কলেজছাত্রীর চুল কেটে অশ্লীল ছবি তোলার অভিযোগে যুবক গ্রেফতার

Send
নওগাঁ প্রতিনিধি
প্রকাশিত : ১৯:৩৯, সেপ্টেম্বর ২১, ২০২০ | সর্বশেষ আপডেট : ০০:০৬, সেপ্টেম্বর ২২, ২০২০

নওগাঁর নিয়ামতপুর উপজেলার নিয়ামতপুর বালিকা উচ্চ বিদ্যালয় অ্যান্ড কলেজের এক ছাত্রীর (১৮) মাথার চুল কেটে, অশ্লীল ছবি তুলে ইন্টারনেটে প্রচারের হুমকি দেওয়ার অভিযোগ উঠেছে। এ ঘটনায় কলেজছাত্রীর বাবা বাদী হয়ে সোমবার (২১ সেপ্টেম্বর) দুপুরে থানায় মামলা দায়ের করলে অভিযুক্ত রায়হানকে (২৫) গ্রেফতার করা হয়।

রায়হান উপজেলার শ্রীমন্তপুর ইউনিয়নের ঝাজিরা গ্রামের মতিউর রহমানের ছেলে।

অভিযোগ ও পরিবার সূত্রে জানা যায়, গত ২০ সেপ্টেম্বর রবিবার বেলা ৫টায় বালাহৈর বখাটে রায়হান তার ভাড়া বাড়িতে ওই ছাত্রীকে ডেকে নিয়ে গিয়ে রায়হান ও তার স্ত্রী মাথার চুল কেটে, মারধর করে ও অশ্লীল ছবি তোলে।

ওই ছাত্রী অভিযোগ করেন, ‘রায়হান এক মাস ধরে আমাকে বিভিন্নভাবে উত্ত্যক্ত করতো। বিভিন্ন কুপ্রস্তাব দিতো। গত রবিবার বেলা ৩টা হতে ৪টা পর্যন্ত কম্পিউটার প্রশিক্ষণ শেষে নিয়ামতপুর উচ্চ বালিকা বিদ্যালয়ের শিক্ষক কামাল হোসেনের নিকট প্রাইভেটের টাকা দিতে বালাহৈর জামে মসজিদের কাছে যাই। এসময় রায়হান ও তার তিন বন্ধু আমাকে জোরপূর্বক তার ভাড়া বাড়িতে নিয়ে যায়। সেখানে আমাকে শারীরিকভাবে নির্যাতন করে। দেড় ফুট লম্বা মাথার চুল কেটে ফেলে এবং আমার অশ্লীল ছবি তুলে। এসব কাউকে বললে আমাকে মেরে ফেলার হুমকি দেয়।’

ওই ছাত্রী আরও বলে, আমাকে দুই ঘণ্টা ঘরে আটকে রেখে আমার পর্নছবি তোলে সন্ধ্যা ৭টার পরে থানায় নিয়ে গিয়ে ভয়ভীতি দেখিয়ে মিথ্যা জবানবন্দি দিতে বাধ্য করে। পরে আমার নানা থানায় এসে আমাকে তার বাড়িতে নিয়ে যায়। রাত ১২টায় শারীরিকভাবে অসুস্থ হলে আমাকে হাসপাতালে নিয়ে এসে ভর্তি করা হয়।

এ বিষয়ে অভিযুক্ত রায়হান বলে, ওই ছাত্রী গত তিন চার দিন আগে আমার বাসায় এসে আমার স্ত্রী রূপাকে একটি ছেলের সঙ্গে সময় কাটানোর প্রস্তাব দেয়। সে দিন রাজশাহী গিয়েছিলাম। আমি বাড়ি আসলে আমার স্ত্রী রূপা বিষয়টি আমাকে জানালে আমি সেদিন ওই ছাত্রীকে খুঁজছিলাম। গত রবিবার বেলা ৫টায় তাকে বালাহৈর জামে মসজিদের কাছে পেলে তাকে আমার স্ত্রীর কাছে নিয়ে যাই। আমার স্ত্রী তাকে চিহ্নিত করে। সে সময় তার অভিভাবকে ডাকতে বলি। সে অভিভাবকে না ডাকায় আমার স্ত্রী তাকে সামান্য চড় থাপ্পড় দিয়ে মাথার চুল কেটে দেয়। এতে পরবর্তীতে আর কোনও খারাপ কাজ করতে না পারে।

থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) হুমায়ন কবির বলেন, মেয়েটির বাবা সোমবার দুপুরে থানায় বাদী হয়ে মামলা দায়ের করলে অভিযুক্ত রায়হানকে গ্রেফতার করা হয়।। আর তদন্ত সাপেক্ষে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে বলে জানান তিনি।

/টিটি/

লাইভ

টপ