বউ ভাতের অনুষ্ঠান থেকে বর কারাগারে, কনে বাবার বাড়ি

Send
নাটোর প্রতিনিধি
প্রকাশিত : ০০:৩৪, সেপ্টেম্বর ১৮, ২০২০ | সর্বশেষ আপডেট : ০০:৩৭, সেপ্টেম্বর ১৮, ২০২০




মেয়ের বয়স কম থাকায় পুলিশি ঝামেলা এড়াতে গোপনে বিয়ে। এরপর জাক-জমকভাবেই আয়োজন করা হয় বউ ভাত অনুষ্ঠানের। তবে শেষ রক্ষা হলো না। বাল্যবিয়ের অপরাধে বউ ভাতের অনুষ্ঠান থেকে বরকে পাঠানো হলো কারাগারে। বরের বাবাকে করা হলো জরিমানা। আর নববধূকে স্বামীর বাড়ি থেকে পাঠানো হলো বাবার বাড়ি।

বৃহস্পতিবার (১৭ সেপ্টেম্বর) বিকালে ঘটনাটি ঘটেছে গুরুদাসপুর উপজেলার বিয়াঘাট ইউনিয়নের হামলাইকোল গ্রামে। দণ্ডপ্রাপ্ত বরের নাম ইসরাফিল। আর জরিমানা দেওয়া বাবার নাম শহিদুল ইসলাম।

গুরুদাসপুর উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট আবু রাসেল ভ্রাম্যমাণ আদালত বসিয়ে এই দণ্ড দেন।

গুরুদাসপুর থানার ওসি মোজাহারুল ইসলাম বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন। তিনি বলেন, সম্প্রতি শহিদুল ইসালামের ছেলে ইসরাফিলের সঙ্গে যোগেন্দ্রনগর গ্রামের সাইফুল ইসলামের দশম শ্রেণি পড়ুয়া মেয়ে শিরিন সুলতানার গোপনে বিয়ে হয়। বৃহস্পতিবার ইসরাফিলের বাড়িতে বউ ভাতের অনুষ্ঠান চলছিলো। খবর পেয়ে সহকারী কমিশনার (ভূমি) আবু রাসেল বরের বাড়িতে উপস্থিত হন। ঘটনার সত্যতা পাওয়ার পর সেখানে ভ্রাম্যমাণ আদালত বসে। এসময় বর ইসরাফিল ইসলামকে ৩ মাসের কারাদণ্ড এবং তার বাবা শহিদুল ইসলামকে পাঁচ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়।

এসময় মেয়ের বাবাকে সতর্ক করা হয়। পাশাপাশি ১৮ বছর না হওয়া পর্যন্ত মেয়েকে স্বামীর বাড়িতে পাঠাবেন না এ মর্মে মুচলেকা নেওয়া হয়। পরে নববধূকে বাবার বাড়িতে পাঠানো হয়।

 

/টিটি/

সম্পর্কিত

লাইভ

টপ