বাবা-মাকে বেঁধে কিশোরীকে ধর্ষণ: তিন আসামি গ্রেফতার

Send
কুড়িগ্রাম প্রতিনিধি
প্রকাশিত : ২১:০২, আগস্ট ০৯, ২০২০ | সর্বশেষ আপডেট : ২২:৪১, আগস্ট ০৯, ২০২০

 কুড়িগ্রামে বাবা-মাকে বেঁধে কিশোরীকে ধর্ষণের ঘটনায় গ্রেফতার তিন ডাকাত।
কুড়িগ্রামের রাজারহাটের ছিনাই ইউনিয়নে বাবা-মা ও ছোট বোনকে পিটিয়ে বেঁধে রেখে নবম শ্রেণির শিক্ষার্থী এক কিশোরীকে ধর্ষণের ঘটনায় জড়িত থাকার অভিযোগে তিন আসামিকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। গ্রেফতাকৃতদের পাঁচ দিনের রিমান্ডের আদেশ দিয়েছে আদালত।

রবিবার (৯ আগস্ট) দুপুরে নিজ কার্যালয়ে এক সংবাদ সম্মেলনে এ তথ্য জানান পুলিশ সুপার (এসপি) মহিবুল ইসলাম খান।

গ্রেফতারকৃত আসামিরা হলো আব্দুস সালাম (৪২), আব্দুল মালেক (৩৮) এবং আবুল কালাম আজাদ। এরা সবাই আন্তঃজেলা ডাকাত দলের সদস্য বলে জানায় পুলিশ।

এদিকে পুলিশের এক দায়িত্বশীল সূত্র জানায়, প্রায় ক্লু লেস এই মামলায় প্রযুক্তির সহায়তায় আসামিদের গ্রেফতার করা হয়েছে। কারণ ঘটনার দিন বৃষ্টি ও অন্ধকারে ভুক্তভোগীরা কেউই অভিযুক্তদের চিনতে পারেনি। ঘটনাস্থলে আসামিদের ব্যবহৃত মোবাইল ফোন নাম্বার ট্রাক করে অভিযুক্তদের শনাক্ত করা সম্ভব হয়েছে। গ্রেফতারকৃতদের মধ্যে আব্দুস সালাম ওই কিশোরীকে ধর্ষণ করে বলে প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে জানা গেছে। রিমান্ডে জিজ্ঞাসাবাদে তাদের কাছে আরও তথ্য জানা যাবে।

সংবাদ সম্মেলনে এসপি জানান, গ্রেফতারকৃত আসামিরা ডাকাতির উদ্দেশ্যে গিয়ে এ ঘটনা ঘটায়। ৩ আসামিকে আদালতে তুলে রিমান্ড আবেদন করলে তাদের ৫ দিনের রিমান্ড আবেদন মঞ্জুর করে আদালত। 

এসপি আরও জানান, আসামি আব্দুল মালেক (৩৮) কে লালমনিরহাট সদর উপজেলার মহেন্দ্রনগর, আব্দুস সালাম (৪২) কে কুড়িগ্রামের ভুরুঙ্গামারী উপজেলার চর ভুরুঙ্গামারী এবং আবুল কালাম আজাদকে নাগেশ্বরী উপজেলার রায়গঞ্জ ইউনিয়নের হাজির মোড় এলাকা থেকে গ্রেফতার করে পুলিশ। গ্রেফতারকৃত আব্দুস সালামের বিরুদ্ধে এর আগে বিভিন্ন থানায় ৫টি ও আবুল কালাম আজাদের বিরুদ্ধে ৩টি চুরির মামলা রয়েছে।

প্রসঙ্গত, গত ২৬ জুলাই দিবাগত মধ্যরাতে বৃষ্টির মধ্যে বাড়িতে ঢুকে বাবা-মা ও ছোটবোনকে বেধড়ক পিটিয়ে জখম করে অচেনা দুর্বৃত্তরা। এরপর ওই বাড়ির বড় মেয়ে নবম শ্রেণি পড়ুয়া কিশোরীকে তুলে নিয়ে বাড়ির পাশে একটি বাগানে ধর্ষণ করে অজ্ঞাত এক ব্যক্তি। এ সময় বাড়িতে লুটপাট ও কিশোরীকে ধর্ষণে তাকে সহায়তা করে আরও দুইজন। গুরুতর অবস্থায় কিশোরী ও তার বাবাকে উদ্ধার করে হাসপাতালে ভর্তি করেন এলাকাবাসী। এ ঘটনায় গত ২৭ জুলাই রাজারহাট থানায় একটি মামলা হয়।

/টিএন/

লাইভ

টপ