দুই মেয়েকে হত্যা: অভিযুক্ত বাবার মৃত্যু

Send
নিজস্ব প্রতিবেদক, চট্টগ্রাম
প্রকাশিত : ১৮:০৮, জুলাই ০২, ২০২০ | সর্বশেষ আপডেট : ১৮:১২, জুলাই ০২, ২০২০

লাশচট্টগ্রামের পটিয়ায় নানার বাড়ি থেকে দুই মেয়ের লাশ উদ্ধারের পরদিন হাসপাতালে তাদের বাবার মৃত্যু হয়েছে। বৃহস্পতিবার (২ জুলাই) সকালে চট্টগ্রাম মেডিক্যাল কলেজ (চমেক) হাসপাতালে তার মৃত্যু হয় বলে পটিয়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) বোরহান উদ্দিন জানিয়েছেন। ওই বাবার বিরুদ্ধে অভিযোগ, তিনি তার দুই মেয়েকে শ্বাসরোধে হত্যার পর নিজে আত্মহত্যার চেষ্টা করেন।

বুধবার (১ জুলাই) সকালে পটিয়া উপজেলার কাশিয়াইশ ইউনিয়নের ভাণ্ডারগাঁও গ্রামে মামার বাড়ি থেকে টুকু বড়ুয়া (১৪) ও নিশু বড়ুয়া (১০) নামে দুই বোনের মরদেহ উদ্ধার করে পুলিশ। এ সময় তাদের বাবা মুকুন্দ বড়ুয়াকে অচেতন অবস্থায় উদ্ধার করা হয়। স্থানীয়রা জানান, দুই মেয়েকে শ্বাসরোধ করে হত্যা করে মুকুন্দও আত্মহত্যার চেষ্টা করেন।

ওসি বোরহান উদ্দিন বাংলা ট্রিবিউনকে বলেন, 'উদ্ধারের পর মুকুন্দ বড়ুয়াকে চমেক হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। উদ্ধার করার পর থেকে সে অচেতন অবস্থায় ছিল। যে কারণে তার দুই মেয়ের মৃত্যুর কারণসহ ঘটনার বিষয়ে তার বক্তব্য নেওয়া সম্ভব হয়নি।'

জানা যায়, কক্সবাজারের চকরিয়ার বাসিন্দা মুকুন্দ বড়ুয়া জাহাজে চাকরি করতেন। চার বছর আগে স্ত্রী মারা যাওয়ার পর তার দুই মেয়ে পটিয়ায় মামার বাড়িতে থাকতেন। লকডাউনের পর চাকরি থেকে এসে মুকুন্দও শ্বশুর বাড়িতে উঠেন। গত বুধবার সকালে মামার বাড়ি থেকে তাদের মরদেহ উদ্ধার করা হয়। তারা স্থানীয় একটি স্কুলের অষ্টম ও চতুর্থ শ্রেণির ছাত্রী ছিল।

আরও পড়ুন...

বাবার বিরুদ্ধে দুই মেয়েকে শ্বাসরোধে হত্যার অভিযোগ

/আইএ/

লাইভ

টপ