গাড়ি থেকে নামিয়ে দিচ্ছে পুলিশ, হেঁটেই গন্তব্যের উদ্দেশে শ্রমিকরা

Send
এ কে বিজয়, টাঙ্গাইল
প্রকাশিত : ১৩:২১, এপ্রিল ০৬, ২০২০ | সর্বশেষ আপডেট : ১৩:৩১, এপ্রিল ০৬, ২০২০

গাড়ি থেকে নামিয়ে দিচ্ছে পুলিশ

পোশাক কারখানা খোলার খবর পেয়ে শনিবার (৪ এপ্রিল) উত্তরবঙ্গের বিভিন্ন জেলা থেকে শ্রমিকরা ঢাকায় পৌঁছান। চাকরি হারানোর ভয় ও মার্চের বেতনের জন্য নানা হয়রানির মধ্য দিয়েই তারা ঢাকা আসেন। রবিবার (৫ এপ্রিল) সকালে কারখানায় গিয়ে দেখেন ১১ এপ্রিল পর্যন্ত বন্ধের নোটিশ গেটে ঝুলছে। ফলে বিপাকে পড়েন শ্রমিকরা। গণপরিহবন বন্ধ থাকায় কোনও উপায় না পেয়ে আবারও গ্রামের বাড়িতে যাওয়ার জন্য মোটরসাইকেল, ট্রাক, পিকআপ, লেগুনা ও প্রাইভেটকার ভাড়া করে রওনা দেন।  তবে এলেঙ্গাতে গাড়ি থেকে শ্রমিকদের নামিয়ে দেন পুলিশ। ফলে তারা আবার পায়ে হেঁটে গন্তব্যে রওনা করেন।


রবিবার (৫ এপ্রিল) বিকালে ঢাকা-টাঙ্গাইল বঙ্গবন্ধু সেতু মহাসড়কের এলেঙ্গাতে সরেজমিনে গিয়ে দেখা যায় এমন চিত্র। ঢাকা থেকে শ্রমজীবী মানুষরা যে যেভাবে পারছেন বাড়ির উদ্দেশে রওনা দিয়েছেন। মাঝে মধ্যে পুলিশ সদস্যরা ট্রাক ও পিকআক থেকে তাদের নামিয়ে দিচ্ছেন। বেশ কয়েকটি মোটরসাইকেল চালকের বিরুদ্ধে মামলাও দিয়েছেন তারা।

গাড়ি থেকে নামিয়ে দিয়েছে পুলিশ
এলেঙ্গাতে কথা হয় ঢাকা ফেরত সিরাজগঞ্জের শ্রমিক ইলিয়াস হোসেন ও সুলতান মাহমুদের সঙ্গে। তারা বলেন, করোনা আতঙ্কের মধ্যে শনিবার পোশাক কারখানায় যোগ দিতে ঢাকায় গিয়েছিলেন। রবিবার জানতে পারেন কারখানা ফের বন্ধ ঘোষণা করা হয়েছে। এজন্য আবার বাড়িতে যাওয়ার জন্য রওনা দিয়েছেন। কয়েকটি গাড়ি পরিবর্তন করে এলেঙ্গা পর্যন্ত এসেছেন। এখানে আসার পর পুলিশ তাদের গাড়ি থেকে নামিয়ে দিয়েছে। ফলে বেকায়দায় পড়েছেন। উপায় না পেয়ে হেঁটেই রওনা দিয়েছেন।
বগুড়ার শ্রমিক রফিকুল ইসলাম বলেন, ‘রবিবার সকালে আমাদের কারখানা খোলার কথা ছিল। সকালে কারখানা আবার বন্ধ ঘোষণা করা হয়। শনিবার ঢাকায় গিয়ে আবার ফিরতে হচ্ছে। বিভিন্ন স্থানে পুলিশ বারবার আমাদের নামিয়ে দিচ্ছে।’

যেভোবে পারছে গন্তব্যে রওনা দিয়েছেন

তিনি আরও বলেন, ‘যে লোকগুলো রাস্তায় আছে, তাদের কী অপরাধ। তারা কি রাস্তায় হরতাল করতে আসছে? নাকি কোনও সরকার বিরোধী মিছিল করতে আসছে। তাদেরকে গাড়ি থেকে নামিয়ে দেওয়া হচ্ছে। তাহলে এসব শ্রমিকরা কীভাবে বাড়ি ফিরবে? শ্রমিকদের বিপাকে ফেলে কি ধরনের আইনশৃঙ্খলা প্রতিষ্ঠিত করতে চায় পুলিশ। এখন আমাদের কী হবে, কীভাবে বাড়ি ফিরবো?’ এমনটাই প্রশ্ন ঘরমুখী শত শত শ্রমজীবী মানুষের।

যেভোবে পারছে গন্তব্যে রওনা দিয়েছেন

এলেঙ্গাতে দায়িত্বরত জেলা ট্রাফিক পুলিশের পরিদর্শক এসএম শহিদুর রহমান বলেন, ‘করোনাভাইরাসের কারণে গণপরিবহন বন্ধ রয়েছে। যেখান থেকে স্টাটিং পয়েন্ট, সেখান থেকেই ব্যবস্থা নেওয়া হচ্ছে। গাড়ি থেকে যাত্রী নামিয়ে দেওয়া হচ্ছে। এখন সড়কে তেমন একটা গাড়ি নেই।  যারা মোটরসাইকেলে অতিরিক্ত যাত্রী নিয়ে যাতায়াত করছে তাদের বিরুদ্ধে মামলা দিয়ে ছেড়ে দেওয়া হচ্ছে।’

 

/এসটি/

লাইভ

টপ