নুরের বিরুদ্ধে মামলা: পাঁচ জেলায় বিক্ষোভ-মানববন্ধন

Send
বাংলা ট্রিবিউন ডেস্ক
প্রকাশিত : ০৬:১৬, সেপ্টেম্বর ২৩, ২০২০ | সর্বশেষ আপডেট : ০৬:৪৩, সেপ্টেম্বর ২৩, ২০২০

পটুয়াখালীতে মানববন্ধনঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের কেন্দ্রীয় ছাত্র সংসদের সাবেক সহ-সভাপতি (ভিপি) নুরুল হক নুর ও তার সংগঠনের নেতাদের বিরুদ্ধে দায়ের করা ধর্ষণ মামলাকে মিথ্যা মামলা হিসেবে আখ্যা দিয়েছেন বাংলাদেশ সাধারণ ছাত্র অধিকার সংরক্ষণ পরিষদের (ছাত্র অধিকার পরিষদ) বিভিন্ন জেলা শাখার নেতাকর্মীরা। এ মামলা প্রত্যাহারের দাবিতে সংগঠনটির পটুয়াখালী, যশোর, দিনাজপুর, ময়মনসিংহ ও বরিশাল শাখার নেতাকর্মীরা মিছিল, মানববন্ধন ও বিক্ষোভ করেছেন। আমাদের জেলা প্রতিনিধিদের পাঠানো তথ্যে বিস্তারিত তুলে ধরা হলো: 

পটুয়াখালী

ডাকসুর সাবেক ভিপি নুরুল হক নুরসহ অন্যদের বিরুদ্ধে মামলা ও গ্রেফতারের প্রতিবাদে মানববন্ধন, বিক্ষোভ-সমাবেশ ও মিছিল করেছে পটুয়াখালী জেলা ছাত্র অধিকার পরিষদ। মঙ্গলবার (২২ সেপ্টেম্বর) বেলা ১২টার দিকে পটুয়াখালী প্রেস ক্লাব চত্বরে ঘণ্টাব্যাপী তারা এ কর্মসূচি পালন করে। 

মানববন্ধনে পটুয়াখালী জেলা ছাত্র অধিকার পরিষদের প্রধান সমন্বয়ক শহিদুল ইসলাম ফাহিম, সহকারী সমন্বয়ক আতিকুর রহমান ও মো. আতিক উপস্থিত ছিলেন। শতাধিক ছাত্রনেতা মানববন্ধনে অংশ নেন। 

এ সময় শহিদুল ইসলাম ফাহিম বলেন, ‘মিথ্যা মামলা তুলে নিতে হবে। তুলে না নিলে আমরা কঠোর কর্মসূচি দিতে বাধ্য হবো। ছাত্র অধিকার পরিষদ প্রতিবাদ করতে শিখেছে। আজ আমরা রাস্তায় নেমেছি প্রতিবাদ করতে। নুর ভাইকে আর যদি কোনও মামলা দেওয়া হয়, দেশের সব ছাত্র রাজপথে নেমে যাবে।’ 

এদিকে, রবিবার সন্ধা ৭টার দিকে নুরের নিজ এলাকা গলাচিপা উপজেলার চরবিশ্বাস বাজারে এলাকাবাসীর উদ্যোগে মশাল মিছিল বেল করা হয়। এতে এলাকার শতশত মানুষ অংশ নেন।

দিনাজপুর

নুরুল হক নুর ও তার সংগঠনের নেতাকর্মীদের বিরুদ্ধে মামলা দেওয়ার প্রতিবাদে দিনাজপুরে মানববন্ধন কর্মসূচি ও বিক্ষোভ-সমাবেশ হয়েছে। মঙ্গলবার দুপুর ১২টার দিকে দিনাজপুর প্রেস ক্লাবের সামনের সড়কে বাংলাদেশ ছাত্র অধিকার পরিষদ, দিনাজপুর শাখার আয়োজনে এই মানববন্ধন কর্মসূচি পালন করা হয়।

এ সময় অংশগ্রহণকারী নেতারা বলেন, ‘সাবেক ভিপি নুরের বিরুদ্ধে যে মামলা দেওয়া হয়েছে, তা সম্পূর্ণ মিথ্যা। আবার শান্তিপূর্ণ কর্মসূচিতে হামলা করেছে পুলিশ, অন্যায়ভাবে বেশ কয়েকজনকে গ্রেফতার করেছে। এর জবাব অবশ্যই প্রশাসনকে দিতে হবে। ভারতীয় আগ্রাসনের বিরুদ্ধে যখনই কেউ কোনও কথা বলেন, তখনই তার ওপর হামলা-মামলার ঘটনা ঘটে। বুয়েটের শিক্ষার্থী আবরার ভারতীয় আগ্রাসনের বিরুদ্ধে কথা বলেছিল বলে তার ওপর হামলা হয়েছে। আমরা ছাত্ররা কারও বিপক্ষে না, কিন্তু আমরা সত্যের পক্ষে।’ বক্তব্য শেষে তারা বৃষ্টি উপেক্ষা করে শহরে বিক্ষোভ মিছিল করেন।

কর্মসূচিতে অংশগ্রহণ করেন একরামুল হক আবির, চঞ্চল, সঞ্জয়, দিপক রায়, তৌফিক হাসান, হিমেলসহ ছাত্র অধিকার পরিষদ ও যুব অধিকার পরিষদের নেতাকর্মীরা।

যশোর

যশোরে ডাকসুর সাবেক ভিপি নুরুল হক নুরসহ ছাত্র অধিকার পরিষদের নেতাকর্মীদের বিরুদ্ধে দায়ের করা মামলা প্রত্যাহারের দাবি জানানো হয়েছে। ছাত্র অধিকার পরিষদ, যশোর শাখার উদ্যোগে মঙ্গলবার দুপুরে যশোর প্রেস ক্লাবের সামনে এ মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়।

ঘণ্টাব্যাপী মানববন্ধনে সংগঠনের জেলা সমন্বয়ক জুবায়ের হোসেনের নেতৃত্বে যশোরের বিভিন্ন কলেজের শিক্ষার্থীরা অংশ নেন।

যশোরে মানববন্ধনএ সময় নেতারা বলেন, ‘সরকারের স্বৈরাচারী আচরণের কারণে সাধারণ মানুষ জিম্মি হয়ে পড়েছে। ছাত্র অধিকার পরিষদ ইতিবাচক রাজনীতির মাধ্যমে স্বৈরাচারী রাজনীতির পরিবর্তন চায়। কিন্তু সরকার ও তার পেটোয়া বাহিনী হামলা করে ছাত্রদের দমিয়ে রাখতে চায়। যার ধারাবাহিকতায় ছাত্র অধিকার পরিষদের আহ্বায়ক হাসান আল মামুন, ডাকসু’র সাবেক ভিপি নুরুল হক নুরসহ ছয় জনের বিরুদ্ধে ধর্ষণ মামলা হয়েছে। এমনকি ছাত্রদের ওপর হামলা করে আহত এবং সাত জনকে আটক করা হয়।’

বরিশাল

নুরুল হক নুরুসহ পাঁচ জনের বিরুদ্ধে দায়ের করা মামলা প্রত্যাহারের দাবিতে বরিশালে মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়েছে। মঙ্গলবার দুপুর ১২টায় নগরীর আগরপুর রোডস্থ বরিশাল প্রেস ক্লাবের সামনে এই মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়। বাংলাদেশ ছাত্র অধিকার পরিষদ ও বাংলাদেশ যুব অধিকার পরিষদ যৌথভাবে এই মানববন্ধনের আয়োজন করে। বক্তৃতা করেন ছাত্র অধিকার পরিষদ মহানগর শাখার সভাপতি মেহেদি হাসান, যুব অধিকার পরিষদের সহ-সমন্বয়ক রফিকুল ইসলামসহ অন্যরা।

বক্তারা বলেন, ‘ডাকসুর সাবেক ভিপি নুরুল হক নুরের বিরুদ্ধে দায়ের করা মামলা মিথ্যা ও ভিত্তিহীন। তাকে হয়রানি করার জন্য মামলা করা হয়েছে। মামলা প্রত্যাহার ও হয়রানি বন্ধের দাবি জানাই। অন্যথায় দেশের শিক্ষার্থীদের সঙ্গে নিয়ে বৃহত্তর আন্দোলন গড়ে তোলা হবে।’

বরিশালে মানববন্ধনময়মনসিংহ

ডাকসুর সাবেক ভিপি নুরুল হক নুরসহ অন্যদের বিরুদ্ধে দায়ের করা মামলা ও গ্রেফতারের প্রতিবাদে মানববন্ধন করেছে ময়মনসিংহ জেলা ছাত্র অধিকার পরিষদ।

মঙ্গলবার দুপুর ১টায় বাংলাদেশ ছাত্র অধিকার পরিষদ, ময়মনসিংহ জেলা শাখার উদ্যোগে নগরীর শহীদ ফিরুজ জাহাঙ্গীর চত্বরে এই মানববন্ধন কর্মসূচি পালিত হয়।

মানববন্ধনে বক্তব্য রাখেন, ময়মনসিংহ ছাত্র অধিকার পরিষদের প্রধান উপদেষ্টা আবুল বাশার, উপদেষ্টা ঝুনু রঞ্জন দাস, নুরুজ্জামান ও সদস্য কামরান ইসলাম। এ সময় শতাধিক ছাত্রনেতা মানববন্ধনে উপস্থিত ছিলেন। মানববন্ধন শেষে ছাত্র নেতারা বিক্ষোভ মিছিল করতে চাইলে পুলিশি বাধায় তা পণ্ড হয় এবং ব্যানার ছিনিয়ে নেয় পুলিশ।

কোতোয়ারি মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) ফিরুজ তালুকদার বলেন, ‘শান্তিপূর্ণভাবে ছাত্রদের মানববন্ধন কর্মসুচি পালন করতে দিয়েছি। পরিস্থিতি স্বাভাবিক রাখার জন্য কোনও বিক্ষোভ মিছিল করতে দেওয়া হয়নি।’

উল্লেখ্য, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় কেন্দ্রীয় ছাত্র সংসদের সাবেক (ডাকসু) ভিপি নুরুল হক নুর এবং বাংলাদেশ সাধারণ ছাত্র অধিকার সংরক্ষণ পরিষদের (ছাত্র অধিকার পরিষদ) আহ্বায়ক হাসান আল মামুনসহ ৬ জনকে আসামি করে গত রবিবার (২০ সেপ্টেম্বর) রাতে রাজধানীর লালবাগ থানায় ধর্ষণের অভিযোগে একটি মামলা দায়ের করেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের এক ছাত্রী। ওই ছাত্রী মামলায় তাকে ধর্ষণ এবং মানসিক নির্যাতনসহ নানা অভিযোগের কথা তুলে ধরেন। মামলার অপর চার আসামি হলেন বাংলাদেশ ছাত্র অধিকার পরিষদের যুগ্ম আহ্বায়ক নাজমুল হাসান ও মো. সাইফুল ইসলাম, বাংলাদেশ ছাত্র অধিকার পরিষদের ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় শাখার সহ-সভাপতি নাজমুল হুদা এবং বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী আবদুল্লাহ হিল বাকি। মামলায় প্রধান আসামি করা হয় হাসান আল মামুনকে, আর অন্যদের বিরুদ্ধে ধর্ষণে সহায়তার অভিযোগ আনা হয়। মামলার প্রতিবাদে মিছিল বের করা হলে পুলিশ নুরসহ কয়েকজনকে আটক করে; যদিও পরে মুচলেকা নিয়ে তাদের ছেড়ে দেওয়া হয়।

 

/আইএ/

লাইভ

টপ