বীজ বিক্রয় কেন্দ্র বন্ধ, বিপাকে চাষিরা

Send
চুয়াডাঙ্গা প্রতিনিধি
প্রকাশিত : ১৩:১৮, সেপ্টেম্বর ১৭, ২০২০ | সর্বশেষ আপডেট : ১৩:১৮, সেপ্টেম্বর ১৭, ২০২০

দামুড়হুদা বীজ বিক্রয় কেন্দ্রচুয়াডাঙ্গার দামুড়হুদা উপজেলায় বাংলাদেশ কৃষি উন্নয়ন করপোরেশন উপজেলা পর্যায়ে বীজ বিক্রয় কেন্দ্রটি জনবল সংকটে বন্ধ হয়ে গেছে। প্রায় এক বছর ধরে বীজ বিক্রয় কেন্দ্রটি বন্ধ থাকায় বিপাকে পড়েছেন চাষিরা। এই বিক্রয় কেন্দ্রে থেকে সরাসরি বিএডিসি’র বীজ পেলে আর অন্য কোনও  প্রতিষ্ঠানে দৌড়াতে হয় না বলে জানান তারা। এতদিন লাইন ধরে দাঁড়িয়ে তারা এখান থেকে বীজ কিনেছেন। তবে এখন দামুড়হুদা বীজ বিক্রয় কেন্দ্রের অফিস ও গুদামের সব কার্যক্রম বন্ধ হয়ে পড়ে আছে।

দামুড়হুদা উপজেলার প্রাণ কেন্দ্রে চৌরাস্তার মোড় থেকে মডেল থানা রোড ধরে একটু সামনে এগিয়ে গেলে রাস্তার বাম হাতে চোখে পড়বে বাংলাদেশ কৃষি উন্নয়ন করপোরেশন উপজেলা পর্যায়ের দৃষ্টিনন্দন বীজ বিক্রয় কেন্দ্রটি।  উপজেলায় কৃষি সম্প্রসারণে এই বীজ বিক্রয় কেন্দ্রটি এক সময় অগ্রণী ভূমিকা রেখেছে। প্রতি মৌসুমের শুরুতেই চাষিরা এখান থেকে নানান জাতের বীজ নিয়ে চাষ করেছেন। বীজের গুণগত মান আর ফসলের  বাম্পার ফলন নিয়ে সন্তুষ্ট ছিলেন চাষিরা।

এলাকার একাধিক চাষি জানান, বাংলাদেশ কৃষি উন্নয়ন করপোরেশনের  উপজেলা পর্যায়ের এই বীজ বিক্রয় কেন্দ্রটি ছিল এলাকার চাষিদের জন্য আশির্বাদস্বরূপ। তবে এক বছরের বেশি সময় ধরে অফিস বন্ধ থাকার কারণে তারা প্রতিনিয়ত দূর-দূরান্ত থেকে এসে বীজ না পেয়ে খালি হাতে বাড়ি ফিরতে বাধ্য হচ্ছেন।

দামুড়হুদা কৃষি কর্মকর্তা মো. মনিরুজ্জামান বলেন, ‘উন্নত জাতের বীজ মানে ভালো ফসল উৎপাদন। কিন্তু জনবল সংকটে বাংলাদেশ কৃষি উন্নয়ন করপোরেশন বীজ বিক্রয় কেন্দ্র বন্ধ হয়ে যাওয়ায় এ উপজেলার কৃষকরা সমস্যার মধ্যে আছেন। বীজ বিক্রয় কেন্দ্রের পদের বিপরীতে নিয়োগ না হওয়ায় এই জনবল সংকট তৈরি হয়েছে। এদিকে ভালো বীজ না পেলে ভালো ফলন হওয়া সম্ভব নয়। তাই বীজ বিক্রয় কেন্দ্রটি খোলা হলে কৃষকরা উপকৃত হবেন। এ বিষয়ে ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের দৃষ্টি আকর্ষণ করছি।’

 

/এফএস/

লাইভ

টপ