ট্রেনে কাটা পড়ে বগুড়ায় দুই নারী, পাবনায় প্রতিবন্ধী যুবকের মৃত্যু

Send
বাংলা ট্রিবিউন ডেস্ক
প্রকাশিত : ০২:৪৬, সেপ্টেম্বর ১৮, ২০২০ | সর্বশেষ আপডেট : ০২:৫৩, সেপ্টেম্বর ১৮, ২০২০

ট্রেনে-কাটা-পড়ে-মৃত্যু

ট্রেনে কাটা পড়ে বগুড়ায় দুই নারী এবং পাবনা এক প্রতিবন্ধী যুবকের মৃত্যু হয়েছে। বুধ ও বৃহস্পতিবার পৃথক সময়ে ও স্থানে ঘটনাগুলো ঘটে। বগুড়ায় মারা যাওয়া দুই নারীর একজনের নাম মোরশেদা বেগম (৩৫), অপরজনের পরিচয় পাওয়া যায়নি। আর পাবনার যুবকের নাম রাসেল হোসেন (২০)।

বগুড়া প্রতিনিধি জানান, বুধবার সন্ধ্যায় বগুড়া শহরের কামারগাড়ি এলাকায় ও বৃহস্পতিবার সকালে কাহালু উপজেলার কানড়ায় ট্রেনে কাটা পড়ে দুই নারী মারা গেছেন। 

পুলিশ ও প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, বুধবার সন্ধ্যার দিকে বগুড়া শহরের কামারগাড়ি এলাকায় সরকারি আজিজুল হক কলেজের সামনে ঢাকা ছেড়ে আসা রংপুর এক্সপ্রেসের সামনে হুট করে রেললাইনে ওঠায় ট্রেনে কাটা পড়ে প্রাণ হারান অজ্ঞাত পরিচয় এক  ভবঘুরে নারী (৩৫)। রেলওয়ে ফাঁড়ির পুলিশ লাশ উদ্ধার করে বগুড়া শহীদ জিয়াউর রহমান মেডিকেল কলেজ (শজিমেক) হাসপাতাল মর্গে পাঠায়। বৃহস্পতিবার দুপুর পর্যন্ত  তার পরিচয় পাওয়া যায়নি। তার মরদেহ দাফনের জন্য আঞ্জুমানে মফিদুল ইসলামকে দেওয়া হয়েছে।

অন্যদিকে, সান্তাহার থেকে ছেড়ে আসা লালমনিরহাটগামী পদ্মরাগ এক্সপ্রেস বৃহস্পতিবার সকাল পৌণে ৮টার দিকে কাহালু উপজেলার কানড়া রেলগেট অতিক্রম করছিল। এ সময় কাহালু উপজেলার মহরাবানী গ্রামের আবদুল হাকিমের স্ত্রী মোরশেদা বেগম ট্রেনে কাটা পড়ে মারা যান।

বগুড়া রেলওয়ে পুলিশ ফাঁড়ির ইনচার্জ এএসআই আক্তারুন নাহার লিপি ঘটনাদুটির সত্যতা নিশ্চিত করে জানান, অসতর্কভাবে রেললাইন পার হওয়ার চেষ্টা করলে ট্রেনে কেটে দুই নারী মারা যান। ভবঘুরে ওই নারীর পরিচয় পাওয়া যায়নি।

দুটো ঘটনায় রেলওয়ের বোনারপাড়া থানায় পৃথক অপমৃত্যুর মামলা হয়েছে বলেও জানান তিনি।

পাবনা প্রতিনিধি জানান, পাবনা সদরের টেবুনিয়া রেল স্টেশনের অদূরে ট্রেনে কাটা পড়ে মানসিক ভারসাম্যহীন এক যুবক মারা গেছেন। তার নাম রাসেল হোসেন (২০)।

বৃহস্পতিবার (১৭ সেপ্টেম্বর) সকাল ৯ টার দিকে টেবুনিয়া রেলওয়ে স্টেশনের অদূরে এ দুর্ঘটনা ঘটে।

নিহত যুবক পাবনা সদর উপজেলার মালিগাছা ইউনিয়নের ধরবিলা গ্রামের মো. তসলিম প্রামানিকের ছেলে।

ঈশ্বরদী রেলওয়ে থানার (জিআরপি) ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) গোপাল কুমার এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

স্থানীয়রা জানান, ১৫ দিন আগে পাবনার মালিগাছায় বিয়ে হয় রাসেলের। ঘটনার দিন সকালে টেবুনিয়া রেল স্টেশনের দিকে রেললাইনের ওপর দিয়ে হাঁটতে গিয়ে পেছনে আর খেয়াল করেননি তিনি। এসময় পাবনার ঢালারচর থেকে ছেড়ে আসা রাজশাহী অভিমুখী যাত্রীবাহী আন্তঃনগর-৭৭৯ ‘ঢালারচর এক্সপ্রেস’ ট্রেনের ধাক্কা খেয়ে নীচে চলে যায় তার শরীর। রেলের চাকায় দ্বিখণ্ডিত হয়ে ঘটনাস্থলেই রাসেলের মৃত্যু হয়।

ঈশ্বরদী রেলওয়ে জিআরপি থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) গোপাল কুমার জানান, খবর পেয়ে মরদেহ উদ্ধারের জন্য ঘটনাস্থলে পুলিশ পাঠানো হয়। এ ঘটনায় ঈশ্বরদী রেলওয়ে জিআরপি থানায় একটি অপমৃত্যু (ইউডি) মামলা নথিভুক্ত হয়েছে।

তার এই অকাল মৃত্যুতে স্বজন ও এলাকাবাসীর মধ্যে শোকের ছায়া নেমে এসেছে।

                    

/টিএন/

সম্পর্কিত

লাইভ

টপ