নৌপথে ফেরা ৯২ শ্রমিক কোয়ারেন্টিনে, ভীত এলাকাবাসী

Send
গাইবান্ধা প্রতিনিধি
প্রকাশিত : ১২:৫৭, এপ্রিল ১০, ২০২০ | সর্বশেষ আপডেট : ১২:৫৮, এপ্রিল ১০, ২০২০

খাটিয়ামারি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের কোয়ারেন্টিন

সড়কপথে কড়াকড়ি থাকায় প্রশাসনের নজর ফাঁকি দিয়ে ঢাকা, নারায়ণগঞ্জ ও মুন্সীগঞ্জসহ বিভিন্ন এলাকা থেকে নৌপথে গাইবান্ধার নিজ নিজ এলাকায় ফিরছেন শ্রমিকরা। তাদের ৯২ জনকে ইতোমধ্যে ফুলছড়ি উপজেলার চরাঞ্চলের দুটি প্রাতিষ্ঠানিক কোয়ারেন্টিনে রাখা হয়েছে। এরপর থেকে করোনাভাইরাস নিয়ে আতঙ্ক বিরাজ করছে আশপাশের এলাকাবাসীর মধ্যে।

শুক্রবার (১০ এপ্রিল) সকাল ১১টার দিকে ফুলছড়ি উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) আবু রায়হান দোলন ৯২ জনকে কোয়ারেন্টিনে রাখার বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

তিনি বলেন, 'বৃহস্পতিবার বিভিন্ন এলাকা থেকে গার্মেন্টস ও নির্মাণ শ্রমিকদের নিয়ে আসা দুটি নৌকা নিয়ন্ত্রণ নেওয়া হয়। পরে পুলিশ ও স্বেচ্ছাসেবকদের সহায়তায় ৯২ জন শ্রমিককে চরাঞ্চলের দুটি প্রাতিষ্ঠানিক কোয়ারেন্টিনে রাখা হয়। তাদের মধ্যে ৬৪ জন ফুলছড়ি ইউনিয়নের ও ২৮ জন ফজলুপুর ইউনিয়নের বাসিন্দা'।

তিনি আরও বলেন, 'চরাঞ্চলের টেংরাকান্দি এম এ সবুর দাখিল মাদ্রাসা ও খাটিয়ামারি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে কোয়ারেন্টিনে রাখা হয়েছে শ্রমিকদের। কোয়ারেন্টিনে থাকা মানুষগুলোর খাদ্য ও সামাজিক নিরাপত্তার বিষয়টি নিশ্চিত করা হয়েছে।'

ফুলছড়ি থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) কাওছার আলী বলেন, 'দুটি নৌকায় আসা ৯২ জনকে কোয়ারেন্টিনে রাখা হয়েছে। এছাড়া নৌকা পারাপার বন্ধে নৌকা মালিকদের সর্তক করে দেওয়া হয়েছে। কোয়ারেন্টিনে থাকা শ্রমিকদের নিরাপত্তায় পুলিশ দায়িত্ব পালন করছে। এছাড়া নৌঘাট এলাকাতেও পুলিশের নজরদারি বাড়ানো হয়েছে।'

স্থানীয়রা জানায, ফুলছড়ি উপজেলার কয়েক হাজার শ্রমজীবী মানুষ ঢাকাসহ বিভিন্ন জেলায় শ্রমিকের কাজ করেন। সম্প্রতি করোনাভাইরাসের কারণে তাদের কাজ বন্ধ হয়ে যায়। ফলে তারা বেকার হয়ে পড়েছেন। এসব লোক রাতের আঁধারে নৌপথে বাড়ি ফিরতে শুরু করেন। প্রশাসনের নজরদারি এড়াতে নানা কৌশল অবলম্বন করছেন তারা। ফলে এলাকাতেও ভীতি ছড়িয়ে পড়েছে।

এ বিষয়ে ফুলছড়ি ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আবদুল গফুর মণ্ডল বলেন, 'প্রাতিষ্ঠানিক কোয়ারেন্টিনে থাকা ৯২ জন ব্যক্তির খাবারের ব্যবস্থা করা হয়েছে। নতুন করে কেউ এলাকায় এলে তাদের কোয়ারেন্টিনে রাখার বিষয়ে জনগণকে সচেতন করা হচ্ছে। এছাড়া গোপনে কেউ এলাকায় অবস্থান করছেন কিনা সে বিষয়েও খোঁজ নেওয়া হচ্ছে।'

 

 

/এএইচ/

লাইভ

টপ