কুষ্টিয়ায় ২৬ দিনে করোনায় ১৫ জনের মৃত্যু

Send
কুষ্টিয়া প্রতিনিধি
প্রকাশিত : ০৫:৫৫, জুলাই ০৮, ২০২০ | সর্বশেষ আপডেট : ০৫:৫৫, জুলাই ০৮, ২০২০

কুষ্টিয়াকুষ্টিয়ায় করোনাভাইরাসে (কোভিড-১৯) আক্রান্ত হয়ে গত ২৬ দিনের ব্যবধানে ১৫ জন মৃত্যুবরণ করেছেন। এর মধ্যে সদর উপজেলায় ৯ জন, কুমারখালীতে চার জন, দৌলতপুরে একজন এবং ভেড়ামারায় একজন রয়েছেন। মৃত ব্যক্তিদের মধ্যে ১৪ জন পুরুষ এবং একজন নারী রয়েছেন। মঙ্গলবার (৭জুলাই) রাত ১০ টার দিকে কুষ্টিয়া সিভিল সার্জন অফিসের দায়িত্বপ্রাপ্ত মেডিক্যাল অফিসার ডাক্তার নজমুল মনির এসব তথ্য জানান।

জেলা সিভিল সার্জন অফিস সূত্রে জানা যায়, গত ১১ জুন কুষ্টিয়ায় প্রথম একজন করোনায় আক্রান্ত রোগীর মৃত্যু হয়। তার নাম মুকাদ্দেস হোসেন (১০১)। তিনি কুমারখালী উপজেলার শেরকান্দি গ্রামের বাসিন্দা।

১৭ জুন করোনায় আক্রান্ত হয়ে খুলনা মেডিক্যাল কলেজে চিকিৎসাধীন অবস্থায় ইয়াদ আলী (৮৫) নামে এক বৃদ্ধর মৃত্যু হয়। তিনি দৌলতপুর উপজেলার ফিলিপনগর এলাকার বাসিন্দা।

১৫ জুন ভেড়ামারায় নিমাই (৩৬) নামে এক ব্যক্তির মৃত্যু হয়। তিনি ভেড়ামারা পৌর এলাকার কুন্ডুপাড়ার বাসিন্দা।

২১ জুন জেলায় সুলতানা রিজিয়া (৬০) নামে প্রথম এবং এ পর্যন্ত একমাত্র নারীর মৃত্যু হয়। কুষ্টিয়া জেনারেল হাসপাতালের আইসোলেশন ওয়ার্ডে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যান তিনি। তিনি জেলা শহরের কোর্টপাড়া এলাকার বাসিন্দা।

২৩ জুন একাব্বর আলী (৬৫) নামে এক ব্যক্তির মৃত্যু হয়। তিনি জেলা শহরের চর আমলপাড়া এলাকার বাসিন্দা। একই দিন সদর উপজেলার বারখাদা ত্রিমোহনী এলাকার বাসিন্দা আসাদুল ইসলাম (৫৬) মৃত্যুবরণ করেন।

 ২৭ জুন কুষ্টিয়া জেনারেল হাসপাতালের আইসোলেশন ওয়ার্ডে আহম্মদ আলী (৮২) নামে এক বৃদ্ধের মৃত্যু হয়। তিনি জেলার কুমারখালী

উপজেলার বড়ুলিয়া গ্রামের বাসিন্দা। একই দিন জেনারেল হাসপাতালে আইসোলেশন ওয়ার্ডে মারা যান মিজানুর রহমান (৭২)। তিনি জেলা শহরের হাউজিং এ ব্লকের বাসিন্দা।

২৮ জুন জেলায় হাবিবুর রহমান (৪০) নামে এক ব্যক্তির মৃত্যু হয়। তিনি শহরের হরিশঙ্করপুর এলাকার বাসিন্দা।

২৯ জুন আলী আহমেদ লিটন (৪৫) নামে এক ব্যক্তির মৃত্যু হয়। তিনি কুষ্টিয়া শহরের চৌরহাস স্টেডিয়ামপাড়ার বাসিন্দা। একই দিন ঢাকায় চিকিৎসাধীন অবস্থায় আলমগীর (৪০) নামে এক ব্যক্তি মৃত্যুবরণ করেন। তিনি সদর উপজেলার মোল্লাতেঘরিয়া এলাকার বাসিন্দা।

এরপর ২ জুলাই করোনা আক্রান্ত কুমারখালী উপজেলার পান্টির বাসিন্দা আনিছুর রহমান (৫০) মৃত্যুবরণ করেন।

৩ জুলাই সদর উপজেলার আড়ুয়াপাড়ার এক বৃদ্ধ (৮০) মারা যান।

৫ জুলাই করোনা আক্রান্ত হয়ে জেলা সদরের কাস্টম মোড়ের বাসিন্দা আমজাদ হোসেন (৩৫) মৃত্যুবরণ করেন।

এবং ৬ জুলাই করোনা আক্রান্ত হয়ে জেলার কুমারখালীর কুন্ডুপাড়ার বাসিন্দা বাদল মুখার্জী (৭২) মৃত্যুবরণ করেন।

উল্লেখ্য, সর্বশেষ মঙ্গলবার (৭ জুলাই) কুষ্টিয়া মেডিক্যাল কলেজের পিসিআর ল্যাবে জেলার ১০১টি নমুনা পরীক্ষা করা হয়। এর মধ্যে নতুন করে ২৭ জন করোনা পজিটিভ শনাক্ত হন। নতুন আক্রান্তদের মধ্যে সদর উপজেলার ১৮ জন, কুমারখালীর ছয় জন, মিরপুরের একজন ও খোকসার দুই জন রয়েছেন । নতুন আক্রান্তের মধ্যে ১৫ জন পুরুষ এবং ১২ জন নারী। কুষ্টিয়ায় এখন পর্যন্ত ৮১৬ জন কোভিড-১৯ আক্রান্ত রোগী শনাক্ত হয়েছেন। এ পর্যন্ত সুস্থ হয়েছেন ৩৮৩ জন। বর্তমানে হোম আইসোলেশনে রয়েছেন ৩৭৮ জন। এছাড়া হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছেন ৪০ জন।

/আইএ/

লাইভ

টপ