ঈদগাহ ও মসজিদে জামাত নিয়ে মারামারি, মেম্বার আটক

Send
বগুড়া প্রতিনিধি
প্রকাশিত : ১৩:৩৯, মে ২৫, ২০২০ | সর্বশেষ আপডেট : ১৩:৩৯, মে ২৫, ২০২০

ঈদের জামাত



বগুড়ার নন্দীগ্রামে ঈদগাহ মাঠ ও মসজিদে ঈদুল ফিতরের নামাজ আদায় নিয়ে দু’পক্ষের মধ্যে মারামারিতে একজন আহত হয়েছেন। সোমবার (২৫ মে) সকাল ৯টার দিকে উপজেলার ছোট ডেরাহার গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। এ ঘটনায় জড়িত থাকায় পুলিশ সদর ইউনিয়নের মেম্বার ও যুবলীগ নেতা সোহাগ হোসেনকে আটক করেছে। নন্দীগ্রাম থানার ওসি শওকত কবির এ তথ্য জানান। 

পুলিশ ও এলাকাবাসীরা জানান, সরকারি নির্দেশ অমান্য করে ছোট ডেরাহার গ্রামের আলম ও রেজার নেতৃত্বে তাদের অনুসারীরা স্থানীয় ঈদগাহ মাঠে নামাজ আদায় করেন। অন্যদিকে গ্রামের কিছু মানুষ ডেরাহার মাদ্রাসা মসজিদে নামাজ আদায় করেন। পরে রেজা, আলম ও তাদের লোকজন মসজিদে নামাজ পড়ানোর কারণে ইমাম মাওলানা শাহাদত হোসেনকে গালিগালাজ এবং চাকরি থেকে ছাঁটাই করার হুমকি দেন।

ইমাম জানান, তিনি সরকারি নির্দেশ মেনে নামাজ পড়িয়েছেন। এসময় শামীমসহ উপস্থিত মুসল্লিরা প্রতিবাদ  করেন। তখন হানিফ (৩০) নামে একজনের মাথায় ইট দিয়ে আঘাত করা হয়। এ সময় দু’পক্ষের মধ্যে মারামারি শুরু হয়। খবর পেয়ে নন্দীগ্রাম থানার পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে।

পুলিশ ঘটনাস্থল থেকে ঘটনায় জড়িত নন্দীগ্রাম সদর ইউনিয়নের ৬ নম্বর ওয়ার্ডের মেম্বার এবং ওয়ার্ড যুবলীগ সভাপতি সোহাগ হোসেনকে আটক করেছে।

ওসি শওকত কবির জানান, এ ব্যাপারে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণের প্রক্রিয়া চলছে।

 

/এসটি/

লাইভ

টপ