X
শনিবার, ২৮ জানুয়ারি ২০২৩
১৩ মাঘ ১৪২৯

প্রেক্ষাগৃহে ১৫০ দিন: ‘পরাণ’র সাফল্যের নেপথ্যে কী?

কামরুল ইসলাম
০৭ ডিসেম্বর ২০২২, ১৮:৩৬আপডেট : ০৮ ডিসেম্বর ২০২২, ১৭:০১

ঢালিউডের একটি সিনেমা টানা পাঁচ মাস ধরে প্রেক্ষাগৃহে চলছে; চোখ বন্ধ করে নিকট অতীত কল্পনা করলে এমন খবর পাওয়া যায় না। দৃশ বদলের এই গল্প রচনা করেছে রায়হান রাফী পরিচালিত সিনেমা ‘পরাণ’। গত ১০ জুলাই মুক্তি পাওয়ার পর থেকে এখনও প্রেক্ষাগৃহে প্রদর্শিত হচ্ছে সিনেমাটি।

মঙ্গলবার (৬ ডিসেম্বর) প্রেক্ষাগৃহে ১৫০ দিন পূর্ণ করেছে ছবিটি। যা প্রায় পাঁচ মাসের সমান। এখনও ঢাকার স্টার সিনেপ্লেক্স, ব্লকবাস্টার সিনেমাসে চলছে ‘পরাণ’। আগামী শুক্রবার (৯ ডিসেম্বর) থেকে শ্যামলী স্কয়ারেও ফের প্রদর্শিত হবে ছবিটি।

কোন জাদুতে টানা এতদিন ধরে প্রেক্ষাগৃহে নিজের অস্তিত্ব টিকিয়ে রেখেছে ‘পরাণ’? সেই প্রশ্নের উত্তর খোঁজার চেষ্টা করেছে বাংলা ট্রিবিউন।

নির্মাতা রাফীর মতে, দেশের কোনও সিনেমা এর আগে একটানা এতদিন প্রদর্শিত হয়নি। তিনি বলেন, “একটানা ১৫০ দিন; এর মধ্যে একদিনও গ্যাপ যায়নি। এর আগে বাংলাদেশের কোনও সিনেমা একটানা এতদিন চলেছিলো কিনা, আমার জানা নেই। ‘পরাণ’কে আসলে মানুষ তাদের মনে গেঁথে নিয়েছেন। এ কারণে নতুন ছবি আসছে, আবার নামছে; কিন্তু ‘পরাণ’কে নামাতে পারছেন না হল মালিকরা। এখনও হলে এসে দর্শক ছবিটি দেখতে চায়। কিছু ছবি থাকে, যেগুলোর সঙ্গে মানুষ একাত্মতা প্রকাশ করে ফেলে। ‘পরাণ’ তেমনই একটি ছবি।”

নির্মাতার সঙ্গে ‘পরাণ’র তিন তারকা এমন সাফল্যের জন্য নিজেকে ভাগ্যবান মনে করছেন রায়হান রাফী। তার ভাষ্য, “এরকম ছবি একজন নির্মাতার জীবনেও বারবার আসে না। আমি খুবই ভাগ্যবান যে, আমার তৃতীয় ছবিই এই অসামান্য সাফল্য পেয়েছে। তাছাড়া এটা অনেকদিন আগে বানানো ছবি। এরপরও দর্শক যে ভালোবাসা দিয়েছেন বা দিচ্ছেন, এটা প্রত্যাশার চেয়েও অনেক বেশি কিছু। ‘পরাণ’ আসলে সব হিসাব-নিকাশ পাল্টে দিয়েছে। আমরা যেই ধারণা করেছিলাম, এটা কতদিন চলতে পারে, সেই প্রত্যাশা অনেক আগেই হার মানিয়েছে ‘পরাণ’। একটা জিনিস বুঝলাম, যে ছবি জীবনের গল্প ধারণ করে, সেটা মানুষের মনে ঢুকে যায় এবং অনেকদিন চলে।”

চিত্রনায়িকা বিদ্যা সিনহা মিমের ক্যারিয়ারের উত্থান ঘটেছে ‘পরাণ’র মাধ্যমে। এর আগে তিনি বহু সিনেমায় অভিনয় করলেও ব্যবসায়িক সাফল্য সেভাবে আসেনি। তাই মিমের ক্যারিয়ারে ছবিটি বিশেষ হয়ে থাকবে সারাজীবন।

এই মুহূর্তে তিনি ঢাকার বাইরে রয়েছেন। তাই খুব বেশি কিছু বলতে পারলেন না। এটুকু বললেন, “এতদিন ধরে হলে চলছে, এটা অবশ্যই একটা বড় বিষয়। সেই সঙ্গে দারুণ ভালো লাগারও বটে। এটা আসলে ভালো ছবি। মানুষ দেখে মজা পাচ্ছে, তাই দেখছেন। ‘পরাণ’র ভেতরে কী আছে, সেটা তো বলে আসলে বোঝানো যাবে না। এটা দর্শকের ভালোলাগার বিষয়। তাদের কাছে ভালো লাগছে বলেই ছবিটি প্রায় পাঁচ মাস ধরে চলছে।”

‘পরাণ’র অনন্যা রূপে বিদ্যা সিনহা মিম দেশের সিনেমা বাণিজ্যের সবচেয়ে বড় খাত হয়ে উঠছে স্টার সিনেপ্লেক্স। এই মাল্টিপ্লেক্স চেইনের ছয়টি শাখা ইতোমধ্যে চালু হয়েছে। প্রতিষ্ঠানটির জ্যেষ্ঠ বিপণন কর্মকর্তা মেসবাহ উদ্দিন আহমেদের কাছে জানতে চাওয়া হয় ‘পরাণ’র অসামান্য সাফল্য প্রসঙ্গে।

তার জবাব, “আমাদের হলে ‘পরাণ’ টানা চলছিলো, তবে মাঝে এক-দুই সপ্তাহ বন্ধ ছিলো। আবারও আমরা চালাচ্ছি ছবিটি। এটা একটা ভালো কনটেন্ট। সবকিছু মিলে ছবিটা দেখে দর্শক আনন্দ পাচ্ছে। ওই যে বলে না, ‘পয়সা উসুল ছবি’? এটা তেমনই। এজন্য একজন দর্শক দেখার পর তিনি আরও দশজনকে বলছেন, এভাবেই ছবিটার প্রচারণা হয়ে যাচ্ছে। নিকট অতীতে কোনও সিনেমাই এতদিন ধরে একটানা চলেনি। গত কয়েক বছরের কথা যদি বলি, তাহলে সবচেয়ে বেশিদিন ধরে প্রদর্শিত হচ্ছে ‘পরাণ’।”

বিশ্লেষকদের মতে ‘পরাণ’ ব্লকবাস্টার হওয়ার পেছনে মূল নিয়ামক হিসেবে কাজ করেছে এর গান। বিশেষ করে ‘চলো নিরালায়’ ও ‘জ্বলেরে পরাণ’ গান দুটি সিনেমা হিটের আগেই ছড়িয়েছে দেশজুড়ে। চলচ্চিত্র সংশ্লিষ্টরা মনে করেন, ঢালিউডের ইতিহাসে গান হিট মানেই ছবি হিট। তারই প্রতিধ্বনি মিলেছে ‘পরাণ’-এ।

‘চলো নিরালায়’ গানটির গীতিকবি জনি হক বলেন, ‘‘একটি ছবি সুপার হিট হওয়ার পেছনে অনেকগুলো ফ্যাক্টর থাকে। যেমন গল্প, অভিনেতা, নির্মাণ এবং প্রচারণা। তবে ঢালিউডের বেলায় গান শ্রোতাদের মন ছুঁয়ে গেলে ছবি হিট হওয়ার ক্ষেত্রে অনুঘটক হিসেবে কাজ করে। ‘পরাণ’ ছবিটি মুক্তির আগে বাতাসের বেগে ছড়িয়ে পড়ে ‘চলো নিরালায়’। অনেকেই বলছেন, এই গান নাকি অনেক দর্শককে টেনে এনেছে সিনেমা হলে। এমন একটি গানের অংশ হতে পেরে নিজেকে ধন্য মনে করছি। এজন্য কৃতজ্ঞতা জানাই গানটির স্রষ্টা নাভেদ পারভেজকে। ধন্যবাদ দুই কণ্ঠশিল্পী, নির্মাতা ও সংশ্লিষ্ট সবাইকে।’’

উল্লেখ্য, ২০১৯ সালে বরগুনায় ঘটে যাওয়া বহুল আলোচিত রিফাত হত্যাকাণ্ডের ছায়া অবলম্বনে ‘পরাণ’র গল্প সাজিয়েছেন রায়হান রাফী। এই ছবিতে বিভিন্ন চরিত্রে অভিনয় করেছেন শরিফুল রাজ, বিদ্যা সিনহা মিম, ইয়াশ রোহান, শহীদুজ্জামান সেলিম, শিল্পী সরকার অপু, নাসির উদ্দিন খান, রাশেদ মামুন অপু, রোজি সিদ্দিকী প্রমুখ।

প্রযোজক লাইভ টেকনোলজির দেওয়া তথ্য অনুসারে, ‘পরাণ’র মোট ব্যয় ৮৩ লাখ টাকা। শোনা যায়, ছবিটি ১২ কোটি টাকারও বেশি আয় করেছে। যদিও বাজেট এবং আয়ের অংকের যথার্থতা নিয়ে প্রশ্ন রয়েছে। কেননা বাংলাদেশে বক্স অফিস কিংবা বাজেট সংক্রান্ত তথ্যের স্বচ্ছতা নেই।

/কেআই/এমএম/
সম্পর্কিত
আনন্দ-বিষাদে এক বছর, যা বললেন রাজ-পরী
আনন্দ-বিষাদে এক বছর, যা বললেন রাজ-পরী
এবার ‌‘দামাল’ উৎসব!
এবার ‌‘দামাল’ উৎসব!
অভিমান পেরিয়ে দুবাই সফর
অভিমান পেরিয়ে দুবাই সফর
এখনও মিম যার জন্য পাগল
এখনও মিম যার জন্য পাগল
বিনোদন বিভাগের সর্বশেষ
নীরবতা ভাঙলেন পাঠান, দিলেন উপদেশ
নীরবতা ভাঙলেন পাঠান, দিলেন উপদেশ
তিশার সঙ্গে জুটি নিয়ে প্রশ্ন, জোভানের অভিমানী উত্তর!
তিশার সঙ্গে জুটি নিয়ে প্রশ্ন, জোভানের অভিমানী উত্তর!
কলকাতার দেয়ালে দেয়ালে তাসনিয়া: ফারিণের পাশে দাঁড়ালেন প্রসেনজিৎ
কলকাতার দেয়ালে দেয়ালে তাসনিয়া: ফারিণের পাশে দাঁড়ালেন প্রসেনজিৎ
জ্যাকুলিনের ঘরে জোড়া সুখবর
জ্যাকুলিনের ঘরে জোড়া সুখবর
বিয়ে করে বিপাকে অভিনেতা তৌসিফ!
বিয়ে করে বিপাকে অভিনেতা তৌসিফ!