সুন্দরবনে দুই মাস মাছ ধরায় নিষেধাজ্ঞা

Send
বাগেরহাট প্রতিনিধি
প্রকাশিত : ১৯:৪৮, জুন ২৯, ২০২০ | সর্বশেষ আপডেট : ১৯:৫৪, জুন ২৯, ২০২০

সুন্দরবন

সুন্দরবনের সব নদী ও খালে ১ জুলাই থেকে ৩১ আগস্ট এই দুই মাস মাছ ধরা নিষিদ্ধ ঘোষণা করা হয়েছে। এই দুই মাস অধিকাংশ মাছের প্রজনন মৌসুম থাকায় এ সিদ্ধান্ত নিয়েছে বন বিভাগ। এরই অংশ হিসেবে বন বিভাগ গত ২৪ জুন থেকে সুন্দরবনে প্রবেশের জন্য সব পাস ও পারমিট দেওয়া বন্ধ করে দিয়েছে।

বন কর্মকর্তারা বলছেন, এই সময়টায় মাছ ধরা বন্ধ রাখলে মাছের উৎপাদন অনেক বৃদ্ধি পাবে।

সুন্দরবন পূর্ব বন বিভাগের বিভাগীয় বন কর্মকর্তা (ডিএফও) মোহাম্মাদ বেলায়েত হোসেন জানান,‘সুন্দরবনে মৎস্য সম্পদ রক্ষায় ইন্টিগ্রেটেড রিসোর্সেস ম্যানেজমেন্ট প্ল্যান’ নামে ১০ বছর মেয়াদি একটি পরিকল্পনা নেওয়া হয়েছে।

এরই আলোকে প্রতিবছর ১ জুলাই থেকে ৩১ আগস্ট পর্যন্ত সুন্দরবনের সব নদী ও খালে মাছ আহরণ বন্ধ থাকবে। গত বছরও ১ জুলাই থেকে ৩১ আগস্ট পর্যন্ত এই নিষেধাজ্ঞা ছিল। এই দুই মাস সুন্দরবনের নদী খালে থাকা অধিকাংশ মাছের প্রজনন মৌসুম। এ সময় মাছ ধরা বন্ধ থাকলে সুন্দরবনের নদী খালে মাছের সংখ্যা বৃদ্ধি পাবে। তাই মাছের নিরাপত্তায় জেলেদের এই দুই মাস সুন্দরবনে ঢোকা বন্ধ ঘোষণা করা হয়েছে।

তিনি আরও বলেন, আমরা ২৪ জুন থেকে সুন্দরবনে প্রবেশের জন্য জেলেদের পাস পারমিট দেওয়া বন্ধ করে দিয়েছি। ২৩ তারিখ পর্যন্ত যাদের পাস-পারমিট দেওয়া হয়েছে তাদের অবশ্যই ৩০ জুনের মধ্যে ফিরে আসতে হবে বলে নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। মাত্র দুটি মাস যদি জেলেরা একটু কষ্ট করে তাহলে পরবর্তী ১০টি মাস তারা অনেক বেশি মাছ পাবে। এতে জেলেরাই বেশি লাভবান হবে বলে তিনি জানান।

/টিএন/

লাইভ

টপ