগে পড়েন।

বেনাপোল চেকপোস্ট ইমিগ্রেশনে দায়িত্বরত স্বাস্থ্য কর্মকর্তা ডা. হাবিবুর রহমান জানান, বিশেষ ব্যবস্থায় এদিন দেশে ফেরা যাত্রীদের স্বাস্থ্য পরীক্ষার ক্ষেত্রে অধিক কড়াকড়ি ও সতর্কতা অবলম্বন করা হয়। তবে তাদের কারও দেহে উচ্চতাপমাত্রা বা করোনাভাইরাসের লক্ষণ পাওয়া যায়নি। তাদেরকে ১৪ দিনের হোম কোয়ারেন্টিনে রাখা হবে। স্বাস্থ্য পরীক্ষাকালে তাদের হাতে বিশেষ চিহ্নিতকরণ লাল সিল দেওয়া হয়।

বেনাপোল পুলিশ ইমিগ্রেশনের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আহসান হাবিব বলেন, ‘ভারত থেকে আসা বাংলাদেশিদের বাড়ি যশোর, মাগুরা, নড়াইল, খুলনা, ঢাকা, চট্টগ্রাম, কুমিল্লা, বরিশাল, কুষ্টিয়া, গোপালগঞ্জ, শরিয়তপুর, মাদারিপুর, বাগেরহাট, পিরোজপুর, মুন্সীগঞ্জ, বগুড়াসহ দেশের বিভিন্ন জেলায়। তাদের হোম কোয়ারেন্টাইন নিশ্চিত করতে প্রত্যেকের পূর্ণাঙ্গ ঠিকানা ও মোবাইল ফোন নম্বর রাখা হয়েছে।’

/এনএস/

লাইভ

টপ