তিন জেলায় ৩ লাশ উদ্ধার

Send
বাংলা ট্রিবিউন ডেস্ক
প্রকাশিত : ১৯:৪৬, জুলাই ০৩, ২০২০ | সর্বশেষ আপডেট : ১৯:৪৬, জুলাই ০৩, ২০২০

লাশ উদ্ধারবগুড়া, মাগুরা ও বরিশালের আলাদা তিনটি স্থান থেকে তিন জনের লাশ উদ্ধার করা হয়েছে। শুক্রবার (৩ জুলাই) সকাল থেকে বিকালের মধ্যে সংশ্লিষ্ট এলাকার পুলিশ সদস্যরা লাশগুলো উদ্ধার করেন। স্থানীয় থানা সূত্রে এ তথ্য জানা গেছে। আমাদের জেলা প্রতিনিধিদের পাঠানো তথ্যে বিস্তারিত জানানো হলো:

বগুড়া

বগুড়ার শাজাহানপুরে ধানক্ষেতে অজ্ঞাত এক যুবকের (২৫) লাশ পাওয়া গেছে। শুক্রবার (৩ জুলাই) দুপুরে পুলিশ উপজেলার আশেকপুর ইউনিয়নের চকজোড়া দামারপাড়া গ্রামের ধানক্ষেত থেকে লাশটি উদ্ধার করেছে। বিকাল পর্যন্ত তার পরিচয় মেলেনি। শাজাহানপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আজিম উদ্দিন এ তথ্য জানান।

পুলিশ ও প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, শুক্রবার সকালে শাজাহানপুর উপজেলার চকজোড়া দামারপাড়া গ্রামে আবদুল গফুর হাজীর ধানক্ষেতে অজ্ঞাত যুবকের লাশ পড়ে থাকতে দেখে গ্রামবাসী। তারা শাজাহানপুর থানায় খবর দিলে দুপুরে পুলিশ লাশটি উদ্ধার করে বগুড়া শহীদ জিয়াউর রহমান মেডিক্যাল কলেজ (শজিমেক) হাসপাতালের মর্গে পাঠায়। নিহতের পরনে থ্রি কোয়ার্টার প্যান্ট ও শার্ট ছিল।

ওসি জানান, তার শরীরে কোনও আঘাতের চিহ্ন নেই। তদন্ত চলছে। ময়নাতদন্তের রিপোর্ট পেলে তার মৃত্যুর প্রকৃত কারণ জানা সম্ভব হবে।

মাগুরা

মাগুরা শহরের নতুন বাজার সাহাপাড়া এলাকায় ফাল্গুনি অধিকারী (১৭) নামে এক গৃহবধূর ঝুলন্ত মরদেহ উদ্ধার করেছে পুলিশ। সে ওই এলাকার ব্যবসায়ী শুভ অধিকারীর স্ত্রী। শুক্রবার (৩ জুলাই) সকালে মরদেহটি উদ্ধার করা হয়। ঘটনার পর থেকে শুভ অধিকারী পালাতক রয়েছে।

মাগুরা সদর সার্কেলের সহকারী পুলিশ সুপার আহসান হাবিব জানান, বেলা ১১টার দিকে শহরের নতুন বাজার সাহাপাড়া এলাকায় অস্বাভাবিক মৃত্যুর খবরে আমরা সেখানে গিয়ে ওই গৃহবধূর লাশ উদ্ধার করি। মৃতদেহের গলায় দড়ির দাগ রয়েছে। তবে নিহতের বাবার বাড়ির পক্ষ থেকে এটিকে পরিকল্পিত হত্যাকাণ্ড বলে উল্লেখ করা হয়েছে। বিষয়টিকে মাথায় রেখে আমরা লাশ ময়নাতদন্তের জন্য সদর হাসপাতালের মর্গে পাঠিয়েছি। এ ব্যাপারে মাগুরা সদর থানায় মামলা হয়েছে। ময়নাতদন্তের রিপোর্ট পেয়ে পরবর্তী আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে। নিহতের স্বামী শুভ অধিকারী পালিয়ে গেছে।

নিহত ফাল্গুনির বাবা অশোক অধিকারী অভিযোগ করেন, এক বছর আগে তার মেয়ে ফাল্গুনির বিয়ে হয়। বিয়ের পর থেকে বিভিন্ন সময় মেয়ের স্বামী, শাশুড়ি ও পরিবারের অন্য সদস্যরা অত্যাচার নির্যাতন করতো। শুক্রবার সকালে তার মেয়েকে হত্যা করে গলায় দড়ি দিয়ে ঝুলিয়ে রেখেছে শুভ ও তার পরিবারের সদস্যরা। তিনি এ ঘটনার সুষ্ঠু বিচার দাবি করেন।

বরিশাল

বরিশালের উজিরপুরে অজ্ঞাত নারীর (২০) অর্ধগলিত মরদেহ উদ্ধার করেছে পুলিশ। শুক্রবার (৩ জুলাই) বিকালে উপজেলার হারতা গ্রামের বাবু সরদারের বাড়ি সংলগ্ন কচা নদী থেকে মরদেহটি উদ্ধার করা হয়।

উদ্ধার অভিযানে থাকা উজিরপুর থানা পুলিশের এএসআই মো. মাহাতাব জানান, শুক্রবার দুপুরে মরদেহটি ভাসতে দেখে এলাকাবাসী পুলিশকে জানায়। এরপর বিকালে ঘটনাস্থলে গিয়ে অর্ধগলিত মরদেহটি উদ্ধার করে থানায় নিয়ে আসা হয়। ধারণা করা হচ্ছে, ওই নারী ৪-৫ দিন আগ মারা গেছে। তার পরনে সেলোয়ার ও ব্লাউজ ছিল। মরদেহটি ভাসতে ভাসতে সন্ধ্যা নদী থেকে কচা নদীতে প্রবেশ করে।

উজিরপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) জিয়াউল আহসান বলেন, 'অজ্ঞাত নারীর পরিচয় জানতে বিভিন্ন থানায় বার্তা পাঠানো হয়েছে। ময়নাতদন্তের জন্য মরদেহটি বরিশাল শের-ই-বাংলা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালের মর্গে পাঠানো হয়েছে। ময়নাতদন্তের প্রতিবেদন পেলে কীভাবে মৃত্যু হয়েছে তার কারণ জানা সম্ভব হবে।

/আইএ/

লাইভ

টপ