করতোয়া নদী থেকে যুবকের হাত-পা বাঁধা লাশ উদ্ধার

Send
গাইবান্ধা প্রতিনিধি
প্রকাশিত : ১৭:১১, জুলাই ০৭, ২০২০ | সর্বশেষ আপডেট : ১৭:১৮, জুলাই ০৭, ২০২০

গাইবান্ধা গাইবান্ধার গোবিন্দগঞ্জের করতোয়া নদী থেকে ভাসমান অবস্থায় হাত-পা ও চোখ-মুখ বাঁধা অজ্ঞাত পরিচয় এক যুবকের লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ। মঙ্গলবার (৭ জুলাই) সকালে গোবিন্দগঞ্জ উপজেলার তালুককানুপুর ইউনিয়নের পারসুন্দইল গ্রামের করতোয়া নদী থেকে লাশটি উদ্ধার করা হয়।

বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন গোবিন্দগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) একেএম মেহেদি হাসান। তিনি জানান, করতোয়া নদীতে লাশ ভাসতে দেখে খবর দেয় স্থানীয়রা। পরে পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে লাশ উদ্ধার করে। অনুমানিক ২৫ থেকে ৩০ বছর বয়সের যুবকের পরনে ছিল শুধু প্যান্ট। তার দুই হাত ও পা রশি দিয়ে এবং চোখ-মুখ কাপড়ে বাঁধা ছিলে। ধারণা করা হচ্ছে, ২-৩ দিন আগে তাকে হত্যার পর করতোয়া নদীর উজানে দিনাজপুর উজানে দিনাজপুর এলাকায় লাশ ফেলে দেয় দুর্বৃত্তরা। পরে লাশ ভেসে তালুককানুপুর ইউনিয়নের পারসুন্দাইল গ্রামের করতোয়া নদীতে আসে। উদ্ধার করা লাশের শরীরের চামড়া অনেকটা পচে গেছে। এছাড়া ছোট ছোট দাড়ি মুখ ফুুুলে যাওয়ায় ঠিক চেনা যাচ্ছেনা তাকে।

তিনি আরও জানান, লাশ উদ্ধারের পর ময়নাতদন্তের জন্য গাইবান্ধা সদর হাসপাতালের মর্গে পাঠানো হয়েছে। ময়নাতদন্ত শেষে লাশ আঞ্জুমান মুফিদুল ইসলামে হস্তান্তর করা হবে। নিহত যুবকের পরিচয় শনাক্তে চেষ্টা চলছে। এছাড়া হত্যার রহস্য উদঘাটন ও জড়িতদের চিহ্নিত করতে বিভিন্নভাবে তৎপরতা চালানো হচ্ছে। এ ঘটনায় গোবিন্দগঞ্জ থানায় একটি মামলা হয়েছে।

নিহতের পরিচয় পাওয়া না গেলে আগামী বুধ কিংবা বৃহস্পতিবার আঞ্জুমান মুফিদুল ইসলামের মাধ্যমে লাশ দাফন করা হবে বলেও জানান ওসি।

 

/টিটি/

লাইভ

টপ